• চলে গেলেন বামফ্রন্টের আভ্যায়ক খগেন দাস
  • নির্বাচন কমিশনের কাছে বিজেপির একগুচ্ছ দাবি
  • কর্মচারীদের কাজ থেকে নির্বাচনী তহবিলে অর্থ, অভিযোগ নির্বাচন কমিশনে
  • শাসক দলের অনুগতদের নির্বাচনী দায়িত্ব থেকে সরানোর দাবি বিজেপির
  • নির্বাচনী কর্মকাণ্ডের চূড়ান্ত রূপ দিতে আসছেন রাম মাধব
  • বিজেপিতে সামিল তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের সর্বভারতীয় নেতা
  • সিপিআইএম এর প্রার্থী তালিকা নিয়ে জল্পনা কল্পনা
  • রাজনৈতিক দলকে চাঁদা দেওয়া কর্মচারীদের নিরপেক্ষতা নষ্ট করে: সিইও
  • রাজ্যে এল আরো কেন্দ্রীয় আধা সামরিক বাহিনী
  • ত্রিপুরার প্রধানমন্ত্রীর সফরসূচি পিছিয়ে গেছে
  • আজও বেঁচে আছে রেডিও
  • আজও বেঁচে আছে রেডিও
  • নির্বাচনের কারণে পিছানো হতে পারে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের পরীক্ষা
  • শাসক দলের হয়ে কাজ করতে গিয়ে জনরোষের মুখে পুলিশ
  • চূড়ান্ত ভোটার তালিকা রূপায়নে গড়মিলে অভিযুক্তদের সাজা হবে: সিইও
  • রাজনৈতিক সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের রূপ কমলপুর
  • বিজেপি-আইপিএফটির জোট চূড়ান্ত
  • ত্রিপুরায় ইস্যুতে সরগরম, সিপিআইএম এর কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠক
  • নির্বাচন ঘোষণা অভূতপূর্ব চ্যালেঞ্জের মুখে দারিয়ে বাম নেতৃত্ব
  • সিপিআইএম থেকে বেরিয়েই বিস্ফোরক মন্তব্য নৃপেন সঙ্গী
  • ভুয়ো ভোটার নিয়ে পুনরায় নির্বাচন কমিশনে যাবে বিজেপি
  • রাজ্যে ভোট ১৮ই ফেব্রুয়ারি। গণনা ৩ মার্চ
  • http://www.agartalanewsexpress.com/news/topfive/get.php?id=1663
  • আইপিএফটির সঙ্গে জোট নিয়ে চূড়ান্ত আলোচনা গুয়াহাটিতে বৃহস্পতিবার

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

স্বাস্থ্য

00310
0057
0057
0057
0057
হৃদরোগ ও ফুসফুস জনিত রোগে ভারতে মৃত্যুর সংখ্যা উল্লেখযোগ্য : আইসিএমআর

নয়াদিল্লি, ২৯ নভেম্বর (এ.এন.ই ): সম্প্রতি আইসিএমআর-এর একটি সমীক্ষায় উঠে এসেছে, ভারতের অপেক্ষাকৃত ধনী রাজ্যগুলি যেমন পঞ্জাব, হরিয়ানা, তামিলনাডুতে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যা অনেকটাই বেশি। পঞ্জাবে যেখানে হৃদরোগজনিত সমস্যায় প্রতি ১ লাখ মানুষে মৃত্যুর সংখ্যা ২৬১, সেখানে পশ্চিমবঙ্গও এই সংখ্যাটা খুব কম নয়। হার্ট ও ব্রেন স্ট্রোকে মৃত্যুর সংখ্যা ২৫০-এর কাছাকাছি। অন্যদিকে, সিওপিডিতেও মৃত্যুর সংখ্যা এরাজ্যে প্রতি লাখে ৪৮ জন। হৃদরোগে আক্রান্তের সংখ্যাটা যেমন পঞ্জাব, হরিয়ানা বা তামিলনাডুর মতো রাজ্যে বেশি, তেমনই দূষণে উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, বিহারের মতো জায়গায় মৃত্যুর সংখ্যা উল্লেখ্যযোগ্য। প্রতি এক লাখ জনসংখ্যায় দিল্লি, উত্তরপ্রদেশের মতো রাজ্যে বছরে মৃত্যু হয় ৮০ থেকে ১০০ জনের। অন্যদিকে, বায়ুদূষণের ফলে হাঁপানি, ফুসফুসজনিত রোগে পশ্চিমবঙ্গে মৃতের সংখ্যা ২৬-এ আশপাশে। ডায়রিয়াতেও এরাজ্যে মৃত্যুর হার অনেকটাই কম। ওড়িশা, ছত্তিশগড়, ঝাড়খণ্ডের মত রাজ্যগুলিতে এই রোগে মৃতের সংখ্যা ২০০ ছাড়ায়। পশ্চিমবঙ্গে জলবাহিত রোগে মৃত্যুর পরিসংখ্যানটাও উল্লেখযোগ্য ভাবে কম। এখানে একলাখে মাত্র ৩৮ জনের মৃত্যু হয় এই রোগের প্রভাবে। এমনই পরিসংখ্যান জানাচ্ছে সরকারি সংস্থা ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ(আইসিএমআর)। তবে এখানেই শেষ নয়, আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য দিচ্ছে ওই সংস্থা। মৃত্যুর একাধিক কারণ থাকে। তবে, এর মধ্যে হৃদরোগ ও ফুসফুস জনিত রোগে ভারতে মৃত্যুর সংখ্যা উল্লেখযোগ্য।


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.