ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

খেলাধূলা

অস্ট্রেলিয়ায় সাথে লড়াই কঠিন লড়াই অপেক্ষা করছেঃ রোহিত শর্মা

চেন্নাই ১২ নভেম্বর (এ.এন.ই ): বিরাট কোহলি কিংবা মহেন্দ্র সিং ধোনিরা যা পারেননি রবিবার চেন্নাইয়ে সেটাই করে দেখালেন নেতা রোহিত শর্মা। প্রথম ভারতীয় অধিনায়ক হিসেবে দু বার ৩-০ ব্যবধানে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার নজির গড়লেন রোহিত। ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে সিরিজ শেষ হতেই রোহিতের মুখে অস্ট্রেলিয়া সিরিজের কথা। ঘরের মাঠে ক্যারিবিয়ানদের টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ করলেও আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সফরে কঠিন লড়াই অপেক্ষা করছে বলেই যেন সতর্ক করে দিলেন 'হিটম্যান'। আসন্ন অস্ট্রেলিয়া সফরের শুরুতেই তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে ভারত। ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে সিরিজ জয়ের ইতিবাচক দিকগুলি অস্ট্রেলিয়ায় সাহায্য করবে বলেই মনে করেন রোহিত। উইন্ডিজের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজ জেতার পর রোহিত বলেন, "সামগ্রিকভাবে, আমি খুশি যেভাবে এই সিরিজে সবাই পারফর্ম করেছে। এই সিরিজের অনেক ইতিবাচক দিক রয়েছে। বিশেষ করে ফিল্ডিং নিয়ে আমি খুব খুশি।" তবে অস্ট্রেলিয়া সফর নিয়ে কিন্তু বেশ সিরিসাস রোহিত শর্মা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, " অস্ট্রেলিয়া সবসময়ের জন্য চ্যালেঞ্জিং। আপনি যখনই ও দেশে যাবেন প্রতিবারই আপনাকে ব্যক্তিগত এবং দলগত পরীক্ষা দিতে হবে। অস্ট্রেলিয়ায় কিন্তু কঠিন লড়াই হবে। আমরা এখানে দল হিসেবে যা করেছি সেটাই আমাদের ওখানে করতে হবে। এই মুহূর্তে দলের মনোবল তুঙ্গে রয়েছে। অস্ট্রেলিয়ায় আমাদের সেরা অস্ত্রগুলো প্রয়োগ করতে হবে।"

12-11-2018 02:34:29 pm

স্পেশাল ভক্তের সঙ্গে ধোনি মানবিক দিক নিয়ে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন সবাই

২ নভেম্বর (এ.এন.ই ): কেরিয়ারে অনেকবারই এমন দুঃসময় গিয়েছে তাঁর। কিন্তু এই সময়টা যেন অতি দুঃসময়। কোনওভাবেই এই অসময় কাটিয়ে উঠতে পারছেন না তিনি। তবে তাতে যে তাঁর সাম্রাজ্যে খুব একটা প্রভাব পড়েছে তা নয়। মহেন্দ্র সিং ধোনি মানে তো আস্ত একটা দেশ। ক্রিকেটের দেশে ধোনিই সম্রাট। সেখানে রাজার খারাপ সময় কখনওই তাঁর সুনাম কেড়ে নিতে পারে না। সেটাই যেন প্রমাণ হল আবার। কেরলে। রাজা ধোনি এখানে রাজাই রইলেন। অফ ফর্ম, রান না পাওয়া, চারপাশের সমালোচনা কোনও কিছুই তাঁর সুনামকে স্পর্শ করতে পারল না। এমনিতেই দক্ষিণে এমএস ধোনি জনপ্রিয়তার শিখরে। তার উপর গ্রিন ফিল্ড স্টেডিয়ামে ভারতীয় দল আবার সিরিজ জিতল। ফলে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সিরিজের শেষ ম্যাচের পর ভারতীয় দলকে নিয়ে কেরলে উন্মাদনার শেষ ছিল না। সিরিজ জিতে স্টেডিয়াম ছাড়ার পর ধোনির জন্য অপেক্ষা করছিল একজন স্পেশাল ফ্যান। প্রথমে ধোনি তাকে খেয়াল করেননি। কিন্তু যে মুহূর্তে সেই স্পেশাল ফ্যানকে দেখলেন তখনইই দাঁড়িয়ে পড়লেন এমএসডি। তার পর ধীরে ধীরে এগিয়ে এলেন সেই স্পেশাল ফ্যানের দিকে। প্রিয় তারকাকে হাতের নাগালে পেয়ে তখন সেই ভক্তের আবেগ যেন বাঁধ মানছিল না। ধোনি কাছে আসতেই প্রথমে প্রবল শ্রদ্ধায় তাঁর হাতে চুম্বন করে সেই ভক্ত। মহূর্তটা ধোনির জন্যও আবেগঘন হয়ে পড়ে। দীর্ঘক্ষণ সেই ভক্তের সঙ্গে কথাও বললেন ধোনি। তার পর সেই ভক্তের গায়ে মাথায় হাত বুলিয়ে দিলেন পরম স্নেহে। ধোনির এমন স্নেহপ্রবণ ভূমিকা সোশ্যাল সাইটে ভাইরাল হল। স্পেশাল ভক্তের সঙ্গে ধোনি যেভাবে মিলেমিশে গেলেন তাতে আরও একবার তাঁ মানবিক দিক নিয়ে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হলেন সবাই। এমন ছোট ছোট মুহূর্ত একজন ক্রিকেটারের জীবনেও বড় পাওনা। ভক্তদের জন্যই একজন তারকা আসলে তারকা হয়ে ওঠেন। ভক্তদের ভালবাসা, শ্রদ্ধাই হয়ে যায় তাঁর আজীবনের সম্পদ। কিন্তু অনেক সময়ই অনেক তারকারা ভক্তদের সেই ভালবাসা, আবেগের দাম দিতে ভুলে যান। ধোনি কিন্তু সেই দলে পড়েন না। তিনি মাঠের মতো মাঠের বাইরেও এক ব্যতিক্রমী চরিত্র। সেটাই যেন প্রমাণ হয়ে গেল গ্রিন ফিল্ড স্টেডিয়ামের বাইরে।

02-11-2018 03:41:36 pm

বেল ঘরিয়ার ছেলে ব্যাডমিন্টনে হারালেন পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ও দুবারের ওলিম্পিকে সোনা জয়ী

২ নভেম্বর (এ.এন.ই ): বাবা সরকারি কর্মচারি। ছেলের খেলাধূলার প্রতি প্রবল টান। ছেলের হুজুগে বাবা যে উত্সাহ জোগাননি তা নয়। কিন্তু বাবার ইচ্ছে ছিল, ব্যাডমিন্টন যেন ছেলের সরকারি চাকরি জোগারের আধার হয়। ছেলে সেখানেই বেঁকে বসেছিল। প্রতিভা, পরিশ্রম, উত্সাহ, চেষ্টার মূল্য কখনও সরকারি চাকরির সুখী ঘেরাটোপে আটকে থাকতে পারে না। ছেলে প্রথমে বাবাকে বোঝানোর চেষ্টা করে। বাবা গতানুগতিকতায় গা ভাসানো মানুষ। ছেলের উচ্চাকাঙ্ক্ষা আঁচ করতে পারেননি। সেই ছেলে, শুভঙ্কর দে বেলঘরিয়া থেকে দৌড় শুরু করেছিলেন। ডেনমার্ক, জার্মানি, লন্ডন হয়ে এখনও গন্তব্য খুঁজে চলেছেন। থামবার জো নেই। বরং আরও উঁচুতে ওড়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। শুভঙ্করের উড়ানে কোনও গলদ ছিল না। সেটা যেন আরও একবার প্রমাণ হয়ে গেল। ১৬ বছর বয়সে বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে পড়েছিলেন। সেই ছেলে, শুভঙ্কর দে বেলঘরিয়া থেকে দৌড় শুরু করেছিলেন। ডেনমার্ক, জার্মানি, লন্ডন হয়ে এখনও গন্তব্য খুঁজে চলেছেন। থামবার জো নেই। বরং আরও উঁচুতে ওড়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। শুভঙ্করের উড়ানে কোনও গলদ ছিল না। সেটা যেন আরও একবার প্রমাণ হয়ে গেল। ১৬ বছর বয়সে বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে পড়েছিলেন। স্বপ্নপূরণের নেশায়। সেই নেশাই তাঁকে উড়ানের জ্বালানি জুগিয়ে চলেছে এখনও। কলকাতা ছেড়ে বহু আগে চলে যাওয়া সেই শুভঙ্কর এবার হারালেন পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ও দুবারের ওলিম্পিকে সোনা জয়ী লিন ডানকে। বিশ্ব ব্যাডমিন্টনে শুভঙ্কর এখন ৬৪ নম্বরে। লিন ডান ১২। সার লর লাক্স ওপেনে শুভঙ্কর ৪৫ মিনিট হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর হারালেন লিন ডানকে। ২২-২০, ২১-১৯ ম্যাচের ফল। আর পাঁচজন শাটলার-এর মতো শুভঙ্করের কলকাতা ছেড়ে যাওয়ার কারণও একই। জার্মানি থেকে শুভঙ্কর বলছিলেন, ''হায়দরাবাদ, বেঙ্গালুরুতে ব্যাডমিন্টন অ্যাকাডেমিগুলোতে দুই বেলা ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। কলকাতায় এমন কোনও অ্যাকাডেমি নেই। এখানে আসল সমস্যা হল পরিকাঠামোর অভাব। কলকাতায় থেকে আন্তর্জাতিক মঞ্চের জন্য প্রস্তুতি নেওয়াটা কার্যত অসম্ভব। সেই জন্য আমাকে কলকাতা ছেড়ে বেরোতেই হত। বাবা চেয়েছিল আমি যেন কলকাতাতেই চাকরি নিয়ে থেকে যাই। ১৩ বছর বয়সে আমি স্টেট চ্যাম্পিয়ন হই। তার পর ১৬ বছর বয়স থেকেই এদিক-ওদিক থেকে চাকরির বিভিন্ন প্রস্তাব আসছিল। বাবার বক্তব্য ছিল, বাইরে খেলতে গেলে আমার চোট লাগতে পারে। তা ছাড়া বাইরে খেলতে গেলে হাজার রকম ঝক্কি রয়েছে। কিন্তু আমি নিজের কেরিয়ার একটু অন্যভাবে গড়ার কথা ভেবেছিলাম। নিশ্চিন্তে কাটানোর জীবন কখনও চাইনি।'' সোদপুরে একখানা রেসিডেন্সিয়াল ব্যাডমিন্টন অ্যাকাডেমি শুরু করেছেন শুভঙ্কর। মাস কয়েক হল। আপাতত খান চল্লিশেক ছাত্র সেখানে ট্রেনিং করেন। আপাতমস্তক পেশাদারিত্বের মোড়া সেই অ্যাকাডেমি। ঠিক যেমনভাবে হায়দরাবাদের গোপীচাঁদ অ্যাকাডেমি বা বেঙ্গালুরুতে বিমল কুমার অ্যাকাডেমি কাজ করে, শুভঙ্কর সেরকম পেশাদারিত্ব মেপে চলতে চান। তার জন্য সোদপুরে নিজের অ্যাকাডেমিতে ইন্দোনেশিয়ান কোচকেও দায়িত্বে রেখেছেন শুভঙ্কর। দেশের জার্সি গায়ে এবার সৈয়দ মোদি গ্রাঁপ্রিতে নামবেন। তা ছাড়া দুবাই ওপেনেও খেলবেন। তার আগে গোটা ডিসেম্বরে নিজের সোদপুরের অ্যাকাডেমিতে থেকেই ট্রেনিং করবেন শুভঙ্কর।

02-11-2018 03:33:40 pm

খেলা চলাকালিন রোহিতের প্রবল আলোচনা এখন ভারতীয় ক্রিকেট মহলে

মুম্বাই ৩১ অক্টোবর (এ.এন.ই ): মুম্বাই ম্যাচে রোহিত ফিল্ডিং দেওয়ার জন্য যখন বাউন্ডারি লাইনে দাঁড়িয়েছিলেন তখন দর্শকর তাঁর নাম ধরেই ডাকছিলেন। এমন ব্যাপার ভারতীয় ক্রিকেটে নতুন কিছু নয়। এর আগে সচিন তেণ্ডুলকর, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, রাহুল দ্রাবিড়দের নাম ধরেও চিত্কার জুড়েছে দর্শকরা। এবার রোহিত...রোহিত। তা ছাড়া মুম্বইতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে রোহিত ১৬২ রানের ইনিংস খেলেছেন। এমন দিনে দর্শকরা তাঁর নাম ধরে ডাকবেন, এটাই স্বাভাবিক। তবে দর্শকদের ডাকে সাড়া দিয়েও ব্যতিক্রমী একটা কাণ্ড করলেন রোহিত শর্মা। রোহিত শর্মা দর্শকদের বললেন, রোহিত রোহিত নয়। বরং ইন্ডিয়া ইন্ডিয়া বলে চেঁচাতে। একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, রোহিত দর্শকদের দিকে ইঙ্গিত করে নিজের গায়ের জার্সিতে লেখা ইন্ডিয়া শব্দটা দেখাচ্ছেন। আর ইঙ্গিতে বোঝাতে চাইছেন, তাঁর নাম নয়, বরং দেশের নাম ধরে ডাকুন দর্শকরা। রোহিতের এমন দেশভক্তি নিয়ে প্রবল আলোচনা এখন ভারতীয় ক্রিকেট মহলে। একজন ক্রিকেটারের কাছে দেশের জার্সি পরে খেলাটা সবসময়ই স্পেশাল। যে কোনও ক্রিকেটারই দেশের জার্সিতে খেলার স্বপ্ন দেখেন। রোহিতের সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে দীর্ঘদিন। কিন্তু এখনও তিনি দেশের ওই নীল রঙা জার্সি পরে খেলতে সমান গর্ব অনুভব করেন। রোহিতর এমন একখানা কাণ্ড যেন সেটাই বুঝিয়ে দিয়ে গেল। প্রশংসিত হল তাঁর দেশপ্রেম।

31-10-2018 03:35:18 pm

দর্শকদের অনুস্কা অনুস্কা চিৎকারে খুশি কোহলি

মুম্বাই ৩১ অক্টোবর (এ.এন.ই ): সিরিজ এখন ২-১ হয়ে গিয়েছে। তাই ভারতীয় দলের প্রত্যেকে এখন রয়েছেন খোশমেজাজে। এমন সময় তাঁদের সঙ্গে কেউ অল্প-বিস্তর মজা করলেও রাগ-টাগ করছেন না বিরাট কোহলিরা। এই যেমন মুম্বইতে সিরিজের চতুর্থ ম্যাচের সময় দর্শকরা হঠাৎ করেই কোহলির সামনে অনুষ্কা...অনুষ্কা চিৎকার শুরু করে দিলেন। ব্যাপারটা যে মজা করেই করা হয়েছিল তা আর নিশ্চয়ই বলার অপেক্ষা রাখে না। অন্য সময় হলে কোহলি কী মনে করতেন কেউ জানে না। মুড অফ থাকলে বিরাট হয়তো বিরূপ প্রতিক্রিয়া জাহির করতে পারতেন। কিন্তু এদিন সেরকম কিছুই করলেন না। বরং দর্শকদের ইঙ্গিত করে আরও জোরে অনুষ্কার নাম ধরে চেঁচাতে বললেন।

31-10-2018 03:28:39 pm

এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি হকির ফাইনালে যুগ্মজয়ী ভারত-পাকিস্তান

মাসকটে ২৯ অক্টোবর (এ.এন.ই ): মাসকটে প্রবল বৃষ্টিতে ভেস্তে গেল এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনাল ম্যাচ। প্রতিযোগিতায় কোনও রিজার্ভ ডে না থাকায় ভারত-পাকিস্তান দুই দলকেই যুগ্মজয়ী ঘোষণা করা হয়। শনিবারই সেমি ফাইনালে জাপানকে হারিয়ে এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি হকির ফাইনালে ওঠে ভারতীয় দল। চলতি টুর্নামেন্টে ধারাবাহিকভাবে পারফরম্যান্স করে এসেছিলেন হরমনপ্রীত, আকাশদীপরা। অনেকেই ভারতকে সম্ভাব্য চ্যাম্পিয়নও ধরেছিলেন এবার এশিয়ান চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে। কিন্তু রবিবার ফাইনালে বৃষ্টির বাধা সব পণ্ড করে দিল। ভারতীয় সময় রাত দশটা বেজে চল্লিশ মিনিটে খেলা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও প্রবল বৃষ্টিতে ম্যাচ শুরু করা সম্ভব হয়নি। প্রায় ঘণ্টা দেড়েক অপেক্ষা করার পর ভারত-পাকিস্তানকে যুগ্মভাবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। ২০১৬ সালে শেষবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল ভারত। এই নিয়ে প্রতিযোগিতায় ভারত ও পাকিস্তান দুই দলই দুবার করে জিতেছে। এই নিয়ে পঞ্চমবার অনুষ্ঠিত এই টুর্নামেন্টে যুগ্মবিজয়ী হল ভারত-পাকিস্তান।

29-10-2018 06:00:36 pm

রোহিত ও রায়াডুর শতরান, উইন্ডিজের সামনে ৩৭৮ রানের লক্ষ্য

মুম্বই ২৯ অক্টোবর (এ.এন.ই ):খুব কাছে এসেও হল না। মুম্বইয়ের ব্র্যাবোর্ন স্টেডিয়ামের সুযোগ ছিল আরও একবার রোহিতের দ্বিশতরান দেখার। তবে সেটা হল না। আন্তর্জাতিক একদিনের ম্যাচে চার নম্বর দ্বিশতরানের কাছে এসেও ফিরে গেলেন মুম্বইয়ের তারকা ব্যাটসম্যান। ব্র্যাবোর্ন স্টেডিয়ামে রোহিত শর্মা খেলে গেলেন ১৬২ রানের ঝড়ো ইনিংস। ওয়ানডে কেরিয়ারে জীবনের ২১ তম শতরান অর্জন করতে নিলেন মাত্র ১৩৭ বল। ২০টি বাউন্ডারি আর ৪টি ওভার বাউন্ডারির ইনিংস নিয়ে রোহিত যেভাবে এগোচ্ছিলেন তাতে অনেকেই মনে করতে শুরু করেছিলেন, কেরিয়ারের চার নম্বর দ্বিশতরানটা বোধহয় আজই হয়ে যাবে। নার্সের বলে চন্দ্রপল হেমরাজের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে না ফিরল হয়ত ক্রিকেট অনুরাগীদের সেই আশা পূর্ণ হত। অন্যদিকে উইন্ডিজের বিরুদ্ধে কেরিয়ারের তিন নম্বর শতরান তুলে নিলেনন অম্বাতি রায়াডু। ৮০ বলে ১০০ রানের একটা ঝকঝকে ইনিংস আসে রায়ডুর ব্যাট থেকে। যার সুবাদে উইন্ডিজের সামনে ৩৭৮ রানের পাহাড় সমান লক্ষ্য রাখে ভারত ।

29-10-2018 05:50:01 pm

পেশাদারিত্বের নতুন নিদর্শন তুলে ধরলেন আম্পায়ার আলিম দার

২৬ অক্টোবর (এ.এন.ই ): আম্পায়ারিং তাঁর পেশা। আর পেশার ক্ষেত্রে দায়িত্বে কোনও ফাঁকি দেওয়া চলে না। নিজের পেশার প্রতি সততা থাকাটা জরুরি। সেটাই যেন চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে গেলেন আম্পায়ার আলিম দার। ক্রিকেট বিশ্বে আলিম দার চেনা নাম। এর আগেও তিনি একাধিকবার আলোচনায় এসেছেন বিভিন্ন কারণে। মাঠ ও মাঠের বাইরের সেসব কারণগুলো কখনও পজিটিভ, কখনও আবার নেগেটিভ। কিন্তু এবার পাকিস্তানের আম্পায়ার আলিম দারকে নিয়ে চারপাশে ধন্যি ধন্যি রব। পেশাদারিত্ব কাকে বলে, সেটা বুঝিয়ে গেলেন এই অভিজ্ঞ আম্পায়ার। শ্রীলঙ্কা ও ইংল্যান্ডের একদিনের সিরিজে পঞ্চম তথা শেষ ম্যাচের ঘটনা। বিশ্বের এক নম্বর একদিনের টিমের বিরুদ্ধে সিরিজে এই প্রথম জয়ের মুখ দেখল লঙ্কানরা। আর এই ম্যাচে পেশাদারিত্বের চরম নিদর্শন দেখিয়ে মন জিতে নিলেন আলিম। প্রথমে ব্যাট করে ইংল্যান্ডের সামনে ৩৬৭ রানের লক্ষ্যমাত্রা দাঁড় করায় শ্রীলঙ্কা। ব্যাট করতে নেমে ১৩২ রানে আট উইকেট খুইয়ে ফেলে ইংল্যান্ড। ২৭তম ওভারে লঙ্কার অফ স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয় ইংল্যান্ডের লিয়াম প্ল্যাঙ্কেটকে এলবিডব্লিউ করেন। আম্পায়ার আলিম দার সঙ্গে সঙ্গে প্ল্যাঙ্কেটকে আউট দিয়ে দেন। কিন্তু ইংল্যান্ডের ব্যাটসম্যান রিভিউ-এর আবদেন করেন। ইতিমধ্যে বৃষ্টি শুরু হয়ে যায়। ক্রিকেটাররা একে একে ড্রেসিংরুমের দিকে ছুটে যান। কিন্তু আলিম বৃষ্টির মধ্যেই দাঁড়িয়ে থাকেন। ডিআরএস প্রক্রিয়া চলাকালীন পুরো সময়টাই মাঠে বৃষ্টির মধ্যে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করতে থাকেন আলিম। ডিআরএস-এ দেখা যায় প্ল্যাঙ্কেট আউট ছিলেন। এর পরই তাঁকে আউট-এর নির্দেশ দিতে দিতে দৌড়ে মাঠ ছাড়েন পাকিস্তানের এই আম্পায়ার। ১৩২ রানে ৯ উইকেট হারিয়ে ইংল্যান্ড ততক্ষণে হারের প্রহর গুণতে শুরু করেছে। এই ম্যাচে অবশ্য শ্রীলঙ্কার দারুন পারফরম্যান্সের থেকেও বেশি কথা হয়েছে আলিমের এমন কাণ্ডে। সোশ্যাল মিডিয়ায় আলিম দার রাতারাতি আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছেন। সবার একটাই বক্তব্য, পেশাদারিত্বের নতুন নিদর্শন তুলে ধরলেন তিনি। উল্লেখ্য, ইংল্যান্ডের কাছে ৩-১ সিরিজ হারল শ্রীলঙ্কা। ২৭ অক্টোবর শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টি-২০ ম্যাচ খেলবে ইংল্যান্ড।

26-10-2018 04:48:20 pm

লুঙ্গির সঙ্গে ব্লেজার! এমন অদ্ভুত পোশাকে সমালোচনায় সাকিব

বাংলাদেশ ২৬ অক্টোবর (এ.এন.ই ): ঘরের মাঠে জিম্বাবোয়ার সঙ্গে সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ। কিন্তু শাকিব-আল-হাসান খেলতে পারছেন না। এশিয়া কাপ মাঝপথে ছেড়েই তাঁকে দেশে ফিরতে হয়েছিল। ভারতের বিরুদ্ধে এশিয়া কাপ ফাইনালে খেলতে পারেননি তিনি। কারণ, আঙুলে গুরুতর চোট। চোটের তীব্রতা এতটাই ছিল যে বাংলাদেশের এই স্পিনারের বোলিং-ভবিষ্যত নিয়েও জল্পনা শুরু হয়েছিল। তবে আপাতত তিনি অনেকটাই সুস্থ। অস্ট্রেলিয়ায় গিয়েছিলেন চিকিৎসার জন্য। ফিরে এসেছেন দেশে। চোট নিয়ে আশঙ্কা এখন অনেকটাই কেটেছে। কিন্তু শাকিব মাঠে ফিরবেন কবে? তা নিয়ে এখনও কোনও সদুত্তর পাওয়া যায়নি। তবে সূত্রের খবর, আরও অন্তত তিন মাস লাগবে তাঁর মাঠে ফিরতে। তবে এরই মধ্যে শাকিব আবার ব্যঙ্গ-বিদ্রুপের শিকার হয়ে পড়লেন। আজব পোশাক পরে। বাংলাদেশ দলে শাকিব অটোমেটিক চয়েজ। কিন্তু আঙুলের চোটের জন্য আপাতত শাকিব দলের বাইরে। ক্রিকেটে নেই। ফলে মাঠের বাইরে এখন তাঁর হাতে অগাধ সময়। সেটা একইসঙ্গে উপভোগ ও ঠিকঠাক ব্যবহার করছেন শাকিব। শাকিব আপাতত বিভিন্ন শুটিংয়ে ব্যস্ত। বিজ্ঞাপনী শুটের সেটে তোলা একটা ছবি তিনি এবার ফেসবুকে নিজের পেজে শেয়ার করেছিলেন। আর সেটা ঘিরেই যাবতীয় ব্যঙ্গ-বিদ্রুপের সূত্রপাত। সেই ছবিতে শাকিবকে লুঙ্গির সঙ্গে ব্লেজার পরা অবস্থায় দেখা যাচ্ছে। আরও একখানা ছবি অবশ্য তিনি পোস্ট করেছেন। তাতে শাকিব রঙিন চশমা পরে রয়েছেন। সেটা নিয়ে অবশ্য খুব বেশি কথা হয়নি। তবে লুঙ্গি ও ব্লেজার সহযোগে অদ্ভুত মিশ্রণের এমন পোশাক পরা শাকিবের ছবি ঘিরে ব্যপক আলোচনা চলেছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট দল তথা শাকিবের অনেক সমর্থকই এমন ছবি দেখে বিস্মিত হয়েছেন। শাকিব অবশ্য এই নিয়ে কোনও কথা বলেননি। ছবিটা যে নেহাতই বিজ্ঞাপনী শুটের স্বার্থে পরা, তা বোঝা যায়। তবুও লুঙ্গির সঙ্গে ব্লেজার! এমন অদ্ভুত পোশাক নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা কিন্তু ট্রোল করতে ছাড়লেন না। একজন যেমন লেখেন, ''শুটিং স্পটে নাকি বিশাল বিশাল স্ট্যান্ড ফ্যান থাকে। একটু সাবধানে থাকবেন ভাই। বাতাস আর লুঙ্গি ডেনজারাস কম্বো।'' অন্য একজন লিখলেন, ''যদি তুমি সফল হও তোমার লুঙ্গি পরা ছবিটাও হবে ইতিহাস। যদি তুমি বিফল হও তোমার কোর্ট পরা ছবিটা হবে উপহাস।''

26-10-2018 04:47:46 pm

অমৃতসরে ট্রেন দুর্ঘটনার পর শোকের সময় পাশে থাকার জন্য আফ্রিদিকে ধন্যবাদ গৌতম গম্ভীরের

২৬ অক্টোবর (এ.এন.ই ): দুই দেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে সব সময় যে শত্রুতার সম্পর্ক এমন নয়। ভারত-পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের প্রচুর নিদর্শন রয়েছে। আবার দুই দেশের এমন অনেক ক্রিকেটার রয়েছেন যাদের মাঠ ও মাঠের বাইরে অহি-নকুল সম্পর্ক। এই যেমন গৌতম গম্ভীর-শাহিদ আফ্রিদির সম্পর্ক। মাঠ কেন, মাঠের বাইরেও দুজনে দুজনের সঙ্গে দায়িত্ব নিয়ে শত্রুতা পর্ব চালিয়ে যান। কিন্তু কিছু কিছু ক্ষেত্রে শত্রুরও প্রশংসা করতে হয়। গৌতম গম্ভীর সেটাই বোঝালেন। এমনিতে সোশ্যাল মিডিয়ায় গোতি বেশ সচল। দেশ ও দেশের বাইরে হালফিলের বিভিন্ন ঘটনা নিয়েও গম্ভীর সবসময় অবগত থাকেন। সেক্ষেত্রে এদেশে ঘটে যাওয়া প্রতিটা ঘটনা নিয়ে কে, কী মন্তব্য করছেন বা অবস্থানে রয়েছেন সে সম্পর্কে খোঁজ রাখেন গোতি। তাই অমৃতসরের ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনার পর পাকিস্তানের শাহিদ আফ্রিদির টুইট তাঁর নজর এড়ায়নি। আর সেই টুইট-এর জন্য শত্রু আফ্রিদিকে তিনি বুকে টেনে নিতেও রাজি। মাঠে একাধিকবার গম্ভীরের সঙ্গে বচসায় জড়িয়েছেন আফ্রিদি। দুজনের মধ্যে বিবাদ এক-এক সময় লাগামছাড়া অবস্থাতেও পৌঁছেছে। শেষ পর্যন্ত আম্পায়ার ও দুই দলের ক্রিকেটারদের তত্পরতায় দুজনের মাঝে উত্তপ্ত পরিস্থিতি মিটেছে বারবার। মাঠের বাইরেও দুজনের লড়াই গড়িয়েছে বহুবার। আর সেসব ঘটনার কথা গম্ভীর নিজেও স্বীকার করে নিলেন। টুইটে লিখলেন, আমার সঙ্গে আফ্রিদির সম্পর্কের প্রচুর ইতিহাস রয়েছে। কিন্তু অমৃতসর ট্রেন দুর্ঘটনার পর ও যেভাবে শোকজ্ঞাপন করেছে তার জন্য ওকে কুর্ণিশ জানাচ্ছি। শোকের সময় পাশে থাকার জন্য আফ্রিদিকে ধন্যবাদ। উল্লেখ্য, অমৃতসরে ট্রেন দুর্ঘটনার পরই আফ্রিদি টুইট করে শোকজ্ঞাপন করেছিলেন। লিখেছিলেন, 'ট্র্যাজিক ঘটনা। নিহতদের পরিবারের জন্য আমার সমবেদনা। ঈশ্বর ওনাদের এত বড় শোক সামলে ওঠার শক্তি দিন।' অমৃতসরের দুর্ঘটনার পর পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও শোকজ্ঞাপন করেছিলেন।

26-10-2018 04:32:22 pm

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ইন্টার মিলানকে ২-০ গোলে হারাল মেসিহীন বার্সেলোনা

২৫ অক্টোবর (এ.এন.ই ): মেসি ছিলেন না, তবু ক্যামেরার ফোকাসে বার বার সামনে আসছিল এলএম টেনের সেই পরিচিত মুখ। তাঁকে ছাড়াই নূ ক্যাম্পে ইন্টার মিলানকে হারাতে কোনও সমস্যা হয় নি বার্সেলোনার। বুধবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ইন্টার মিলানকে ২-০ গোলে হারাল মেসিহীন বার্সা। বুধবার নূ ক্যাম্পে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ বি-র ম্যাচে প্রথমার্ধে বার্সেলোনার কাছে পাত্তাই পায় নি ইন্টার মিলান। বার্সার একের পর এক আক্রমণে তখন দিশেহারা ইতালির দলটি। ৩২ মিনিটে কাঙ্ক্ষিত গোল পেয়ে যায় বার্সা। ডান দিক থেকে লুই সুয়ারেজের ক্রস থেকে বাঁ পায়ের ভলিতে গোল করেন বার্সেলোনার ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার রাফিনিয়া। দ্বিতীয়ার্ধেও একচেটিয়া আক্রণ করতে থাকা বার্সেলোনা দ্বিতীয় গোল পেল ম্যাচের ৮৩ মিনিটে। ইভান রাকিটিচের বাড়ানো বল ধরে বাঁ পায়ের কোনাকুনি শটে ব্যবধান দ্বিগুন করেন জোর্ডি আলবা। সুয়ারেজ, কৌতিনহোরা সুযোগ নষ্ট না করলে গোলসংখ্যা আরও যে বাড়ত তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তিন ম্যাচের সবগুলোতে জিতে ৯ পয়েন্ট নিয়ে বি-গ্রুপের শীর্ষে রয়েছে বার্সেলোনা। মেসি হীন চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জয় এল ক্লাসিকোর আগে নিঃসন্দেহে বাড়তি আত্মবিশ্বাস জোগাবে কাতালানদের।

25-10-2018 03:34:30 pm

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা অলরাউন্ডার ডোয়েন ব্র্যাভো

২৫ অক্টোবর (এ.এন.ই ): ১৪ বছরের কেরিয়ারের ইতি। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা করলেন ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার ডোয়েন ব্র্যাভো। বুধবার ব্র্যাভো জানিয়েছেন, “আজ আমি সমস্ত ধরনের ফরম্যাট থেকেই অবসর নিচ্ছি। আমার এখনও মনে আছে ১৪ বছর আগের সেই দিনের কথা, যেদিন আমার হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল মেরুন রঙের টুপি। ২০০৪ সালের জুলাই মাস, ইংল্যান্ডের লর্ডসে অভিষেক থেকে শুরু করে শেষ দিন পর্যন্ত ক্রিকেটের প্রতি আমি একই রকম ভাবে উত্সাহী ছিলাম। আমার উত্সাহ এক ফোঁটাও কমেনি ”। ব্র্যাভো আরও বলনে, “বাকিরা যেভাবে আগামী প্রজন্মকে জায়গা ছেড়ে দিয়েছেন, আমিও তাই করলাম। ” উল্লেখ্য, ইংল্যান্ডে আন্তর্জাতিক কেরিয়ার শুরু করেন ডোয়েন ব্র্যাভো । প্রথম ম্যাচেই তিনি শিকার করেছিলেন মার্কস ট্রেসকথিক এবং অ্যান্ড্রু স্ট্রসের মতো তারকা ব্যাটসম্যানকে। এরপরই লর্ডসের মাটিতে টেস্ট ডেবিউ হয় ব্র্যাভোর। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ৪০টি টেস্টে ৮৬টি উইকেট রয়েছে তাঁর। টেস্টে শতরান আছে ৩টি। তাঁর ঝুলিতে অর্ধ-শতরান ১৩টি। আর একদিনের আন্তর্জাতিকে ব্র্যাভোর নামের পাশে রয়েছে ১৬৪টি ম্যাচ। যেখানে তিন হাজারের কাছাকাছি রান এবং ১৯৯টি উইকেট রয়েছে তাঁর। টেস্ট এবং একদিনের আন্তর্জাতিক ছাড়াও ব্র্যাভো খ্যাতি অর্জন করেছেন টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটেও। আন্তর্জাতিক কেরিয়ারের শেষের দিকে তিনি একজন টি-টোয়েন্টি স্পেশ্যালিস্ট হিসেবেই বিশ্ব পরিচিতি অর্জন করেন। আর সেকারণেই বিগ ব্যাশ, আইপিএল, বাংলাদেশের টি-টোয়েন্টি লিগে তাঁর কদরও খুব বেশি। জানা যাচ্ছে, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেও পেশাদার ক্রিকেট লিগগুলো-তে খেলা চালিয়ে যাবেন ক্যারিবিয়ান ডিজে।

25-10-2018 03:30:47 pm

পূজারার ট্যুর গাইডের টিপস

রাজকোট ৯ অক্টোবর (এ.এন.ই ): রাজকোট বেড়াতে যেতে চান। সঙ্গে রাখুন 'গাইড' চেতেশ্বর পূজারার টিপস। রাজকোটের ছেলে পূজারার শহরেই ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ভারতের প্রথম টেস্ট। সেই টেস্ট আড়াই দিনে জিতে ভারতীয় ক্রিকেট দল এখন বিশ্রামে। তারই মাঝে বিসিসিআই টিভি-তে অন্য এক ভূমিকায় দেখা গেল পূজারাকে। এবার তিনি যেন ট্যুর 'গাইড'। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পোস্ট করা ওয়েবসাইটে রাজকোট নিয়ে বলার সময় তিনটি বিষয়ের কথা উল্লেখ করেছেন পূজারা। তিনি বলেন, "আমি রাজকোটের ছেলে আর আপনারা এখন আমার শহরে আছেন, আর এখানে এলে অন্তত তিনটি জিনিসের সঙ্গে আপনাকে পরিচিত হতেই হবে।" কী সেই তিনটি জিনিস ... ১. গুজরাতি থালি : পূজারা বলেছেন, "রাজকোটে এলে আপনাকে গুজরাতি থালি খেতেই হবে। অনেক রকমের থালি পাওয়া যায় এখানে। তবে আমার সব চেয়ে পছন্দ হল, বজরা কা রোটি আর খিচড়ি। এই দুটো খেতেই হবে। এর সঙ্গে থাকবে নানা সুস্বাদু মিষ্টি। যা আপনি কখনও বাদ দিতে পারবেন না।" ২. গরবা নাচ : পূজারার পছন্দের তালিকায় দুই নম্বর থাকছে গরবা নাচ। তাঁর মতে, "নবরাত্রির সময় যদি আপনারা এখানে আসেন, তা হলে অবশ্যই এই গরবা নাচ দেখতে ভুলবেন না।" গরবা নিয়ে তাঁর মন্তব্য, "এটা একটা স্থানীয় উৎসব। গুজরাতের সংস্কৃতি ধরা পড়ে এই গরবা উৎসবে। গরবা নাচ শেখার চেষ্টা করেছিলাম, কিন্তু এখনও নাচতে পারি না। কিন্তু এটা বলতে পারি, সব মিলিয়ে আবহটা দারুণ থাকে। স্থানীয় সংস্কৃতি আর উৎসবের স্বাদ নিতে গেলে আপনাকে এই গরবা নাচ দেখতেই হবে।" ৩. আলফ্রেড হাই স্কুল : পূজারার কথায়, "রাজকোটে এলে আপনাদের এই আলফ্রেড হাই স্কুলে আসতেই হবে। এখানেই আমাদের জাতির জনক মহাত্মা গান্ধী পড়াশোনা করেছিলেন। এই স্কুলে এলে আপনি ভারতীয় ইতিহাসের সাক্ষী হতে পারবেন।"

09-10-2018 03:29:50 pm

প্রিমিয়ার ব্যাডমিন্টন লিগে সাইনার দলে বাংলার ঋতুপর্ণা দাস

৯ অক্টোবর (এ.এন.ই ): বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ক্যারোলিনা মারিন এবং ভারতীয় শাটলার পি ভি সিন্ধুকে নিয়ে সোমবার প্রিমিয়ার ব্যাডমিন্টন লিগের নিলামে ঝড় উঠল। শেষ পর্যন্ত মারিন নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি পুণে সেভেন এসেস-এ এবং সিন্ধু ফিরে এলেন পুরনো দল হায়দরাবাদ হান্টার্সে। নর্থ ইস্ট ওয়ারিয়র্স সাইনা নেহওয়ালের সঙ্গে খেলবেন বাংলার শাটলার ঋতুপর্ণা দাস। দুই আইকন শাটলার সিন্ধু আর মারিনের জন্য প্রায় চারটি ফ্র্যাঞ্চাইজি সর্বোচ্চ ৮০ লক্ষ টাকা দর হেঁকেছিল। শেষ পর্যন্ত 'ড্র অব লট' অর্থাৎ লটারির মাধ্যমে ভাগ্য নির্ধারিত হয়। গত বছর হায়দরাবাদ হান্টার্সকে চ্যাম্পিয়ন করাতে বড় অবদান ছিল মারিনের। সেই মারিন গেলেন নতুন ফ্র্যাঞ্চাইজি পুণে সেভেন এসেস-এ। মারিনকে নিলামে হারানোর আক্ষেপ হায়দরাবাদের মিটল সিন্ধুর দলে ফিরে আসায়। পাশাপাশি সাইনা নেহওয়াল গেলেন নর্থ ইস্ট ওয়ারিয়র্স দলে এবং কিদাম্বি শ্রীকান্ত বেঙ্গালুরু র‌্যাপ্টর্সে। এ ছাড়া নিলামে চমক ছিল ইন্দোনেশিয়ার টমি সুগিয়ার্তোকে নিয়ে। আইকন না হলেও তিনি ৭০ লক্ষ টাকা দর পান। দুটি ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে তুমুল লড়াইয়ের পরে দিল্লি ড্যাশার্স সুগিয়ার্তোকে তাঁর ন্যুনতম দরের প্রায় দ্বিগুণ অর্থ খরচ করে কিনল। ভারতীয় খেলোয়াড়দের মধ্যে উঠতি ডাবলস তারকা সাত্ত্বিক সাইরাজ রানকিরেড্ডির দর সবচেয়ে বেশি উঠল। তাঁকে দলে নিতে হায়দরাবাদের সঙ্গে লড়াই ছিল আহমেদাবাদ স্ম্যাশ মাস্টার্সের। শেষ পর্যন্ত আহমেদাবাদ তাঁকে কেনে ৫২ লক্ষ টাকায়। যা তাঁর ন্যুনতম দরের (১৫ লাখ) তিন গুণেরও বেশি। এদিকে ৮০ লক্ষ টাকায় নর্থ ইস্ট ওয়ারিয়র্স কিনল সাইনা নেহওয়ালকে। এই দলে রয়েছেন বাংলার শাটলার ঋতুপর্ণা দাস। হলদিয়ার মেয়ে হলেও বাংলা নয়, ঋতুপর্ণা থাকেন হায়দরাবাদে। গোপীচাঁদ একাডেমিতেই দীর্ঘদিন অনুশীলন করেন। কিছুদিন আগে পোলিশ ইন্টারন্যাশনাল টুর্নামেন্ট চাম্পিয়ন হয়েছিলেন তিনি। ২২ ডিসেম্বর থেকে মুম্বইয়ে শুরু হতে চলেছে প্রিমিয়ার ব্যাডমিন্টন লিগ। ফাইনাল ১৩ জানুয়ারি বেঙ্গালুরুতে।

09-10-2018 03:22:11 pm

মেসির দেশে ইতিহাস গড়লেন ১৫ বছর বয়সী ভারত্তোলক জেরেমি লালরিনুঙ্গা

৯ অক্টোবর (এ.এন.ই ): মেসির দেশে ইতিহাস গড়লেন ১৫ বছর বয়সী ভারত্তোলক জেরেমি লালরিনুঙ্গা। যুব অলিম্পিকে প্রথম ভারতীয় হিসেবে ব্যক্তিগত ইভেন্টে সোনা জিতে ইতিহাস গড়লেন আইজলের এই যুবক। ১৫ বছর বয়সী মিজো যুবা ৬২ কেজি বিভাগে সোনা জিতে ইতিহাস গড়েন। ঠিক এক দশক আগে ২০০৮ সালে বেজিং অলিম্পিকে প্রথম ভারতীয় হিসেবে ব্যক্তিগত সোনা জিতে ইতিহাস গড়েছিলেন শুটার অভিনব বিন্দ্রা৷ দশ বছর পর যুব অলিম্পিক থেকে দেশকে প্রথম সোনা এনে দিলেন ভারত্তোলক জেরেমি লালরিনুঙ্গা। ছেলেদের ৬২ কেজি বিভাগে সোনা জিতলেন তিনি। স্ন্যাচ ও ক্লিন অ্যান্ড জার্ক মিলিয়ে মোট ২৭৪ কেজি ভার উত্তলন করে সোনা জেতেন জেরেমি। আর্জেন্তিনার রাজধানী বুয়েনস আয়ার্সে স্ন্যাচে ১২৪ কেজি ও ক্লিন অ্যান্ড জার্কে ১৫০ কেজি ভার তোলেন লালরিনুঙ্গা। বছরের শুরুতে লালরিনুঙ্গা যুব বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে রুপো ও জুনিয়র এশিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ জেতেন। ২০১০ সাল থেকে শুরু হওয়া যুব অলিম্পিকে এই প্রথম ব্যক্তিগত ইভেন্টে সোনা জিতে ইতিহাসে নাম তুলে নিলেন আইজলের কিশোর।

09-10-2018 03:13:50 pm

যুব অলিম্পিকে রোপ্য জয় বাঙালি কন্যার

৯ অক্টোবর (এ.এন.ই ): দেবীপক্ষের শুরুতে প্রায় ইতিহাসে পৌঁছে গিয়েছিলেন এক বাঙালি কন্যা। হয়তো প্রথম ভারতীয় হিসেবে যুব অলিম্পিকে ব্যক্তিগত সোনা জয়ের নজির গড়ে ইতিহাসে নাম তুলে রাখতে পারতেন হুগলির বৈদ্যবাটির মেহুলি ঘোষ। এবারও তীরে এসে তরী ডুবল। বুয়েনস আয়ার্সে অনুষ্ঠিতযুব অলিম্পিকে সোনা হাতছাড়া করলেন বাঙালি শুটার। ১০ মিটার এয়ার রাইফেল ইভেন্টে রুপোলী মেহুলি হয়েই থাকতে হল তাঁকে। সোমবার ফাইনাল রাউন্ডে যখন তিনি শেষ শুটে যাচ্ছেন তখন, সোনা প্রায় হাতের মুঠোয়(০.৬ পয়েন্টে এগিয়ে)। বাঙালির হাত ধরে অলিম্পিকে সোনা আসবে, এই স্বপ্ন যখন সবে দানা বাঁধতে শুরু করেছে, তখনই বিপর্যয়। শেষ শুটে মাত্র ৯.১ পয়েন্ট স্কোর করে যুব অলিম্পিকে সোনা হাতছাড়া করলেন। ২৪৮ পয়েন্ট স্কোর করলেন তিনি। সোনা জিতলেন ডেনমার্কের স্টেফানি গ্রুন্ডসোয়ি (২৪৮.৭ পয়েন্ট)। ফাইনাল রাউন্ডে একটা সময় চার নম্বরে নেমে গিয়েছিলেন মেহুলি। সেখান থেকে চলে এসেছিলেন সোনা জয়ের একেবারে কাছাকাছি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পারলেন না। এশিয়ান গেমসে ভারতীয় দলে ছিলেন না মেহুলি ঘোষ। এর পরে বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে লড়াই করে হেরে যান তিনি। তার পরেই ছিল এই যুব অলিম্পিক। যেখানে পদক জয়কেই পাখির চোখ করেছিলেন কমনওয়েলথ গেমসে রুপো জয়ীর মেহুলি। অস্ট্রেলিয়ার গোল্ড কোস্টে কমনওয়েলথ গেমসেও একটুর জন্য সোনা হাতছাড়া করেছিলেন বাঙালি কন্যা। অস্ট্রেলিয়া থেকে আর্জেন্টিনা ছবিটা বদলালো না। ফাইনালের আগের রাতে একটু নার্ভাসই ছিলেন মেহুলি। ফোন করে সেই কথা কোচ জয়দীপ কর্মকারকে বলেছিলেন তিনি। শুটিং থেকে মন সরাতে জয়দীপ মহালয়া আর দেবীপক্ষের কথা বলে শুভ ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। সোনা হাতছাড়া হলেও মেহুলির জন্য গর্বিত তাঁর কোচ জয়দীপ কর্মকার। ফোনে বলছিলেন, " মহালয়ার দিন সকালে চণ্ডীপাঠ শুনে ঘুম ভেঙেছিল। রাতে এক বাঙালি মেয়ের বিশ্বজয়ে চমকে উঠলাম। এভাবেই দেবীপক্ষ শুরু। মেহুলি যা করে দেখাল তা এর আগে কেউ করেনি। মেহুলির জন্য গর্বিত।"

09-10-2018 03:08:36 pm

সার্ফিংয়ে গিয়ে ঢেউয়ের ধাক্কায় মারাত্মক চোট পেলেন ক্রিকেটার ম্যাথু হেডেন

৮ অক্টোবর (এ.এন.ই ): ছুটিতে সার্ফিংয়ে গিয়ে ঢেউয়ের ধাক্কায় মারাত্মক চোট পেলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন ওপেনার ও ধারাভাষ্যকার ম্যাথু হেডেন। কোনও রকমে প্রাণে বেঁচেছেন তিনি। ছুটিতে কুইন্সল্যান্ডের নর্থ স্ট্র্যাডব্রোক দ্বীপে ছেলে জোশের সঙ্গে সার্ফিং করছিলেন হেডেন। তখনই ঢেউয়ের দাপটে বালিতে আছড়ে পড়েন তিনি। হেডেন জানান, আরও বড় চোট হতেই পারত। কপাল জোরে বেঁচে গিয়েছেন তিনি। মাথায়, ঘাড়ে চোট লেগেছে ১০৩ টি টেস্ট খেলা অজি ওপেনারের। চিড় ধরেছে মেরুদণ্ডেও। ছিড়েছে লিগামেন্ট। রক্তাক্ত হয়েছে কপাল। ইনস্টাগ্রামে নিজের একটা ছবিও পোস্ট করেছেন হেডেন। যাতে রীতিমতো বিধ্বস্ত দেখাচ্ছে তাঁকে। হেডেন লিখেছেন, তিনি কোনওক্রমে একটা বুলেটকে এড়াতে পেরেছেন! অস্ট্রেলিয়ার এক সংবাদপত্রে হেডেন বলেছেন,"ঘণ্টাখানেক সার্ফিং করার পর এটা ঘটেছিল। আমরা অর্ধেক ডজন ঢেউ ভালই সামলেছিলাম। কিন্তু, এটা ডান দিক থেকে এসেছিল। আমি ডাক করে তলায় চলে গিয়েছিলাম। তারপর ঠিক কী হয়েছে, তা আর মনে নেই। মাথায় কাটা অবস্থায় আছড়ে পড়েছিলাম সৈকতে। নিজের ওজন ও ঢেউয়ের চাপে মাথা মচকেও গিয়েছিল। ঘাড়ের কাছে ভাঙার যেন শব্দও শুনতে পেলাম।" সঙ্গে সঙ্গে এমআরআই ও স্ক্যান হয় তাঁর। রিপোর্টে দেখা গিয়েছে চোট ভয়াবহ। ভেঙেছে অনেক জায়গায়। চিড়ও ধরেছে।

08-10-2018 04:47:26 pm


Copyright © 2012 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.