• তথাগত রায়কে অপসারণের দাবী সিপিআইএম ও কংগ্রেসের
  • আন্তর্জাতিক মৈত্রী বাস দুর্ঘটনায় হতাহত ৩
  • তেলিয়ামুড়ায় গ্যাস ভর্তি সিলিন্ডার গাড়ি উল্টে গভীর খাদে, আহত ১
  • মুম্বাইয়ে ত্রিপুরা বামফ্রন্ট সরকার এবং মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনামূলক পুস্তক প্রকাশ
  • রাজ্যে বন্যায় তিন জেলার ৮৯টি গ্রামের প্রায় ৭৬৬২টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত
  • পাপাই হত্যায় সেশন কোর্টের রায়ের বিরোধিতা করে হাইকোর্টে রাজ্য সরকার
  • পানীয় জলের বোতলে পোকা
  • চলন্ত অটো থেকে ভিন রাজ্যের চার মহিলা পকেটমার ধৃত
  • আনোয়ারা হত্যাকান্ডে সঠিক তদন্তে সিআইডি'র কাছে ছাত্র সমাজ
  • ত্রিপুরা সফরে এসে যোগ করলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়
  • ট্রাফিক পুলিশকে পেটালো একদল যুবক
  • বেতন কমিটির রিপোর্টে ভুল প্রত্যাহার দাবী ২৩টি কর্মচারী সংগঠন
  • শান্তিরবাজারে পালিত আন্তর্জাতিক যোগা দিবস
  • শাসক দলকে পাত্তা দিয়ে নারাজ এন সি দেববর্মা
  • নেতা কর্তৃক কিশোরীর সম্ভ্রম নাশঃ বিজেপি
  • বীরেন্দ্র ত্রিপুরা পাড়ায় ৪০টি পরিবার সিপিএম ছেড়ে বিজেপিতে
  • ত্রিপুরার ক্রমবর্ধমান নারী নির্যাতন নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ জাতীয় মহিলা কমিশনের
  • পার্টি অফিসে ভাঙচুর চালালো চাকরি বঞ্চিত ক্ষুব্ধ ক্যাডাররা
  • অভাবের জ্বালায় এক ব্যাক্তির আত্মহত্যা
  • কর্মচারীদের কাজের সময়সীমা বৃদ্ধি করলো ত্রিপুরা সরকার, বন্যা ত্রাণে বিশেষ কমিটি
  • ত্রিপুরার বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি, ত্রাণ শিবিরে ২ হাজার পরিবার
  • সালেমা সিডিপিও অফিসে ১৭ লক্ষ টাকা গায়েব
  • রাজধানীর আগরতলা আশপাশ সহ ত্রিপুরার বিভিন্ন এলাকায় জলপ্লাবন
  • অমরপুরে অনুষ্ঠিত যোগা বিষয়ক একদিনের আলোচনাসভা
  • নদীর বাড়ন্ত জল দেখতে গিয়ে সলিল সমাধি

স্পেশাল আর্টিকেল

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

হোলির রাতে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে সংঘর্ষের পর সাংবাদিক সন্মেলনে বিপ্লব

চিটফান্ড ইস্যুতে রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারকে তথ্য সহ বিঁধল সুদীপ

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

টপ ফাইভ

তথাগত রায়কে অপসারণের দাবী সিপিআইএম ও কংগ্রেসের

আগরতলা ২২শে জুন (এ.এন.ই ): সিপিআইএম এবং কংগ্রেস ত্রিপুরার রাজ্যপাল তথাগত রায়ের অপসারণ দাবী করেছে। উভয়দলই রাজ্যের রাজ্যপালের বিরুদ্ধে জাতি দাঙ্গায় উস্কানি দেবার অভিযোগ এনেছে। সম্প্রতি রাজ্যপাল তথাগত রায় টুইট করে শ্যামা প্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের বক্তব্য উদ্ধৃতি করে বলেছিলেন, ''একটা গৃহযুদ্ধ ছাড়া কোন দিনই হিন্দু-মুসলমান সমস্যা সমাধান হবে না।" আর এই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে রাজ্যের রাজনৈতিক মহলে জোর প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। ক্ষমতাসীন সিপিআইএম এবং কংগ্রেস উভয়ই রাজ্যপাল তথাগত রায়ের অপসারণ দাবী করেছে এবং তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থার গ্রহণের দাবী করেছেন। সিপিআইএমের রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর বলেন, রাজ্যপাল তথাগত রায় বিভিন্ন সময় বিতর্কিত মন্তব্য করেছেন। কিন্তু এখন তিনি যা বলেছেন তা যে কোন মানুষের জন্য শাস্তিযোগ্য অপরাধ। কিন্তু তিনি সাংবিধানিক পদে থেকে যে মন্তব্য করেছেন তা সংবিধানের মূলভিত্তির উপর আক্রমণ বলা যেতে পারে। তিনি আরও বলেন, অনতিবিলম্বে রাজ্যপালের পদ থেকে তথাগত রায়কে অপসারণ করতে হবে। দেশের রাষ্ট্রপতির দ্রুত এক্ষেত্রে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন। তাকে অপসারণ করে তার বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা নথিভুক্ত করা উচিৎ। অন্যদিকে প্রদেশ কংগ্রেসের মুখপাত্র প্রাক্তন বিধায়ক তাপস দে বলেছেন, সাংবিধানিক পদে থেকে রাজ্যপাল তথাগত রায়ের এ ধরনের বক্তব্য কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায়না। তিনি গৃহযুদ্ধের প্ররোচনা দিচ্ছেন। তিনি তার মতকে প্রতিষ্ঠিত করার জন্যই শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের বক্তব্যের উদ্ধৃতি দিয়েছেন। তিনি আরও বলেন, তিনি সাংবিধানিক পদে বসে আর.এস.এস এর প্রচারক হিসাবে কাজ করছেন। তিনি সম্প্রতি একটি বইও লিখেছেন। কিন্তু এই লাভজনক কাজে রাজভবনকেও ব্যবহার করেছেন। এজন্য কংগ্রেস আইনি পরামর্শ নিচ্ছে। তবে সাম্প্রতিক বক্তব্যের জন্য তথাগত রায়কে এখনোই রাজ্যপালের পদ থেকে অপসারণ করা প্রয়োজন। উল্লেখ করা যেতে পারে আরও আগেই রাজ্যপাল সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিতর্কের পর টুইট করে তার সাফাইও দিয়েছেন।

22-06-2017 06:30:07 pm

আন্তর্জাতিক মৈত্রী বাস দুর্ঘটনায় হতাহত ৩

আগরতলা ২২শে জুন (এ.এন.ই ): আগরতলা-ঢাকা-কলকাতা গামী আন্তর্জাতিক বাসের সঙ্গে বাংলাদেশের একটি সরকারী গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষে কমপক্ষে একজন নিহত এবং দুজন আহত হয়েছেন। ভারতীয় বাসের চালককে বাংলাদেশ পুলিশ গ্রেপ্তার করেছেন। ত্রিপুরা সড়ক পরিবহণ নিগমের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, আজ সকালে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক বাস মৈত্রীর সঙ্গে বাংলাদেশ সরকারের একটি গাড়ির সংঘর্ষ হয়েছে। পশ্চিমবাংলার ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত কাছাকাছি পেট্রাপোল-বেনাপোল আন্তর্জাতিক সীমান্তের কাছে এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তি বাংলাদেশ সরকারের গাড়িটির চালক ছিল। একেই সঙ্গে ঐ গাড়িতে থাকা বাংলাদেশ সরকারের দুই আধিকারিকও আহত হয়েছেন। আগরতলায় ত্রিপুরা সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, আন্তর্জাতিক যাত্রীবাহী বাস চালককে বাংলাদেশ পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে। যদিও বাসের কোন আরোহীর আঘাত লাগেনি। ত্রিপুরা সরকার ঢাকাস্থিত ভারতীয় হাইকমিশনের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছে। উল্লেখ করা যেতে পারে দ্বি-পাক্ষিক চুক্তির ভিত্তিতে ভারত ও বাংলাদেশ সরকার কলকাতা-ঢাকা, কলকাতা-ঢাকা-আগরতলা, আগরতলা -ঢাকা, আগরতলা-ঢাকা-কলকাতা এবং কলকাতা-কুমিল্লা পথে আন্তর্জাতিক বাস চলাচল করেছে। ১৯৯৯ সালে কলকাতা-ঢাকা এবং ২০০৩ সালে আগরতলা-ঢাকা বাস সার্ভিস চালু হয়।

22-06-2017 06:27:35 pm

মুম্বাইয়ে ত্রিপুরা বামফ্রন্ট সরকার এবং মুখ্যমন্ত্রীর সমালোচনামূলক পুস্তক প্রকাশ

আগরতলা ২২শে জুন (এ.এন.ই ): জাতীয় স্তরে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের স্বচ্ছ ভাবমূর্তির পরিচয় ছিল দীর্ঘ দুই দশক ধরে। আর এই জায়গায় বিজেপি এখন আঘাত হানতে শুরু করেছে। বিজেপি মানিক সরকার এবং তার পরিচালিত সরকারের যাবতীয় নেতিবাচক দিকগুলির জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক স্তরে তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কমিউনিস্ট শাসনে সাড়া দেশের অগ্রগতির সঙ্গে ছোট্ট রাজ্য ত্রিপুরার যে ফারাক তৈরি হয়েছে তার বিস্তারিত বিবরণ তুলে ধরা হয়েছে। বুধবার দেশের অর্থনৈতিক রাজধানী মুম্বাইয়ে এক অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের রাজত্বে এক দীর্ঘ বিবরণ সহ একটি পুস্তকের আবরণ উন্মোচন করা হয়। পুস্তকটির আবরণ উন্মচনের পর সুনীল দেওধর বলেন, এতো দিন সাধারণ মানুষ যে ভুল ধারনা নিয়েছিল তার সঠিক রূপ দেবার চেষ্টা শুরু হয়েছে। ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের স্বচ্ছ ভাবমূর্তি বাস্তবে কী তার জানান দেওয়া হবে। তিনি এমন মুখ্যমন্ত্রী যে রাজ্যের বাইরে গিয়ে অতি সাধারণ বুঝানোর জন্য রেলে চড়ে বসেন। আর ছোট্ট রাজ্য ত্রিপুরার ৬০ কিলোমিটার দূরে যেতে তিনি হেলিকপ্টার ব্যবহার করেন। বিজেপির তরফে এই অভিযোগ উঠার পর তিনি অবশ্য একবার রাজ্যের ভেতর রেলে চড়েছিলেন। বাম শাসনে ত্রিপুরার সাধারণ মানুষের যে ধরনের সমস্যাগুলি হচ্ছে তার পুনাঙ্গ চিত্র বইটিতে তুলে ধরা হয়েছে। বাম শাসনে গণতান্ত্রিক ব্যবস্থার কী ধরনের বিপর্যয় ঘটাতে পারে তার ক্ষুদ্র সংস্করণ এই ত্রিপুরা। তিনি আরও বলেন, রাজ্যের মানুষের দুরবস্থা সম্পর্কে দেশবাসী এখন জানতে পারবে। সুনীল দেওধর জানিয়েছেন, নারী নির্যাতনে এই রাজ্য দেশে প্রথম স্থান দখল করে আছে। বাম রাজত্বে মহিলাদের অবস্থা কী, বেকারত্বের জ্বালা কতদূর যেতে পারে এবং তাদের নিয়ে কিভাবে ছিনিমিনি খেলা হয় তার বিবরণ এই পুস্তকটিতে রয়েছে। তিনি আরও বলেন, সরকার টিকিয়ে রাখার জন্য কমিউনিস্টরা এই রাজ্যে গরিবীকে হাতিয়ার হিসাবে ব্যবহার করছে। গরিবি হঠানোর কোন কাজ এই রাজ্যে হয় না। বামেদের মূল সম্পদ এই গরিবী। তথাকথিত এই স্বচ্ছ ভাবমূর্তির লোকটি কি ধরনের লাল সন্ত্রাস চালাচ্ছেন তার জানান দেওয়া খুবই প্রয়োজন হয়ে পরেছিল। বিজেপি এই বইটির বিভিন্ন ভাষায় অনুবাদ করবে। তবে প্রথমে হিন্দি, ইংরেজি, বাংলা ও ককবরকে অনুবাদ হবে এক মাসের মধ্যে। বিজেপি ত্রিপুরার বাস্তব চিত্র নিয়ে, কী ধরনের লাল সন্ত্রাস হয়, কিভাবে হত্যা করা হয় বিরোধীদের এমনকি স্বদলীয় বিরোধীদের হত্যার ঘটনাবলী তুলে ধরে তথ্য চিত্রও বানাতে চলেছে। দেশ বিদেশে মানিক সরকারের এবং বামফ্রন্ট সরকারের মুখোশ খুলে দেওয়াই লক্ষ্য বিজেপির।

22-06-2017 03:30:16 pm

রাজ্যে বন্যায় তিন জেলার ৮৯টি গ্রামের প্রায় ৭৬৬২টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত

আগরতলা ২২শে জুন (এ.এন.ই ): সাম্প্রতিক বন্যায় রাজ্যের তিন জেলার ৮৯টি গ্রামের প্রায় ৭৬৬২টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। রাজ্য সরকারের স্টেট ইমাজেন্সি অপারেশন সেন্টার সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। যদিও এটা প্রাথমিক রিপোর্ট। বিস্তারিত রিপোর্টের জন্য সমীক্ষার কাজ চলছে। জানা গেছে, বাড়িঘরের পাশাপাশি বিস্তর ক্ষতি হয়েছে ফসল এবং রাস্তাঘাটের। কৃষি ও পূর্ত দপ্তর এখনও ক্ষতি নিরূপণের কাজ শেষ করতে পারেনি। যাদের বাড়িঘরের ক্ষতি হয়েছে তাদের অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে জেলা প্রশাসনের তরফে প্রাথমিক সহায়তা প্রদান শুরু হয়েছে। স্টেট ইমাজেন্সি অপারেশন সেন্টারের রিপোর্ট অনুযায়ী সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত সদরের আগরতলা পুর এলাকায়। পুর এলাকার ২৪টি পাড়ায় ৪৮৩৩ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ৯টি পরিবারের ঘর আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ২৯টি ত্রাণ শিবির খুলে ১৪৬ পরিবারকে আশ্রয় দেওয়া হয়েছিল। জল নেমে যাওয়ায় ২৫টি ত্রাণ শিবির বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। ৪টি শিবির এখনও খোলা রয়েছে। খোয়াইতে ৭৮৯টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ৮টি বাড়ি সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে ১৮টি বাড়ির। আংশিক ক্ষতি হয়েছে ৬০টি বাড়ির। জেলা প্রশাসন ইতিমধ্যেই ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারে ৫.৩১ লক্ষ তাকা ত্রাণ সহায়তা দিয়েছে। তেলিয়ামুড়া মহকুমায় ৮টি পারার ৮৫০টি পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ৯টি বাড়ি সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১১১টি বাড়ি। কৈলাসহর পুর পরিষদ এলাকায় ১৯টি পরিবার ত্রাণ শিবিরে আশ্রয় নিয়েছিল। এখন তারা ঘরে ফিরে গিয়েছে। জেলা প্রশাসন ৭৫ হাজার টাকা ত্রাণ সহায়তা দিয়েছে। স্টেট ইমাজেন্সি অপারেশন সেন্টারের রিপোর্ট অনুযায়ী বন্যাকবলিত নদীগুলির সবক'টিতে জল বিপদসীমার নিচে দিয়ে বইছে। কোনওরকম সতর্কবার্তা নেই। বন্যায় নিম্নাঞ্চলের একাংশ বাড়িঘরের বিস্তর ক্ষতি হলেও কৃষি ফসলের চিন্তাজনক ক্ষতি হয়নি। কৃষি অধিকর্তা ডঃ ডি পি সরকার জানান, উত্তর ও ধলাই জেলায় যারা দেরিতে রবিশস্য করেছেন তাদের কিছু ক্ষতি হয়েছে। তবের আউস ফলনের তেমন ক্ষতি হয়নি। সবজিরও বিশেষ ক্ষতি হয়নি। দপ্তর প্রাথমিক ভাবে ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণ করেছে বলে অধিকর্তা জানিয়েছেন।

22-06-2017 02:17:56 pm

পাপাই হত্যায় সেশন কোর্টের রায়ের বিরোধিতা করে হাইকোর্টে রাজ্য সরকার

আগরতলা ২২শে জুন (এ.এন.ই ): পাপাই সাহা হত্যা মামলার সেশন কোর্টের রায়ের বিরোধিতা করে হাইকোর্টে স্বচ্ছ বিচারের আপিল করেছে রাজ্য সরকার। এই আপিলের জন্য সেশন কোর্টের রায় ঘোষণার দিন থেকে নব্বই দিনের সময়সীমা নির্ধারিত থাকলেও সরকারপক্ষ সময় নিয়েছে ২৫৫ দিন। সরকারী আপিলে অবশ্য দেরির কারণ দেখিয়ে বনর্নাও দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে আপিলের কপি পৌছে গেছে মোকদ্দমায় বিবাদীপক্ষ ওমর শরিফ ওরফে সোয়েব মিয়াঁর কাছে। আগামী ৫ই জুলাই সোয়েব মিয়াঁর আইনজীবীদের বক্তব্য শুনবে আদালত। গত ১৬ মে হাইকোর্টে হলফনামা দিয়ে সেশন কোর্টের রায়ের বিরোধিতা করে স্বচ্ছ বিচারের জন্য আবেদন দায়ের করে রাজ্য সরকার। সরকারের পক্ষে আবেদন করে রাজ্য স্বরাষ্ট্র দপ্তরের সহসচিব অরূপ দেব। দেরির কারণ হিসাবে আবেদনপত্রে উল্লেখ করা হয় যে, পাপাই সাহা হত্যা মামলায় সেশন কোর্ট ২০১৬ সালের ১৮ মে অভিযুক্ত ওমর শরিফ ওরফে সোয়েব মিয়াঁকে ভারতীয় দন্ডবিধির ৩০২/৩২৬ এবং অস্ত্র আইনের ২৭(১) ধারায় অভিযোগ থেকে নির্দোষ হিসাবে রায় দেয়। রায়ের সার্টিফাইড কপি সরকারপক্ষ হাতে পায় ২০১৬ সালের ২১ জুন। এরপর মতামত গ্রহনের জন্য সরকারের বিভিন্ন অফিস ঘুরে হাইকোর্টের পাবলিক প্রসিকিঊটরের অফিসে কপি পৌঁছতে সময় লাগে ১৪০ দিন। অথাৎ ২০১৬ সালের ৭ নভেম্বর পি পির অফিসে কপি পৌঁছয়। প্রসঙ্গত ২০১১ সালের ১১ জুলাই রাজধানী আগরতলায় এক ভয়াভহ অশান্তির দিনে তপ্ত বুলেটের আঘাতে মৃত্যু হয় পাপাই সাহার। তার বড় ভাই পিনাকী সাহা নিজেকে প্রত্যক্ষদর্শী দাবী করে এই হত্যাকান্ডের জন্য টি এস আর জওয়ানকে দায়ী করে পশ্চিম থানার এফ আই আর দায়ের করে। পড়ে তদন্তভার বর্তায় সি আই ডি শাখায়। সি আই ডি তদন্তক্রমে এই হত্যাকান্ডে সোয়েব মিয়াঁকে দায়ী করে আদালতে চার্জশিট দেয়। কিন্তু সেশন কোর্ট সি আই ডির এই তত্ত্ব খারিজ করে দিয়ে সোয়েবকে বেকসুর খালাস হিসাবে রায় দেয়। এই রায়ের বিরোধিতা করে সরকারপক্ষ এবার হাইকোর্টের দ্বারস্ত হয়েছে। আগামী ৫ জুলাই হাইকোর্টে এর শুনানি হবে।

22-06-2017 01:18:40 pm

ট্রাফিক পুলিশকে পেটালো একদল যুবক

আগরতলা ২১শে জুন (এ.এন.ই ): মঙ্গলবার সন্ধ্যা রাতে পিস্তল, ভোজালির হাতল আর হেলমেট দিয়ে পুলিশ কনস্টেবলকে পিটিয়েছে একদল যুবক। রাজধানীর উত্তরগেট এলাকায় ট্রাফিক পয়েন্টের কাছ থেকে কনস্টেবল বিশ্বজিৎ দাসকে টেনে হিঁচড়ে গণধোলাই দিতে দিতে নিয়ে যায় তারা। শেষ পর্যন্ত সংজ্ঞাহীন অবস্থায় তাকে নর্দমায় ফেলে উধাও হয়ে যায় অস্ত্রকারবারিদের এই দলটি। নর্দমা থেকে তুলে তাকে জিবি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। হাসপাতালের খবর, বিশ্বজিতের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এইদিকে পূর্বথানা সূত্রে জানা গেছে এই ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ট্রাফিক পুলিশের বক্তব্য, মঙ্গলবার সন্ধ্যা রাতে উত্তরগেটে ট্রাফিকের ডিএসপি রাহুল দাসের নেতৃত্বে বাইকের কাগজপত্র পরীক্ষা করা হচ্ছিল। এমন সময় সাজরা দেববর্মা নামে এক যুবক বাইক নিয়ে দ্রুত ছুটতে চাইলে ট্রাফিক কনস্টেবল বিশ্বজিৎ দাস তাকে আটক করেন। তার কাগজপত্র দেখতে চাওয়ায় যে ট্রাফিক পুলিশকে অশ্রাব্য গালিগালাজ শুরু করে। বাধ্য হয়ে নেশাগ্রস্ত এই যুবককে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তখন সে পুলিশের সাথে যেতে অস্বীকার করে নিজের মোবাইল থেকে বেশ কয়েকটি ফোন করে। মুহূর্তের মধ্যে সাত/আটজন উপজাতি যুবক মোটরসাইকেল নিয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে বুঝতে পেরে ডিএসপি রাহুল দাস এই যুবককে নিয়ে পূর্ব থানায় চলে যান। সাজরা দেববর্মাকে নিয়ে যাওয়ার পর ট্রাফিক পুলিশরাও বাইক চেকিং শেষ করে যে যার মতো নিজেদের ইউনিটের দিকে রওয়ানা দেন। একা হয়ে যান বিশ্বজিৎ দাস। তখনই সেই সাত/আট জন যুবক বিশ্বজিতের উপর চড়াও হয়। কিল, চর, লাথি থেকে শুরু করে হেলমেট, পিস্তল সব ব্যবহার করা হয় বিশ্বজিতের মাথায়। একসময় মারের চোটে সংজ্ঞাহীন হয়ে যাওয়ায় বিশ্বজিৎকে ড্রেনে ফেলে রেখে পালায় যুবকদের দলটি। পুলিশ জানিয়েছে, সিসি টিভি ফুটেজ ইত্যাদি বের করে অভিযুক্তদের খোঁজে বের করার চেষ্টা হবে। সাজরা দেববর্মাকে গ্রেপ্তার করে পূর্ব থানায় রাখা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞেসাবাদ করে অন্যান্য অভিযুক্তদের নাম বের করার চেষ্টা করছে পুলিশ।

21-06-2017 06:48:25 pm

গৃহযুদ্ধ ছাড়া কোনও দিনই হিন্দু-মুসলিম সমস্যার সমাধান হবে নাঃ তথাগত রায়

আগরতলা ২১শে জুন (এ.এন.ই ): বারবারই বিতর্ককে সঙ্গে নিয়ে চলেন ত্রিপুরার রাজ্যপাল। যিনি অবলীলায় নিজেকে আর এস এস সদস্য হিসাবে পরিচয় দিয়ে গর্ব বোধ করেন। সদম্ভেই বলেন, ''যা বিশ্বাস করি তাই বলি''। বিজেপি তথা সাবেক জনসংঘের প্রতিষ্ঠাতা শ্যামাপ্রাসাদ মুখার্জির উদ্ধৃতি দিয়ে এবার নতুন বিতর্ক যোগ করলেন তিনি। এমন এক সময় তিনি এই বিতর্ককে উস্কে দিলেন, যখন গরু নিয়ে গোঁটা দেশ উত্তাল। একদিকে প্রকাশ্যে গরু বিক্রি সহ কেন্দ্র সরকারের গরু কেন্দ্রিক নানা বিধি নিষেধ, অন্যদিকে গো-শালা স্থাপন। রাজ্যপাল তথাগত রায় বললেন, "একটা গৃহযুদ্ধ ছাড়া কোনও দিনই হিন্দু-মুসলিম সমস্যার সমাধান হবে না।" রাজ্যপালের এই টুইটের পরেই দেশ জুড়ে বিতর্ক শুরু হয়। ত্রিপুরার রাজ্যপাল গৃহযুদ্ধকে সমর্থন করছেন কিনা এ নিয়েও ঝড় শুরু হয়ে যায়। এরপর অবশ্য সাফাই দিতেও কসুর করেননি তিনি। বলেন, আমি শুধু ভারতকেশরীকে উদ্ধৃত করেছে, সমর্থন করিনি। তিনি আরও বলেন, ১৯৪৬ সালে যে উক্তি ডাইরির পাতায় লিখে রেখে গিয়েছিলেন শ্যামা প্রসাদ মুখার্জি সেই উক্তিটি শুধু বলেছি। কিন্তু এতেও থামানো যায়[নি বিতর্ক। অনেকেই পাল্টা টুইট করে রাজ্যপাল পদে তার পদত্যাগ সহ গ্রেপ্তারের দাবীও তোলেন। তথাগত রায় জানান, অনেকেই বলছেন আমি নাকি গৃহযুদ্ধকে সমর্থন করছি। আদতে তা নয়। আমি গৃহযুদ্ধকে সমর্থন করছি না। শুধু শ্যামা প্রসাদ মুখার্জির বক্তব্যকে উদ্ধৃতি করেছি মাত্র। তবে রাজ্যপাল যাই ব্যাখ্যা দিন চলতি রাজনৈতিক ডামাডোলে ইচ্ছাকৃতভাবেই রাজ্যপাল তথাগত রায় এ জাতীয় মন্তব্য করেছেন বলের অভিযোগ উঠে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অভিমত-রাজ্যপাল পদটি সম্পূর্ণ সাংবিধানিক পদ হলেও সম্পূর্ণ রাজনৈতিক ব্যক্তিদেরই এই পদে পুনর্বাসন দেওয়া হয়। রাজ্যপাল যেভাবে আরএসএসের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠতার কথা বলেন রাজ্যপালের মতো সাংবিধানিক পদের ক্ষেত্রে বেমানান। রাজ্যের রাজ্যপাল যেভাবে প্রথাগত সমস্ত নিয়ম ভেঙ্গে দেখছেন এবং প্রকাশ্যেই রাজনৈতিক বক্তব্য রাখছেন তা গণতন্ত্রের পক্ষে বিপজ্জনক বলেই রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের অভিমত।

21-06-2017 03:32:28 pm

বেতন কমিটির রিপোর্টে ভুল প্রত্যাহার দাবী ২৩টি কর্মচারী সংগঠন

আগরতলা ২১শে জুন (এ.এন.ই ): রাজ্য সরকার কর্তৃক গঠিত পে অ্যান্ড পেনশন রিভিশন কমিটির ভুল রিপোর্ট অবিলম্বে প্রত্যাহার করে রাজ্যের শিক্ষক কর্মচারী ও পেনশনাদের সপ্তম পে কমিশনের সুপারিশ মোতাবেক আর্থিক সুবিধা প্রদানের দাবী জানিয়েছে তেইশটি কর্মচারী সংগঠন। এ ব্যাপারে বিস্তারিত উল্লেখ করে রাজ্যের মুখ্যসচিবের কাছেও চিঠি দেওয়া হয়েছে। কর্মচারী নেতারা বলেন, রাজ্য সরকার কর্তৃক গঠিত পে অ্যান্ড পেনশন রিভিশন কমিটি যে রিপোর্ট পেশ করেছে সেই রিপোর্টের ২৬ নম্বর পাতায় জ্যামিতিক ভুল আছে। সে কারণে রাজ্য সরকারের ঘোষিত সর্বনিম্ন বেতনভাতা ১৪,০৪০ টাকা হয়েছে। যা হওয়ার কথা ১৫,২৪০ টাকা। সবগুলি পে কমিশনই মানুষের নূন্যতম চাহিদার তালিকার উপর নির্ভর করে নূন্যতম বেতনভাতা ঠিক করে। মানুষের নূন্যতম চাহিদার তালিকায় যে মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে রাজ্য সরকার সেটাই কমিয়ে দিয়েছে। যেমন সপ্তম পে কমিশন একজন মানুষের মাসে সারে পাঁচ মিটার কাপড় লাগে বলে নির্ধারণ করেছে। প্রতিমিটার কাপড়ের মূল্য ধরেছে ১৬৪ টাকা ৮৮ পয়সা। ফলে মাসে ৯০৬ টাকা ৮৪ পয়সার কাপড় লাগবে। এমন প্রতিটি ক্ষেত্রই মূল্য নির্ধারণ করে নূন্যতম বেতন নির্ধারণ করেছে। কিন্তু রাজ্য সরকার নূন্যতম চাহিদার তালিকায় উল্লেখিত মূল্য অর্ধেকের চেয়ে কম ধরে নূন্যতম বেতনভাতা নির্ধারণ করেছে। সপ্তম পে কমিশনের সুপারিশ ১ জানুয়ারি ২০১৬ থেকে তা কার্যকর করা হয়েছে। কিন্তু রাজ্য সরকার ১ এপ্রিল ২০১৭ থেকে কার্যকর করা কথা ঘোষণা করেছে। কিন্তু এই এক বছরে রাজ্য কর্মচারীদের একটি ইনক্রিমেন্ট (তিন শতাংশ) পাবার কথা সেই ইনক্রিমেন্ট কি হবে কিছুই উল্লেখ নেই। রাজ্য সরকার রাজ্যের শিক্ষক কর্মচারীদের চরম বঞ্চিত করেছে বলে তেইশটি সংগঠনের পক্ষ থেকে দাবী করা হয়েছে এবং তা প্রত্যাহারের দাবীও তারা করেছেন।

21-06-2017 02:21:41 pm

বারামুল্লায় এনকাউন্টারে খতম দুই হিজবুল জঙ্গি, উদ্ধার প্রচুর আগ্নেয়াস্ত্র

শ্রীনগর, ২১ জুন (এ.এন.ই ): উত্তর কাশ্মীরের বারামুল্লা জেলায় সেনাবাহিনীর সঙ্গে এনকাউন্টারে খতম হল দুই হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি। নিহত দুই হিজবুল জঙ্গির নাম হল বসিত আহমেদ মীর এবং গুলজার আহমেদ। উচ্চপদস্থ এক পুলিশ কর্তা জানিয়েছেন, গোপন সূত্রে খবর পাওয়া যায় বারামুল্লা জেলার সোপোরে টাউনশিপের রফিয়াবাদ গ্রামের একটি বাড়িতে লুকিয়ে রয়েছে বেশ কয়েকজন জঙ্গি। গোপন সূত্রে পাওয়া খৱরের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাতে ওই এলাকায় তল্লাশি অভিযান চালায় নিরাপত্তা বাহিনী। রাতের অন্ধকারে দীর্ঘক্ষণ তল্লাশি অভিযান চালানোর পর মধ্যরাতে তল্লাশি অভিযান বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বুধবার সকালে পুনরায় তল্লাশি অভিযান শুরু হলে হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গিদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর গুলির লড়াই শুরু হয়। দীর্ঘক্ষণ এনকাউন্টারে খতম হয়েছে দুই হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি। ওই এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে উদ্ধার করা হয়েছে দু'টি একে-৪৭ রাইফেল, পাঁচটি একে ম্যাগাজিন, ১২৪ একে রাউন্ড, একটি হ্যান্ড গ্রেনেড এবং একটি পাউচ। আরও সন্ত্রাসবাদী ওই এলাকায় লুকিয়ে রয়েছে কিনা, তার জন্য তল্লাশি চালায় নিরাপত্তা বাহিনী।

21-06-2017 02:13:26 pm

বিশ্বকে এক সুতোয় বেঁধেছে যোগাভ্যাস, আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে বার্তা প্রধানমন্ত্রীর

লখনউ, ২১ জুন (এ.এন.ই ): গোটা ৱিশ্বকে এক সুতোয় বাঁধতে বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে যোগাভ্যাস। ২১ জুন, বুধবার তৃতীয় বিশ্ব যোগ দিবসে এই বার্তাই দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। প্রস্তুতি শুরু হয়েছিল আগেই, বুধবার সকাল ৬.৩০ মিনিট নাগাদ লখনউয়ের রামবাই আম্বেদকর ময়দানে শুরু হয় আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের অনুষ্ঠান। প্রবল বৃষ্টির মধ্যেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে যোগাভ্যাসে অংশ নেন প্রায় ৪৫ হাজার সাধারণ মানুষ। কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের পাশাপাশি উপস্থিত ছিলেন উত্তর প্রদেশের রাজ্যপাল রাম নায়েক, উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, উত্তর প্রদেশের উপ-মুখ্যমন্ত্রী কেশৱপ্রসাদ মৌর্য্য, দীনেশ শর্মা সহ অন্যান্যরা। প্রচণ্ড পরিমাণে বৃষ্টির দাপটে ময়দান পুরোপুরি ভিজে গিয়েছিল। ভেজা মাঠেই সাদা টি-শার্ট ও সাদা ঢিলেঢালা প্যান্ট করে যোগাসন করেন প্রধানমন্ত্রী-সহ অন্যান্য মন্ত্রীরা। তবে পরিচিত গেরুয়া বসনেই উপস্থিত ছিলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। যোগ দিবসে যোগ দিতে বুধবার সকালেই লখনউ পৌঁছে যান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রামবাই আম্বেদকর সভাস্থলে যোগকে জীবনের একটি অঙ্গ করে নেওয়ার আহ্বাণ জানিয়ে উপস্থিত সকলের উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, `এমন অনেক দেশ আছে যারা আমাদের ভাষা, ঐতিহ্য, সংস্কৃতির সম্পর্কে কিছুই জানে না। তবে তারা এখন যোগের মাধ্যমে ভারতকে চিনছে। দেহ, মন ও আত্মার সংযোগ ঘটানোর পাশাপাশি যোগাভ্যাস গোটা বিশ্বকে এক সুতোয় বাঁধতে বড় ভূমিকা পালন করছে।' বুধবার সকালে আহমেদাবাদে যোগগুরু রামদেবের সঙ্গে যোগাভ্যাস করে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। এনডিএ-র রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী রামনাথ কোবিন্দ দিল্লির রাস্তায় যোগ দিবস পালন করেন। ভারত-তিব্বত সীমান্তে প্রায় ১৮ হাজার ফুট উচ্চতায় মাইনাস ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় যোগা দিবস পালন করে আইটিবিপি জওয়ানরা। আইএনএস বিক্রমাদিত্যেও যোগ উত্সব পালিত হয়। শুধু ভারতই নয়, গোটা বিশ্বের মোট ১৮০টি দেশে পালিত হয়েছে আন্তর্জাতিক যোগ দিবস। উল্লেখ্য, দ্বিতীয় আন্তর্জাতিক যোগ দিবস পালন করতে গত বছর চণ্ডীগড়ে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

21-06-2017 02:08:28 pm

ত্রিপুরার ক্রমবর্ধমান নারী নির্যাতন নিয়ে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ জাতীয় মহিলা কমিশনের

আগরতলা ২০শে জুন (এ.এন.ই ): ত্রিপুরাতে ক্রমাগত মহিলা নির্যাতন বাড়ছে বলে অভিযোগ করেছেন জাতীয় মহিলা কমিশনের সদস্যা সুষমা শাহু। নারী নির্যাতন সংক্রান্ত ত্রিপুরার বিভিন্ন বিষয়ের তিনি বিস্তারিত খোঁজ খবর নিয়েছেন। দুদিনের রাজ্য সফরে এসে জাতীয় মহিলা কমিশনের তিন সদস্যের প্রতিনিধি দলের নেত্রী সুষমা শাহু রাজ্য ত্যাগের আগে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ত্রিপুরার সরকার এবং প্রশাসন অপরাধীদের বাঁচানোর চেষ্টা করছে। তিনি বলেন, পুলিশ নিপীড়িতদের অভিযোগ নিতে চায়না। আর তারা দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে চায়না। ত্রিপুরায় অদ্ভুত পরিস্থিতি বিরাজ করছে। সুষমা শাহু বলেন, এতো অভিযোগ জমা পরার কারণ সম্পর্কে পুলিশ সুপারকে জিজ্ঞেসা করলে তিনি সচেতনতা কথা বলেন। কিন্তু সচেতন সমাজে এধরনের ঘটনা ঘটারেই কথা নয়। ত্রিপুরার জনসংখ্যার অর্ধেক নিপীড়নের শিকার। আর অত্যাচারের ঘটনার পেছনে প্রতিটি ক্ষেত্রেই শাসক দলের ক্যাডাররা যুক্ত। তাই সরকার ও প্রশাসন তাদের বাঁচানোর চেষ্টা করছে। তিনি আরও জানান, তিনি আগামী কিছু দিনের মধ্যে আবার রাজ্যে ফিরে আসবেন এবং বিভিন্ন ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখবেন।

20-06-2017 06:28:06 pm

কর্মচারীদের কাজের সময়সীমা বৃদ্ধি করলো ত্রিপুরা সরকার, বন্যা ত্রাণে বিশেষ কমিটি

আগরতলা ২০শে জুন (এ.এন.ই ): রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের কাজের সময়সীমা বৃদ্ধি করা হয়েছে। অন্যদিকে রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে মন্ত্রী ও আধিকারিকদের একটি বিশেষ টিম গঠন করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাজ্য মন্ত্রীসভায় এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠক শেষে রাজ্যের মন্ত্রী ভানুলাল সাহা সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, কর্মচারীদের বর্ধিত বেতনক্রম ঘোষণার সময়ই রাজ্য সরকার কর্মচারীদের জন্য প্রতিমাসে ছুটি একদিন বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছিল। মাসের দ্বিতীয় শনিবার ছাড়াও চতুর্থ শনিবারও ছুটির দিন ঘোষণা করা হয়েছে। 'এই অবস্থায় রাজ্য মন্ত্রীসভা আজ কর্মচারীদের কাজের সময় আধঘণ্টা বাড়িয়ে দিয়েছে। ফলে এখন থেকে অফিসের কাজের সময় সকাল ১০টা থেকে ৫.৩০টা হচ্ছে । মন্ত্রী ভানুলাল সাহা জানান, রাজ্য মন্ত্রীসভা রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখেছে। দুর্গতদের সহয়তার জন্য এবং ক্ষয়ক্ষতি বিশ্লেষণ করে দেখার জন্য মন্ত্রী ও আধিকারিকদের নিয়ে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই কমিটিতে ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী এবং সংশ্লিষ্ট দপ্তরের প্রধান সচিবরা রয়েছেন। উল্লেখ করা যেতে পারে গত মন্ত্রীসভার বৈঠকেই কর্মচারীদের বেতনভাতার বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। যদিও বেতনভাতার হার নিয়ে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন মহলে অসন্তোষ সৃষ্টি হয়েছে।

20-06-2017 03:11:16 pm

ত্রিপুরার বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি, ত্রাণ শিবিরে ২ হাজার পরিবার

আগরতলা ২০শে জুন (এ.এন.ই ): গতকাল রাত থেকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত বৃষ্টিপাত না হওয়ায় ত্রিপুরার বন্যা পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। যদিও প্রায় ২ হাজার গৃহহীন পরিবারকে শরণার্থী শিবিরে স্থান দেওয়া হয়েছে। ত্রিপুরা ত্রাণ ও পুনর্বাসন দপ্তরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, রাজধানীর আগরতলার আশপাশের বেশ কিছু এলাকা বিশেষ করে হাওড়া নদীর উভয়পারে, জিরানিয়া, মোহনপুর, খোয়াই, তেলিয়ামুড়ার বিস্তীর্ণ নিম্নাচল এখনো জলমগ্ন রয়েছে। এই সব এলাকার দুর্গতদের জন্য ৫০টি ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। গত রবিবার থেকে টানা বৃষ্টিপাত শুরু হয় একেই সঙ্গে রাজ্যের বিভিন্ন ছোট বড় নদীর নাব্যতা হ্রাস পেয়ে যাওয়ায় বিভিন্ন নতুন এলাকা প্লাবিত হয়েছে। আসাম-আগরতলা জাতীয় সড়ক বহু স্থানে জলের নিচে চলে গেছে। যদিও আজ সকাল থেকে অনেক ক্ষেত্রেই জলের স্তর হ্রাস পেয়েছে। জেলা প্রশাসন থেকে দুর্গতদের উদ্ধারের জন্য ন্যাশানেল ডিজাস্টার রেসপন্স ফোর্স (এন.ডি.আর.এফ) এবং ত্রিপুরার সেইট রাইফেলস জওয়ানদের দুর্গতদের উদ্ধার কাজে লাগানো হয়েছে। হাওড়া এবং খোয়াই নদীর জলের স্তর নামলেও এখনো বিপদসীমার উপর দিয়ে বইছে। সোমবার রাতেই মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার বন্যা পরিস্থিতির মোকাবেলায় গৃহীত পদক্ষেপ সম্পর্কে রাজ্য সচিবালয়ে এক উচ্চপর্যায়ে বৈঠক করেন। ত্রাণকার্যে সরজমিনে খতিয়ে দেখতে জেলা শাসকের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এদিকে আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, রাজ্যে আরো বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে মাঝারি থেকে ভারী বর্ষণের আশঙ্খা প্রকাশ করেছেন ম্যাট্রলোজিকেল দপ্তরের অধিকর্তা দীপক সাহা। জুন মাসে এখন পর্যন্ত ৬৯৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। যদিও এসময়ের মধ্যে সাধারণত ৪২১ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়ে থাকে।

20-06-2017 03:08:50 pm

ত্রিপুরা বিজেপির সভাপতিকে সিপিআইএম এর তীব্র আক্রমণ

আগরতলা ১৯ই জুন (এ.এন.ই ): রাজ্যের বিরোধীদল বিজেপির বিরুদ্ধে সিপিআইএম আক্রমণ আরও তীব্র করেছে। সিপিআইএম এর রাজ্য কমিটির মুখ পাত্র গৌতম দাস বিজেপির রাজ্য সভাপতি বিপ্লব দেবকে পলিটিকেল আপস্টার্ট বলেছেন। নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে রাজ্য রাজনীতিতে ব্যক্তি আক্রমণ আরও তীব্র হচ্ছে। আইপিএফটি'র জাতীয় সড়ক ও রেল অবরোধের ডাক'কে কেন্দ্র করে সিপিএমের সাম্প্রতিক অভিযোগকে ঘিরে বিজেপি এবং আইপিএফটি যে জবাব দিয়েছে তার প্রত্যুত্তর দিতেই সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর বলেন, বিজেপি এবং আইপিএফটি উভয় দলের প্রতিক্রিয়াই আসছে। কিন্তু বিজেপি'র সভাপতি বিপ্লব দেব যে সব ভ্রান্ত তথ্যের উত্থাপন করে সিপিএমের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহিতার অভিযোগ তুলেছেন তা আপত্তিজনক। বিজেপি'র চালিকা শক্তি আরএসএস'র দ্বিতীয় সরসংঘ চালক এমএস গোলগালকার দেশের স্বাধীনতার বিরোধিতা করেছিলেন। স্বাধীনতা আন্দোলনে না গিয়ে স্বয়ংসেবকদের ঐক্যবদ্ধ করার কথা বলেছিলেন। সাভারকার পরে ব্রিটিশের বিরোধিতা ছেড়ে দিয়ে হিন্দু সংগঠনে জড়িয়ে পড়েন। এমনকি আরএসএসের প্রতিষ্ঠাতা কেশব বলিরাম হেডগোয়ার ১৯৩০ সালের সত্যাগ্রহ এবং তেরঙ্গা বয়কটের ডাক দিয়েছিলেন। তাদের একমাত্র লক্ষ্য ছিল হিন্দুরাষ্ট্র। অটল বিহারী বাজপেয়ী ভারত ছাড় আন্দোলনে ধরা পড়ে ইংরেজের রাজসাক্ষী হয়েছিলেন। এদের লক্ষ্য বরাবরই হিন্দুরাষ্ট্র। আর বামেদের লক্ষ্য সমাজতন্ত্র। তিনি বলেন, আইপিএফটি নেতা এস সি দেববর্মা রক্ষণাত্মক ভঙ্গিতে বলেছেন একটি পথ বন্ধ হলে কিছু হয় না। আরও অনেক পথ খোলা থাকছে। এতে প্রমাণিত হয় রাজ্যের উন্নতি হয়েছে, উপজাতি এলাকার উন্নয়নও হয়েছে। বিজন ধর বলেন, এন সি দেববর্মার বক্তব্যে স্পষ্ট তিনি পেছন থেকে কারোর দ্বারা পরিচালিত হয়ে, বাধ্য হয়ে এই আন্দোলনে ডাক দিয়েছেন। আগে এনএলএফটি পেছনে থেকে তাকে পরিচালনা করতো। তাই এডিসি'তে মুখ্য কার্যনির্বাহী ;সদস্য কাকে করা হবে এনিয়ে তিনি ব্যস্ত থাকতেন। আকাশবাণী আগরতলায় চাকরি করার সময় তিনি তার গাড়ি নিয়ে বৈরী ডেরার চলে যেতেন। বিজন ধর আরও বলেন, আগে পেছনে এনএলএফটি থাকলেও এখন এন সি দেববর্মাদের পেছনে বিজেপি রয়েছে বলেই তারা মনে করেন। অন্যথায় এ ধরনের আন্দোলন হতো না। এ আগে নাগরিকত্ব আইন নিয়ে তারা প্রচণ্ড বিরোধ দেখিয়েছিলেন। কিন্তু দিল্লী গিয়ে এসব ভুলে গেলেন। দ্বিজাতি তত্ত্বের ভিত্তিতে এ আইন হতে পারে না। কিন্তু এখন এন সি দেববর্মা এ নিয়ে কোন কথা বলেন না। কারণ এর পেছনে বিজেপিই আছে। তিনি বলেন, অশ্বমেধের ঘোড়া লব কুশ আটকে ছিল বলে উল্লেখ করেন বিপ্লব দেবও। আর এ রাজ্যে বামেরাই হবে লব কুশ। যারা আগ্রাসী, পুঁজিবাদী, সাম্রাজ্যবাদীদের আটকে দেবে। এর পরেই সিপিএমের রাজ্য মুখপাত্র গৌতম দাস বলেন, বিজেপি'র রাজ্য সভাপতি পলিটিকেল আপস্টার্ট। ত্রিপুরার কিছুই জানে না। তাই বলতে চাইছে পৃথক রাজ্যের দাবী আইপিএফটি কেন করলো। রাজনীতির কোন অভিজ্ঞতা নেই। ত্রিপুরা সম্পর্কে জানে না। উপর থেকে এনে বসিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাই তার এ ধরনের বক্তব্য। আর তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে, তার বিবৃতি যে সাক্ষর করে সেই অশোক সিনহা। যে আগে কংগ্রেসে এ কাজ করতো। এ সমস্ত পচা মাল সেখানে গিয়ে জমেছে। এন সি দেববর্মাদের আন্দোলনের পেছনে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে ষড়যন্ত্র রয়েছে। অস্থিরতা সৃষ্টির চেষ্টা চলছে। এস সি দেববর্মার সঙ্গেও এনএলএফটি'র সম্পর্ক রয়েছে।

19-06-2017 03:20:44 pm

ব্যয় সঙ্কোচে ত্রিপুরা সরকারের বহুমুখী পদক্ষেপ

আগরতলা ১৮ই জুন (এ.এন.ই ): কর্মচারীদের বেতনভাতা বৃদ্ধির পর ব্যয় সঙ্কোচে মনদিয়েছে রাজ্য সরকার। নানা ভাবে ইতিপূর্বে রাজ্যের কোষাগার থেকে যে ভাবে অর্থ বেরিয়ে যেত তা ঠেকানোর জন্য রাজ্য অর্থ দপ্তর থেকে বেশ কিছু নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। রাজ্য অর্থদপ্তর থেকে বিভিন্ন দপ্তরের কাছে ইতিমধ্যেই ব্যয় সঙ্কোচে কিছু নিদিষ্ট নিয়মনীতি মেনে চলতে সার্কুলার পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। রাজ্য প্রশাসনের এক শীর্ষস্থানীয় আধিকারিক জানিয়েছেন, আগামী কয়েক বছর রাজ্যের আর্থিক অবস্থার হাল না ফেরা পর্যন্ত দপ্তর গুলিতে গাড়ি না কেনার জন্য বলা হয়েছে। এমনকি দপ্তর গুলির জন্য গাড়ি ভাড়া নেবার ক্ষেত্রেও নিয়ন্ত্রণ চালু করার কথা বলা হয়েছে। সূত্রটি আর জানিয়েছে, দপ্তরগুলি এখন থেকে যথেচ্ছ ভাবে আর অনিয়মিত কর্মচারী নিয়োগ করতে পারবেনা। এজন্য অর্থদপ্তরের অনুমোদন নেওয়া বাধ্যতামূলক হচ্ছে। দপ্তর প্রধানদের এই নির্দেশিকা অক্ষরে অক্ষরে পালন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এইসব বিষয় থেকে বিচ্যুতি ঘটলে আধিকারিকদের বিরুদ্ধে শাস্তি মূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হতে পারে। একেই সঙ্গে রাজ্য সরকার রাজস্ব বৃদ্ধির উপরেও গুরুত্ব দিচ্ছে। কর বহির্ভূত আয় এবং বিভিন্ন ধরনের করের হার পরিবর্তন পরিবর্ধন ও রাজস্ব আদায়ে গতি আনার বিষয়গুলি খতিয়ে দেখার জন্য একটি কমিটি গঠন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য অর্থদপ্তর। একেই সঙ্গে লোকসানে চলা বিভিন্ন অধিগৃহীত সংস্থা গুলির প্রাথিস্টানিক ব্যায় সঙ্কোচের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে। কর্মী স্বল্পতা বিভিন্ন সরকারী দপ্তর থেকে কর্মচারী এনে মিটিয়ে নেবার নির্দেশ আর আগেই দেওয়া হয়েছিল। রাজ্য অর্থদপ্তর এখন রাজ্যের আইন দপ্তরকেও ব্যয় সঙ্কোচের জন্য ফর্মুলা দিয়ে দিয়েছে। সরকারের বিভিন্ন মামলায় কোষাগার থেকে প্রচুর পরিমাণ অর্থ বেড়িয়ে যাচ্ছে। রাজ্য সরকারের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট কিনা তা আগাম খতিয়ে দেখেই বিভিন্ন দপ্তর কে মামলার জন্য এগুতে বলা হয়েছে। মামলা গুলিতে আইনজীবী নির্বাচনেও এখন থেকে যথেষ্ট কড়াকড়ি থাকবে। রাজ্যের বামফ্রন্ট সরকার ক্যাশলেস ব্যবস্থা বিরোধিতা করলেও রাজ্য প্রশাসন এই বিষয়টিকেই প্রাধান্য দিচ্ছে। আর এর মাধ্যমে রাজ্য সরকারের রাজস্ব বৃদ্ধি পাবে বলেও মনে করা হচ্ছে।

18-06-2017 02:19:42 pm

ত্রিপুরায় সন্দেহজনক প্লাস্টিক চাল, উদ্বেগ ছড়াচ্ছে

আগরতলা ১৮ই জুন (এ.এন.ই ): প্লাস্টিকের ডিমের পর প্লাস্টিকের চালের সন্ধানের খবরে গোঁটা রাজ্যে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। শনিবার প্লাস্টিকের চালের সন্ধান মিলে ধলাইয়ের মনুঘাট এলাকায়। সন্দেহজনক ভাবে ৬ বস্তা চালও আটক করে মহকুমা প্রশাসন। কীভাবে কোথা থেকে সন্দেহজনক প্লাস্টিকের চাল আসছে তার হদিশ বের করতে চেষ্টা করছে প্রশাসন। জানা গেছে, চিনির সঙ্গে প্লাস্টিকের টুকরোর মিশ্রণের খবরও এসেছে প্রশাসনে। বিষয়গুলি পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, মনু ব্লকে চলা অডিট টিমের ছয় সদস্য শনিবার মনুঘাটে সুকুমার সরকারের হোটেলে ভাত খেতে যান। সাধারণ মানুষও ভাত খাচ্ছিলেন। ভাত চুইংগামের মতো বাউন্স করার ভাত নিয়ে গ্রাহকদের সন্দেহ হয়। ভাত না খেয়ে ঘটনাটি ব্লক প্রশাসনে জানান। জানানো হয় মহকুমা প্রশাসনেও। আধিকারিকরা এসে ভাতের গন্ধ শুঁকেন। ভাতে প্লাস্টিকের গন্ধ পান। হোটেল মালিককে জিজ্ঞাসাবাদ করে প্রশাসনের আধিকারিকরা জানতে পারেন তিনি স্থানীয় পদু সাহার দোকান থেকে চাল কিনেছেন। পদু সাহার দোকানে গিয়ে সন্দেহজনক ছয় বস্তা চাল আটক করেন আধিকারিকরা। খাদ্য দপ্তরের অফিসাররা ভাত ও চাল সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ধর্মনগর ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়। সোমবারের মধ্যে রিপোর্ট পাওয়া যাবে। এইদিকে শনিবার ছামনু থেকে থালছড়া যাওয়ার পথে সন্দেহভাজন ৮২ বস্তা চাল পুলিশ আটক করেছে।

18-06-2017 02:15:35 pm

আইপিএফটির সঙ্গে সখ্যতা, সিপিএম এর অভিযোগের জবাব দিল বিজেপি

আগরতলা ১৭ই জুন (এ.এন.ই ): আইপিএফটি'র সঙ্গে বিজেপিকে জুড়ে দিয়ে জঙ্গি সংগঠন এনএলএফটি'র সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের যে চেষ্টা সিপিএম করেছে তার বিরুদ্ধে বিজেপির রাজ্য সভাপতি শুক্রবার তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন। আইপিএফটি'র যে কোন গণতান্ত্রিক আন্দোলনের অধিকার রয়েছে বলে উল্লেখ করা হলেও বিজেপি পৃথক রাজ্যের দাবী নাকচ করে দিয়েছে। সম্প্রতি সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক বিজন ধরের বক্তব্যকে ঘিরে রাজনৈতিক মহলে তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। নির্বাচনের পূর্বে সিপিএম আবার বৈরী ইস্যু উস্কে দিয়ে নতুন তথ্যও উপস্থাপন করেছে। জবাবে শুক্রবার এক সাংবাদিক সম্মেলনে বিজেপি রাজ্য সভাপতি বিপ্লব কুমার দেব বলেন, সিপিএম দেশদ্রোহী এবং হিংসার উপর ভিত্তি করে রাজনীতি করে। দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীরা বিভিন্ন সময় জনমতকে বিভ্রান্ত করার জন্য বিভিন্ন সময় অপ্রাসঙ্গিক এবং মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে থাকে। আইপিএফটিকে জুড়ে দিয়ে সিপিএম-বিজেপি সম্পর্কের যে অভিযোগ করেছে সে প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি বিপ্লব দেব বলেন, আইপিএফটি একটি রাজনৈতিক দল। সংবিধানের অধীনে থেকে যে 'কোন দাবী জানানোর অধিকার তাদের রয়েছে। গণতান্ত্রিক আন্দোলনেও তাদের অধিকার রয়েছে। দীর্ঘ দুই যুগ ধরে এই রাজ্যে সিপিএম ক্ষমতায় আছে। তাদের একনায়কতন্ত্রী মনোভাব, উপজাতি জনগোষ্ঠীর প্রতি অবিচার এবং তাদেরকে পিছে ফেলে রাখার চেষ্টায় পরিপ্রেক্ষিতে তাদের মধ্যে অনেকের পৃথক হবার মনোভাব তৈরি হয়েছে। তিনি বলেন, বিজেপি জাতীয়তাবাদী দল। তাই ''সবকা সাথ সবকা বিকাশ'র কথা বলে। এই রাজ্যে বিজেপি ক্ষমতায় এলে উপজাতিদের বিকাশের পথে গতি আসবে। পৃথক রাজ্যের দাবীর কোন প্রশ্নই আসবে না। আইপিএফটি'র আন্দোলন সামলানোর দায়িত্ব বিজেপির নয়। এই দায়িত্ব বামফ্রন্ট সরকারকে নিতে হবে। তিনি জানান, বিশ্ব যোগা দিবস উপলক্ষে আগামী ২০জুন কেন্দ্রের দুই মন্ত্রী ত্রিপুরায় আসছেন। এরা হলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ফগন সিং কোলাস্তে এবং বাবুল সুপ্রিয়। তারা শহরের দুটি যোগা শিবিরে উপস্থিত থাকবেন। পড়ে পার্টির কার্যক্রমে যোগ দিবেন। অন্যদিকে আসামের অর্থমন্ত্রী হেমন্ত বিশ্বশর্মা ২২ জুন দু'দিনের সফরে আগরতলায় আসছেন। তিনি বিজেপি'র রাজ্য কার্যালয়ে শ্যামাপ্রসাদ মুখার্জির বলিদান দিবস উপলক্ষে ২৩ জুন একটি 'সভায় সভাপতিত্ব করবেন। তিনি জানান, মহিলা নির্যাতনের বিষয়ে রাজ্য থেকে বহু অভিযোগ জাতীয় মহিলা কমিশনে গেছে। জাতীয় মহিলা কমিশনও এই বিষয়ে খুব উদ্বিগ্ন। ১৯ শে জুন মহিলা কমিশনের একটি তিন সদস্যের প্রতিনিধি দল সুষমা শাহুর নেতৃত্বে রাজ্যে আসছেন। তারা রাজ্যের নারী নির্যাতনের ঘটনাগুলি খতিয়ে দেখে একটি রিপোর্ট তৈরি করবেন বলেও বিপ্লব দেব জানিয়েছেন।

17-06-2017 05:53:06 pm


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.