• রাজনৈতিক সংঘর্ষে নিহত ত্রিপুরার যুবা সাংবাদিক
  • ত্রিপুরায় রাজনৈতিক সংঘর্ষে চরমে, সাংবাদিককে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা
  • চরম অশান্তির পরিবেশ, রাজনৈতিক সংঘর্ষ
  • আবার রাজনৈতিক সংঘর্ষের সম্ভাবনা, অবরুদ্ধ পথ
  • ত্রিপুরা ও পশ্চিমবঙ্গে ভোটের স্বার্থে রাজনৈতিক দলগুলি সহায়তা করছে রোহিঙ্গাদের
  • বঞ্চনার প্রতিবাদে ফের আন্দোলনের হুমকি সর্বশিক্ষার শিক্ষকদের
  • রোহিঙ্গা নির্যাতন ইস্যুতে রাজ্যপালের ডেপুটেশন জমিয়তের
  • বিদ্যুৎতের ছোবলে মৃত ১ যুবক
  • মাতাবাড়ি বিধানসভা কেন্দ্রে পদ্ম জোয়ার, ২০৪ ভোটার বিজেপিতে যোগদান
  • এক সত্তরোর্ধ বৃদ্ধার যৌন লালসার শিকার নাবালিকা মেয়ে
  • বিজেপিকে আক্রমণ করতে গিয়ে আরএসএসের দিকে তোপ দাগলেন মানিক সরকার
  • এইচএসসিএলের বিরুদ্ধে সিবিআই তদন্তের দাবি ত্রিপুরা সরকারের
  • বিজেপির ঘরেই ছেঁদ, নিয়োগ-প্রক্রিয়া বন্ধ হয়নি
  • আগরতলা সহ ত্রিপুরার বিভিন্ন মহকুমা সদরে আরএসএসএর পথ সঞ্চালন
  • পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় দুইজনের মৃত্যু
  • সুপ্রিমকোর্টের আদেশমূলে রাজ্যেও ফ্যামিলি ওয়েলফেয়ার কমিটি
  • স্থান করতে গিয়ে তলিয়ে গেল এক ব্যক্তি
  • আজ মহালয়া, পিতৃ তর্পণ
  • চাকরির গ্যাঁড়াকলে ফেঁসে গিয়ে পরিস্থিতি জটিল করছে বামেরা
  • খোয়াই ও চম্পকনগরে ব্যাপক রাজনীতি সংঘর্ষ, আহত বহু
  • আবার রাজনৈতিক সংঘর্ষ, আহত বিজেপি বিধায়ক সুদীপ রায় বর্মণ
  • সরকারের বিরুদ্ধে আদালতের মামলাকারীর জীবন সংশয়
  • স্মার্টসিটি থেকে নীল তিমির আতঙ্ক এখন মফস্বলে
  • নিয়মিত করণের দাবিতে অনিয়মিত স্বাস্থ্যকর্মীদের আন্দোলন প্রত্যাহার
  • শ্রীনগরে বৃদ্ধার অস্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে ব্যাপক রহস্য অভিযোগ ছেলের বিরুদ্ধে

স্পেশাল আর্টিকেল

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

হোলির রাতে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে সংঘর্ষের পর সাংবাদিক সন্মেলনে বিপ্লব

চিটফান্ড ইস্যুতে রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারকে তথ্য সহ বিঁধল সুদীপ

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

টপ ফাইভ

00310
রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের বর্ধিত বেতনক্রম ঘোষিত

আগরতলা ১৩ই জুন (এ.এন.ই ): ত্রিপুরা সরকার তার কর্মচারী এবং পেশনাদের বেতনভাতার নূতন বর্ধিত ক্রমের ঘোষণা দিয়েছে। রাজ্য মন্ত্রীসভার বৈঠকে পে-এন্ড পেনশন রিভিশন কমিটির প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়েছে। কমিটির প্রস্তাবিত বিভিন্ন বিষয়ে মন্ত্রীসভা বিশেষ কোন পরিবর্তন না করেই রা কার্যকর করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। রাজ্যমন্ত্রী সভার বৈঠক শেষে রাজ্যের অর্থমন্ত্রী ভানুলাল সাহা সাংবাদিকদের বর্ধিত বেতনক্রমের প্রস্তাব কার্যকর করার মন্ত্রীসভার সিদ্ধান্তের কথা জানান। তিনি বলেন, রাজ্যে প্রায় আড়াইলক্ষ নিয়মিত, অনিয়মিত এবং পেনশনার রয়েছেন। কেন্দ্রীয় সরকারের দেওয়া সপ্তম বেতন কমিশনের হুবুহু কার্যকর করা সম্ভব না হলেও পে-ম্যাট্রিক পদ্ধতি গ্রহণ করে বেতনভাতার বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। কর্মচারী ও পেনশনাদের বেতনভাতা ১৯.৬৮ শতাংশ হারে বৃদ্ধি পাবে। ফলে রাজ্য সরকারের ১৭-১৮ অর্থবছরে ১১৮৯ কোটি টাকা অতিরিক্ত ব্যয় হবে। তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মচারীদের তুলনায় রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধির হার অনেকটাই বেশী। যদিও তাদের বেতনভাতা আগে থেকেই বেশী ছিল। তবে রাজ্য সরকার যে নতুন বেতনক্রমের ঘোষণা দিয়েছে সেই অনুযায়ী গ্রুপ-ডি কর্মচারীদের কমপক্ষে ৪০০০ টাকা, গ্রুপ-সি দের ৫,৫০০ টাকা, গ্রুপ-বি ৯,৫০০ টাকা এবং গ্রুপ-এ কর্মচারীদের বেতনভাতা কমপক্ষে ১৫,০০০ টাকা বৃদ্ধি পাবে। অনুরূপ হারে স্থির বেতনে নিযুক্ত কর্মচারীদের বেতনভাতা ও বাড়বে। ২.২৫ হারে ফিটম্যান্ট ফ্যাক্টর দেওয়া হয়েছে। তিনি আরো জানান, রাজ্য সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এখন থেকে রাজ্যের অফিস আদালতগুলি দ্বিতীয় শনিবার ছাড়াও চতুর্থ শনিবার ও বন্ধ থাকবে। একেই সঙ্গে রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের বকেয়া মহার্ঘভাতা এই বর্ধিত বেতনের সঙ্গে যুক্ত করে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফলে এখন আর কর্মচারীদের কোন পাওনা মহার্ঘভাতা থাকছে না। রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের এতদিন ৩৭ শতাংশ মহার্ঘভাতা পাওনা ছিল। তিনি জানান, অঙ্গনয়ারী কর্মী এবং পাম্প অপারেটারের বেতনভাতা ও ৪০০ থেকে ৫৫০ টাকা পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। রাজ্যে এখন নূন্যতম পেনশন হবে ৭,০২০ টাকা, সর্বাধিক পেনশন হচ্ছে প্রায় ১লক্ষ ৩৭ হাজার টাকা। তিনি জানান, নতুন বেতনক্রম অনুযায়ী রাজ্য সরকারের কর্মচারী ও পেনশনাররা যা পাবেন তা মোটামুটি ভাবে কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মচারীদের প্রায় কাছাকাছি। খুব বেশী ফারাক এখন আর থাকছে না। অতিরিক্ত ব্যয়ভার বহনের জন্য রাজ্য সরকার কাজের দিন একদিন কমিয়ে এনেছে এবং জি.এস.টি কার্যকর হওয়ার ফলে অতিরিক্ত আয়ের সম্ভাবনা ও রয়েছে।


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.