BREAKING NEWS
রাজ্যে ভোট ১৮ই ফেব্রুয়ারি। গণনা ৩ মার্চ


  • নির্বাচন ঘোষণা অভূতপূর্ব চ্যালেঞ্জের মুখে দারিয়ে বাম নেতৃত্ব
  • সিপিআইএম থেকে বেরিয়েই বিস্ফোরক মন্তব্য নৃপেন সঙ্গী
  • ভুয়ো ভোটার নিয়ে পুনরায় নির্বাচন কমিশনে যাবে বিজেপি
  • রাজ্যে ভোট ১৮ই ফেব্রুয়ারি। গণনা ৩ মার্চ
  • http://www.agartalanewsexpress.com/news/topfive/get.php?id=1663
  • আইপিএফটির সঙ্গে জোট নিয়ে চূড়ান্ত আলোচনা গুয়াহাটিতে বৃহস্পতিবার
  • নির্বাচন ঘোষনার দিন বিজয় প্রতিজ্ঞা দিবস পালন বিজেপি
  • ত্রিপুরায় অনুসুচিত জাতি আইনের প্রয়োগ নিয়ে রাজ্য সরকারের স্পষ্টীকরণ
  • ত্রিপুরায় কৃষক আত্মহত্যার ঘটনা গোপন রাখার চেষ্টা
  • রাজ্যে দুটি পৃথক ঘটনায় মৃত ১, আহত ১
  • সরকারি উদ্যোগে তপশিলি জাতি অংশের উপর অত্যাচারের ঘটনা লোকানোর চেষ্টা
  • পলিট ব্যুরোর সদস্যরাই ত্রিপুরায় বিধানসভা নির্বাচনে সিপিআইএমের তারকা প্রচারক
  • তেলিয়ামুড়ার সিআইটিইউ পার্টি অফিসে অগ্নিসংযোগ
  • ভি ভি পেট নিয়ে পোলিং স্টেশনে স্টেশনে ভোটারদের নয়ে চলছে ভোটদানের মোহরা তেলিয়ামুড়ায়।
  • টেট উত্তীর্ণদের বিষয়ে নমনীয় সরকার, ১০,৩২৩ নিয়ে বিপাকে
  • চিটফান্ড ইস্যুতে ত্রিপুরায় ধেয়ে আসছে সিবিআই
  • রাজ্যে আবার বিজেপি কর্মী খুন, ধৃত অভিযুক্ত
  • ত্রিপুরায় কেন্দ্রীয় প্রকল্প বাস্তবায়নে রাজ্য সরকার উদাসিনঃ কেন্দ্রীয় রাষ্ট্রমন্ত্রী
  • ইজরাইল ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারকে সিপিআইএমের আক্রমণ
  • রাজনাথ সিং এর সঙ্গে অজিত দোভাল এবং কৃষ্ণ গোপালজির বৈঠক ঘিরে সিপিআইএমের তীব্র প্রতিক্রিয়া
  • ৪০ মাদ্রাসা শিক্ষকের বকেয়া টাকা মেটাচ্ছেন বিজেপির সভাপতি
  • সর্বোচ্চ আদালতের বিচারপতির সাংবাদিক সম্মেলনে কারোর মুখ না খোলাই শ্রেয় বললেন বার কাউন্সিল অফ ত্রিপুরার চেয়ারম্যান
  • রাজধানী আগরতলা থেকে প্রকাশ্যে টাকা ছিনতাই
  • নির্বাচনী কাজে দায়িত্ব প্রাপ্তদের মধ্যে ব্যাপক রদবদলের এবং দায়িত্ব চ্যুতির সম্ভাবনা
  • ভুয়ো ভোটার নিয়ে তৎপর নির্বাচন কমিশন

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

টপ ফাইভ

00310
কর্মচারীদের বঞ্চিত করতে অভূত ফর্মুলা নিয়েছে বামফ্রন্ট সরকারঃ বিজেপি

আগরতলা ১৬ই জুন (এ.এন.ই ): রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের জন্য বর্ধিত বেতনক্রম নিয়ে বিজেপি বুধবার রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ তুললো। দলের মুখপাত্র ডাঃ অশোক সিনহা বিষয়টিকে বামফ্রন্ট সরকারের ধাপ্পাবাজির এক নতুন সংস্করণ বলে উল্লেখ করেছেন। বিজেপি'র মুখপাত্র ডাঃ অশোক সিনহা বলেছেন, কেন্দ্রীয় সরকার সপ্তম বেতন কমিশন দেবার পর সিপিআইএমের সর্বভারতীয় নেতারা প্রচণ্ড সমালোচনা 'করেছিলেন। তখন তাদের মনে হয়েছিল ওই বেতনক্রম খুবই কম মাত্র ১৪ শতাংশ হারে বেতন বৃদ্ধি হওয়াটা সে দিন তাদের কাছে বেমানান ছিল এবং কর্মচারীদের প্রতি দরদ উথলে উঠার ভান করেছিল। কিন্তু ত্রিপুরার বামফ্রন্ট সরকার গত মঙ্গলবার ত্রিপুরার কর্মচারীদের জন্য যে ধরনের ঘোষণা দিলো তা নিন্দার ভাষা রাখে না। তিনি বলেন, রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের বেতনক্রম ১ শতাংশও বৃদ্ধি করা হয়নি। যেখানে দাঁড়িয়ে ছিলেন কর্মচারীরা ঠিক সেখানেই তারা রয়ে গেছেন। রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের প্রকৃতপক্ষে বেতন ভাতা শূন্য শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সিপিএমের এই গোলক ধাঁধা বুঝতে কর্মচারীদের যদিও কিছুটা সময় লেগেছে। বিজেপি'র প্রদেশ কার্যালয়ে ডাঃ অশোক সিনহা বলেন, ত্রিপুরার কর্মচারীদের সঙ্গে যে ধরনের প্রতারণা করা হয়েছে তাও একটি বিরলতম ঘটনা। ত্রিপুরার কর্মচারীদের ৩৭ শতাংশ মহার্ঘ্যভাতা বাকি ছিল\। কেন্দ্রীয় সরকার এই অর্থ বকেয়া রাখেনি। কেন্দ্রীয় সরকার নিয়মিত রাজ্যকে এই অর্থ দিয়ে গেছে। বিজেপি'র সংশ্লিষ্ট বিষয়ে অভিজ্ঞরা বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করেছেন। সে অনুযায়ী দেখা গেছে কর্মচারীদের মাইনে বাবদ কেন্দ্রীয় সরকারের দেওয়া অর্থের মধ্যে ১২০০ কোটি অব্যায়িত ছিল। ৩৭ শতাংশ মহার্ঘভাতার টাকা দিল্লী থেকে এনে তা জমিয়ে রাখ হয়েছিল। দীর্ঘদিনের জমানো এই টাকার সুদ কি পরিমাণে হতে পারে তা অনেকেই বুঝে গেছেন। ডাঃ অশোক সিনহা বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই বিজেপি কেন্দ্রীয় বেতনক্রমের জন্য রাজ্য সরকারের উপর চাপ দিয়ে আসছিল। কিন্তু পে এন্ড পেনশন রিভিশন কমিটির নামে রাজ্য সরকার প্রতারণার ছক কষছিল। আমলাদের সঙ্গে বিস্তর হিসাব নিকাশ করে রাজ্য সরকার ঠিক যত টাকা মহার্ঘভাতা পাওনা ছিল কর্মচারীরা সেই টাকাটাই দিয়ে বামফ্রন্ট সরকার ১৯ শতাংশ বেতনভাতা বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করে দেয়। তিনি বলেন, বামপন্থী কর্মচারী সংগঠনের নেতারা এসব ধাপ্পাবাজি বুঝতে পারছেন না এমনটা নয়। তাদের কাছেও সবই স্পষ্ট। এখন তারা নানা কারণে সিপিআইএমের বেড়াজাল থেকে বের হতে পারছেন না। কিন্তু সকলেই অসন্তুষ্ট। বামেদের দ্বিচারিতা চিরাচরিত বিষয়। কেন্দ্রের বেতনক্রমকে সিপিআইএমের কেন্দ্রীয় নেতারা খুবই কম হয়েছে বললেও এ রাজ্যের বিষয়ে, এ রাজ্যের কর্মচারীদের জন্য তারা মুখ খুলেন না। বিজেপি সরকার ক্ষমতায় এলে প্রথম ক্যাবিনেটেই সপ্তম বেতন কমিশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে পার্টির সর্বভারতীয় সভাপতি আগেই জানিয়ে দিয়েছেন। পার্টি এই 'সিদ্ধান্তে অনড় রয়েছে।


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.