• প্রতাপগড় বিধানসভা কেন্দ্রে ব্যাপক রাজনৈতিক সংঘর্ষ
  • এডিসি স্কুলগুলিতে মিড-ডে-মিল চালাতে নাভিশ্বাস শিক্ষকদের
  • দেহ ব্যবসা ও নেশার ঠেক থেকে এক পাণ্ডা সহ দুই খদ্দের ও দুই ছিনতাইবাজ গ্রেপ্তার
  • সরকারের বঞ্চনার শিকারে দ্বিধা বিভক্ত রেগা কর্মচারীরা
  • রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে কর্মী তালিকা বানাতে বেকাদায় এসপি'রা
  • সদরের পর ভোটার তালিকার জালিয়াতির অভিযোগ উঠল জিরানিয়ায়
  • ৭০ বছরের এক বৃদ্ধার লালসায় শিকার নাবালিকা
  • রেললাইনের পাশ থেকে অজ্ঞাত যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার
  • বিশালগড়ে এক ব্যবসায়ীকে লক্ষ্য করে গুলি, তদন্তে পুলিশ
  • বাইখোরা এলাকায় গণধর্ষণের শিকার নাবালিকা মামলা নিয়ে পুলিশের গড়িমসি
  • ডাল কেলেঙ্কারি টেন্ডার ছাড়াই ৫০ কোটি টাকার ক্রয় বাণিজ্য
  • মদ বিরোধী অভিযানে পুলিশ ও জনগণের মধ্যে খণ্ডযুদ্ধ, উত্তপ্ত ড্রপগেইট এলাকা
  • রাজ্যের সাংবাদিকদের নতুন এক্রিডিটেশন পলিসি গঠনের সুপারিশ
  • আইজিএম হাসপাতাল চত্বরে নেশা সামগ্রী সহ ধৃত এক যুবক
  • ডিসিএম'র বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি
  • বিতর্কিত নাগরাজ ফের ডিজি?
  • পানীয় জলের দাবিতে আমবাসা-গণ্ডাছড়া সড়ক অবরোধ
  • ভোটার তালিকায় ভুয়ো প্রমাণপত্র দিয়ে নাম তোলার চেষ্টা অভিযোগ মহকুমা প্রশাসনের
  • দীর্ঘ ১৭ বছর পর ঘরে ফিরল নিলুবধূ
  • ২৫শে নভেম্বরের মধ্যে চালু হওয়ার সম্ভাবনা রাধানগরের দ্বিতীয় সেতুটি, ভোটের আগে উদ্বোধন অনিশ্চিত উড়াল পুলের
  • আগরতলায় কৃষক জমায়েতের ডাক দিয়েছে বিজেপি
  • এটিটিএফ সুপ্রিমোর গ্রেপ্তার ঘিরে গভীর ষড়যন্ত্রের অভিযোগ বিজেপি'র
  • চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে যুক্ত থাকার অভিযোগে মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের গ্রেপ্তার চেয়ে সিবিআইএর কাছে বিজেপি'র চিঠি
  • এটিটিএফ সুপ্রিমোর গ্রেপ্তার ঘিরে গভীর ষড়যন্ত্রের অভিযোগ বিজেপি'র
  • চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে যুক্ত থাকার অভিযোগে মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের গ্রেপ্তার চেয়ে সিবিআইএর কাছে বিজেপি'র চিঠি

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

টপ ফাইভ

00310
কর্মচারীদের বঞ্চিত করতে অভূত ফর্মুলা নিয়েছে বামফ্রন্ট সরকারঃ বিজেপি

আগরতলা ১৬ই জুন (এ.এন.ই ): রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের জন্য বর্ধিত বেতনক্রম নিয়ে বিজেপি বুধবার রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ তুললো। দলের মুখপাত্র ডাঃ অশোক সিনহা বিষয়টিকে বামফ্রন্ট সরকারের ধাপ্পাবাজির এক নতুন সংস্করণ বলে উল্লেখ করেছেন। বিজেপি'র মুখপাত্র ডাঃ অশোক সিনহা বলেছেন, কেন্দ্রীয় সরকার সপ্তম বেতন কমিশন দেবার পর সিপিআইএমের সর্বভারতীয় নেতারা প্রচণ্ড সমালোচনা 'করেছিলেন। তখন তাদের মনে হয়েছিল ওই বেতনক্রম খুবই কম মাত্র ১৪ শতাংশ হারে বেতন বৃদ্ধি হওয়াটা সে দিন তাদের কাছে বেমানান ছিল এবং কর্মচারীদের প্রতি দরদ উথলে উঠার ভান করেছিল। কিন্তু ত্রিপুরার বামফ্রন্ট সরকার গত মঙ্গলবার ত্রিপুরার কর্মচারীদের জন্য যে ধরনের ঘোষণা দিলো তা নিন্দার ভাষা রাখে না। তিনি বলেন, রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের বেতনক্রম ১ শতাংশও বৃদ্ধি করা হয়নি। যেখানে দাঁড়িয়ে ছিলেন কর্মচারীরা ঠিক সেখানেই তারা রয়ে গেছেন। রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের প্রকৃতপক্ষে বেতন ভাতা শূন্য শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। সিপিএমের এই গোলক ধাঁধা বুঝতে কর্মচারীদের যদিও কিছুটা সময় লেগেছে। বিজেপি'র প্রদেশ কার্যালয়ে ডাঃ অশোক সিনহা বলেন, ত্রিপুরার কর্মচারীদের সঙ্গে যে ধরনের প্রতারণা করা হয়েছে তাও একটি বিরলতম ঘটনা। ত্রিপুরার কর্মচারীদের ৩৭ শতাংশ মহার্ঘ্যভাতা বাকি ছিল\। কেন্দ্রীয় সরকার এই অর্থ বকেয়া রাখেনি। কেন্দ্রীয় সরকার নিয়মিত রাজ্যকে এই অর্থ দিয়ে গেছে। বিজেপি'র সংশ্লিষ্ট বিষয়ে অভিজ্ঞরা বিস্তারিত তথ্য সংগ্রহ করেছেন। সে অনুযায়ী দেখা গেছে কর্মচারীদের মাইনে বাবদ কেন্দ্রীয় সরকারের দেওয়া অর্থের মধ্যে ১২০০ কোটি অব্যায়িত ছিল। ৩৭ শতাংশ মহার্ঘভাতার টাকা দিল্লী থেকে এনে তা জমিয়ে রাখ হয়েছিল। দীর্ঘদিনের জমানো এই টাকার সুদ কি পরিমাণে হতে পারে তা অনেকেই বুঝে গেছেন। ডাঃ অশোক সিনহা বলেন, দীর্ঘদিন ধরেই বিজেপি কেন্দ্রীয় বেতনক্রমের জন্য রাজ্য সরকারের উপর চাপ দিয়ে আসছিল। কিন্তু পে এন্ড পেনশন রিভিশন কমিটির নামে রাজ্য সরকার প্রতারণার ছক কষছিল। আমলাদের সঙ্গে বিস্তর হিসাব নিকাশ করে রাজ্য সরকার ঠিক যত টাকা মহার্ঘভাতা পাওনা ছিল কর্মচারীরা সেই টাকাটাই দিয়ে বামফ্রন্ট সরকার ১৯ শতাংশ বেতনভাতা বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করে দেয়। তিনি বলেন, বামপন্থী কর্মচারী সংগঠনের নেতারা এসব ধাপ্পাবাজি বুঝতে পারছেন না এমনটা নয়। তাদের কাছেও সবই স্পষ্ট। এখন তারা নানা কারণে সিপিআইএমের বেড়াজাল থেকে বের হতে পারছেন না। কিন্তু সকলেই অসন্তুষ্ট। বামেদের দ্বিচারিতা চিরাচরিত বিষয়। কেন্দ্রের বেতনক্রমকে সিপিআইএমের কেন্দ্রীয় নেতারা খুবই কম হয়েছে বললেও এ রাজ্যের বিষয়ে, এ রাজ্যের কর্মচারীদের জন্য তারা মুখ খুলেন না। বিজেপি সরকার ক্ষমতায় এলে প্রথম ক্যাবিনেটেই সপ্তম বেতন কমিশন দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে পার্টির সর্বভারতীয় সভাপতি আগেই জানিয়ে দিয়েছেন। পার্টি এই 'সিদ্ধান্তে অনড় রয়েছে।


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.