Maintenance
We are upgrading our server . We apologize for the inconvenience

  • ত্রিপুরায় গভীর সংকটে তৃনমূল কংগ্রেস, উপনির্বাচনের দুই প্রার্থী বিজেপিতে সামিল
  • আনোয়ারা ইস্যুতে পুলিশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের অভিযোগ
  • ত্রিপুরায় তৃনমূল কংগ্রেস কে গ্রাস করে নিচ্ছে বিজেপি
  • মেডিক্যাল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়ার ডাক্তারদের জেনেরিক ওষুধ লেখার নির্দেশ জারি
  • মেডিক্যাল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়ার ডাক্তারদের জেনেরিক ওষুধ লেখার নির্দেশ জারি
  • ত্রিপুরা ধর্মনগরে বিজেপির গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক শুরু
  • ২৮শে মে ত্রিপুরা বন্ধের ডাকে ত্রিপুরা প্রদেশ যুব কংগ্রেস ও এন.এস.ইউ.আই এর পদযাত্রা
  • ত্রিপুরা মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুললো বিজেপি
  • সারা দেশের সাথে রাজ্যেও ১লা মে নিষিদ্ধ হচ্ছে মন্ত্রীদের গাড়িতে লালবাতি, খুশি আমজনতা
  • প্রধানমন্ত্রী বিরুদ্ধেই উষ্মা জাহির ত্রিপুরা জমিয়ত উলামা হিন্দের
  • রেলে কাঁটা পরে এক যুবকের মৃত্যু
  • কালবৈশাখীর ঝড়ে বিধ্বস্ত কল্যাণপুর
  • ত্রিপুরার ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে আরো দুটি সীমান্ত হাটের প্রস্তাব অনুমোদিত
  • আনোয়ারা মৃত্যুর সুষ্ঠু তদন্ত এবং প্রকৃত রহস্য উন্মোচনের দাবিতে ছাত্র আন্দোলন, বিক্ষোভ অব্যাহত
  • দীর্ঘ ৭মাস পর অলকের দেহ বিলোনিয়ার বাড়িতে ফিরল
  • স্বামীর চিকিৎসার স্বার্থে শিশু সন্তান বিক্রী
  • রাজ্য সরকারের দীর্ঘ বঞ্চনায় আন্দোলনে নামলো ত্রিপুরা রাবার শ্রমিক
  • নাবালিকার বিয়ে আটকে দিয়ে দিল প্রশাসন
  • লক্ষাধিক টাকা সহ ধৃত পুলিশ কনস্টেবল
  • ত্রিপুরা সহ উত্তরপূর্বাঞ্চলকে সর্বাধিক প্রাধান্য দিচ্ছে বিজেপির সর্বভারতীয় নেতৃত্ব
  • ভাষণ বিতর্কের জবাবে ত্রিপুরার বিজেপির সভাপতি পার্টিতে স্বাগত জানালেন মানিক, বিজন, গোতমবাবুদের
  • চা-বাগানের লক আউট, অনাহারের সন্মুখিন পরিবারসহ শ্রমিকরা
  • অমরপুরে যুবতী অপহরণ, তদন্তে পুলিশ
  • চিটফান্ড ইস্যুতে এবার ত্রিপুরায় পথে নামছে বিজেপি
  • বুধবার ত্রিপুরা সফরে আসছেন রূপা গাঙ্গুলী

স্পেশাল আর্টিকেল

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

হোলির রাতে তৃণমূল কংগ্রেস এবং বিজেপির মধ্যে সংঘর্ষের পর সাংবাদিক সন্মেলনে বিপ্লব

চিটফান্ড ইস্যুতে রাজ্য ও কেন্দ্র সরকারকে তথ্য সহ বিঁধল সুদীপ

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

ত্রিপুরা খবর

পরিত্যাক্ত অবস্থায় নবজাতক শিশু উদ্ধার

আগরতলা ২৬শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): বুধবার আগরতলা সরকারী মেডিক্যাল কলেজ চত্বরে এক সদ্যজাত শিশু কে পরিত্যাক্ত অবস্থায় পরে থাকতে দেখে এলাকায় চাঞ্চল্য দেখা দেয়। তবে পুলিশ এখনো এই শিশুর মাতা পিতার সন্ধান পায়নি। সকালে আচমকাই একটি দাঁড়িয়ে থাকার অটোর পেছনের আসনে কাপর দিয়ে জরানো একটি শিশুর কান্নায় এলাকায় ভিড় জমে যায়। অটোর চালক পাশেই একটি চায়ের দোকানে দাঁড়িয়ে ছিলেন। সবার চোখের আড়ালে শিশুটিকে রেখে উধাও হয়ে যায় বলে অভিযোগ। স্থানীয় জনগণ থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে শিশুটি কে উদ্ধার করে হাসপাতালের শিশু বিভাগে পাঠায়। এখনো শিশুটির মা বাবার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। পুলিশ জানিয়েছেন শিশু খোয়া গেছে বলে কেউ অভিযোগ দায়ের করেনি।

26-04-2017 07:35:47 pm

কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন ডঃ অশোক সিনহা

আগরতলা ২৬শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): রাজ্যের বিশিষ্ট চিকিৎসক তথা দীর্ঘ দিনের প্রদেশ কংগ্রেস প্রবক্তা ডঃ অশোক সিনহা আজ আনুষ্ঠানিক ভাবে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। বিজেপি প্রদেশ কার্যালয়ে এক সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠানে ডঃ অশোক সিনহা কে পার্টিতে বরন করে নেয় বিজেপির সর্ব ভারতীয় সম্পাদক তথা ত্রিপুরার রাজ্য প্রভারী সুলিল দেওধর। বুধবার বিকালে বিজেপির প্রদেশ কার্যালয়ে এক সংক্ষিপ্ত অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। পরে সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে পার্টির রাজ্য প্রভারি সুনীল দেওধর ডঃ অশোক সিনহা কে পার্টিতে বরন করে নেন। গতকাল অশোক সিনহা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি বিরজিৎ সিনহার কাছে পদত্যাগ পত্র পাঠিয়ে দেন। কংগ্রেস থেকে পদত্যাগের পর তিনি সাংবাদিকদের জানিয়েছেন তিনি বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। ডঃ অশোক সিনহা বলেন রাজ্যে দুর্নীতি গ্রস্ত সিপিএম সরকার কে একমাত্র বিজেপিই ঠেকাতে পারবে। তিনি সকলের কাছে আহ্বান করেন আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে নতুন সরকার গঠনের জন্য সকলেই বিজেপিকে সমর্থন করে। তিনি এও জানান তিনি নিঃস্বার্থ ভাবে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। ডঃ অশোক সিনহা রাজধানী আগরতলার একজন বিশিষ্ট চিকিৎসক হিসাবে পরিচিত। সেনাবাহিনীর চাকরি থেকে অবসর গ্রহণের পর তিনি বিভিন্ন সময় প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষ ভাবে রাজনৈতিক সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ২০১১ সাল থেকে তিনি প্রদেশ কংগ্রেস মুখপাত্রের দায়িত্বে ছিলেন।

26-04-2017 07:33:38 pm

বজ্রাঘাতে এক ব্যক্তির মৃত্যু

শান্তিরবাজার (নিজেস্ব প্রতিনিধি) ২৬শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): বজ্রাঘাতে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। মৃত ব্যক্তির নাম চন্দন দেববর্মা (৪৫)। ঘটনা শান্তিরবাজার মহকুমার কালাছরার উদয়রিয়াং পাড়ায়। মঙ্গলবার রাত্রি প্রায় ১১টা সময় ঘটনাটি ঘটে। রাত্রি বেলায় বৃষ্টির সময় চন্দন দেব্বর্মা বাইরে থেকে সাইকেলটি ঘরে ঢুকানোর জন্য বাইরে গেলে তৎক্ষণাৎ বজ্রা ঘাতে চন্দন বাবু মারা যায়।

26-04-2017 06:29:33 pm

তথ্য প্রযুক্তির বিস্তারের ক্ষেত্রে সাইবার নিরাপত্তাকে অগ্রাধিকার দিতে বলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

আগরতলা ২৬শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): ক্রমবর্ধমান সাইবার অপরাধের পরিপ্রেক্ষিতে সাইবার নিরাপত্তার উপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন কেন্দ্রীয় রাষ্ট্র মন্ত্রী পি পি চৌধুরী। বর্তমান পরিস্থিতিতে নিরাপত্তার বিষয়টিতে গুরুত্ব না দিয়ে অগ্রগতি সম্ভব নয়। বোজংনগরে ন্যাশানাল ইস্টিটিউট অফ ইলেকটিনিক্স এন্ড ইনফরমেশন টেকনোলোজি (এন.আই.ই.এন.ইন.টি) এর নতুন কমপ্লেক্সের উদ্বোধন করতে গিয়ে বুধবার কেন্দ্রীয় রাষ্ট্রমন্ত্রী পি পি চৌধুরী বলেন, তথ্য প্রযুক্তির বিস্তার এবং তথ্য প্রযুক্তির সুবিশাল সম্প্রসারণের ক্ষেত্রে সাইবার নিরাপত্তা বিষয়টি সুনিশ্চিত করা প্রয়োজন। ত্রুটিপূর্ণ নিরাপত্তার ব্যবস্থা কন ভাবেই হেকিং ডাটা বেইসের ক্রেস সম্ভাবনা থেকে রেহাই দিতে পারেনা। যা আজকের দিনে প্রায়শই লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তিনি আরো বলেন রাজ্য সরকার এবং অন্যান্য সংস্থা যারা তথ্য প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছেন তাদের অবশ্যই তথ্য প্রযুক্তির সুযোগ সুবিধার অপব্যবহার কারিদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে আরো বেশি সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। ফেইসবুক এবং টুইটারের যে ভাবে অপব্যবহার করার প্রবণতা করার লক্ষ্য করা যাচ্ছে তাও রোধ করতে হবে। চৌধুরী বলেন কেন্দ্রের লক্ষ্য ডিজিটাল ইন্ডিয়ান ভিশন প্রকল্পের মাধ্যমে ২০১৮ সালের মধ্যে দেশের প্রত্যেকটি নাগরিক উচ্চগতি সম্পন্ন ইন্টারনেট পরিষেবা আওতায় আনার লক্ষ্যমাত্রা ধার্য্য করেছেন। আগরতলার ন্যাশানাল ইস্টিটিউট অফ ইলেকটিনিক্স এন্ড ইনফরমেশন টেকনোলোজি তে উপযুক্ত ফ্যাকাল্টির ঘাটতি রয়েছে। আগামী বছরের মধ্যে সমস্ত ঘাটতি পূরণ করা হবে। এর আগে কেন্দ্রীয় রাষ্ট্র মন্ত্রী ডিজিটাল ইন্ডিয়ান ভিশন এর সফটওয়ার টেকনোলোজি পার্কের উদ্বোধন করেন। ত্রিপুরার তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী তপন চক্রবর্তী, এডিসি মুখ্য কার্যনির্বাহী সদস্য রাধা চরণ দেববর্মা এবং রাজ্য বিধানসভার উপাধ্যক্ষ পবিত্র কর অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

26-04-2017 06:02:58 pm

চাকরিচ্যুতির পর রাজ্যের শিক্ষা বিভাগ বেআব্রু

কৈলাশহর ২৬শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): সম্প্রতি দেশের সর্বোচ্চ আদালতের রায়ে ১০,৩২৩ জন শিক্ষকের চাকুরী যাবার পর রাজ্যে শিক্ষা বিভাগের বেআব্রু চেহারা বেরিয়ে এসেছে। এমতাবস্থায় শিক্ষা বিভাগের অফিসগুলিতে ডেপুটেশনের নামে শিক্ষকদের বসিয়ে কাজ করানো হচ্ছে। যেমন কৈলাশহর জেলা শিক্ষা উপ অধিকর্তার অফিস, বিদ্যালয় পরিদর্শক, সাক্ষরতা মিশন, সর্বশিক্ষা, রাষ্ট্রীয় মধ্যামিক শিক্ষা অভিযান ইত্যাদি বিভাগে বিভিন্ন স্কুল থেকে শিক্ষকদের এনে নিয়োগ করা হয়েছে। বছরের পর বছর শিক্ষক কর্মচারীরা স্কুলের বদলে অফিস করে যাচ্ছেন। জেলা শিক্ষা অফিসার এস দাস এ প্রসঙ্গে শিক্ষা বিভাগের অফিসে অফিসে শিক্ষকদের নিয়োগ করার কথা স্বীকার করে বলেন কর্মচারী স্বল্পতায় অফিসগুলোর কাজকর্মও লাটে। তিনি বলেন জেলা অফিসের স্টাইপেন্ড শাখায়ও একজন শিক্ষক জৈনক সীতেশ ভট্টাচার্যকে বসিয়ে কাজ চালানো হচ্ছে। তিনি বলেন এসব তো কাজ। স্টাইপেন্ডের প্রস্তাব না পাঠালে তো ছাত্র ছাত্রীরা ক্ষতিগ্রস্ত হবে। অন্যদিকে শিক্ষকের সংকটে যে স্কুল পড়ুয়া ছাত্র ছাত্রীরা যে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে তার দায় কে নিবে। অনেক শিক্ষক কর্মচারীদের কে অফিসবন্দি করে রাখা হয়েছে শিক্ষা বিভাগের বিভিন্ন শাখায়। শিক্ষা প্রশাসনের বাইরের চিত্রটা জাঁকজমকপূর্ণ হলেও ভিতরটা বেআব্রু।

26-04-2017 03:24:06 pm

অমরপুর বিরগঞ্জে বিভিন্ন দলে ছেড়ে ৬৯ জন ভোটার বিজেপিতে

অমরপুর (অনিকেশ দাস) ২৬শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): মঙ্গলবার অমরপুর বিরগঞ্জ এলাকায় বিজেপির ডাকে এক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। এই পথ সভায় উপস্থিত ছিলেন বিজেপির রাজ্য কমিটির সদস্য তথা প্রাক্তন বিধায়ক জহর সাহা, অমরপুর মণ্ডল কমিটির সভাপতি অজয় কান্তি সাহা সহ যুব মোর্চার নেতা সহ স্থানীয় নেতারা। এই পথ সভাতে অমরপুর ব্লক কংগ্রেসের সভাপতি কংগ্রেস দল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন। এছাড়া কংগ্রেস দলের ৯টি পরিবারের ৩২ জন, সিপিআইএম এর ৭টি পরিবারের ৩৭ জন ভোটার বিজেপি দলে যোগদান করেন। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মণ্ডলের সহ সভাপতি বলেন কেন্দ্রীয় সরকার রেগার ভারতের কোথাও কাজ বন্ধ করছেনা। কিন্তু ত্রিপুরায় ক্ষমতাসীন সিপিআইএম বলছে এই কাজ বন্ধ হয়ে যাবে। এর কারন এরা গত বৎসরের রেগার কাজের হিসাব দিতে পাচ্ছেনা। যার কারনে দেওয়া হচ্ছে না টাকা। তাই এরা বলছে রেগা বন্ধ হয়ে যাবে। সাথে সাথে তিনি এও বলেন রেগার কাজ বন্ধ হবেনা।

26-04-2017 12:40:50 pm

২৫ দফা দাবীতে ত্রিপুরা তপশিলীজাতি সমন্বয় কমিটির ডেপুটেশন

অমরপুর (অনিকেশ দাস) ২৬শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): ২৫দফা আদায়ের লক্ষে মঙ্গলবার অমরপুরের ত্রিপুরা তপশিলীজাতি সমন্বয় কমিটি এক ডেপুটেশনে মিলিত হয় অমরপুর মহকুমা শাসকের কাছে। এসি, এসটি সাবপ্লেন বন্ধ করা চলবেনা, সাবপ্লেনের অর্থ বরাদ্দ বৃদ্ধি করতে হবে ইত্যাদি এই দাবী সহ ২৫ দফা দাবিতে ত্রিপুরা তপশিলীজাতি সমন্বয় কমিটি ডেপুটেশনে মিলিত হয়। ত্রিপুরা তপশিলীজাতি সমন্বয় কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে অবিলম্বে অমরপুর হাসপাতালে স্থায়ীভাবে স্ত্রী এবং শিশু বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নিযুক্ত করতে হবে। এই সমস্ত দাবি নিয়ে মহকুমা এলাকায় সমস্ত রাজপথ পরিক্রমা করে থাকে ত্রিপুরা তপশিলীজাতি সমন্বয় কমিটি। কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে যদি তাদের এই দাবী গুলি অবিলম্বে পূরণ না করা হয় তাহলে আগামী দিনে তারা আরো বৃহত্তর আন্দোলনে যাবে।

26-04-2017 12:39:41 pm

অমরপুর বামপুর গ্রামে কালবৈশাখীর ঝড়ের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত বহু পরিবার

অমরপুর (অনিকেশ দাস) ২৬শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): কালবৈশাখীর প্রবল ঝড়ের তাণ্ডবে মঙ্গলবার রাতে অমরপুর মহকুমার বামপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের চন্দ্র মোহন পাড়ায় অবস্থা খুবই খারাপ। কোথাও ঘরের ছাউনি উড়িয়ে নিয়েছে আবার কোথাও ঘরের বেষ্টনী নেই, ঘরের ভিতরের থাকা আসবাবপত্র নষ্ট হয়ে গেছে। টিভি, পড়াশুনা করার বই খাতা নষ্ট হয়ে গেছে। ঝড়ের তাণ্ডবে আহত হয়েছে ৫ জনের বেশি। আহতদের কে অমরপুর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় সেখানে তাদের কে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয়। এই অবস্থার পরিদর্শনে যান মহকুমা শাসক, বিডিও, পঞ্চায়েত সমিতির চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদের সদস্য সহ আরো অনেকে। বর্তমানে ৫টি পরিবারকে শরণার্থী হিসাবে ঐ এলাকার বাজারে তৈরি করা কিছু সরকারি সেড ঘরে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বাকি যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদেরকেও আশ্রয় দেবার চিন্তা ধারা চলছে। বর্তমানে তাদের খাওয়ার জন্য কিছু খাদ্য সামগ্রী সহ কিছু কাপর দেওয়া হয়েছে মহকুমা শাসকের পক্ষ থেকে। পাশাপাশি এই ঝড়ের তাণ্ডবে লালগিরি এডিসি ভিলেজেও বেশ কিছু ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

26-04-2017 12:38:37 pm

বিজেপির অগ্রগতি স্বত্তেও বামেদের জনহিত অটুট থাকার দাবী বাদল চৌধুরী

আগরতলা ২৫শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): ত্রিপুরায় চলতি রাজনৈতিক দলবদল প্রক্রিয়ায় ভারতীয় জনতা পার্টির বিশেষ লাভবান হলেও ক্ষমতাসীন সিপিআইএম এর এতে বিশেষ কোন ক্ষতি হবেনা বলে মনে করেন রাজ্যের প্রথমসারির বামনেতা তথা পুর্তমন্ত্রী বাদল চৌধুরী। তবে তার মতে আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপিই প্রধান বিরোধী ভূমিকায় থাকবে। সিপিআইএম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য বাদল চৌধুরী বিলোনিয়ায় তার নির্বাচনী কেন্দ্র সফরে গিয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নোত্তরে বলেন রাজ্যের চলতি রাজনৈতিক দলবদল প্রক্রিয়ার কংগ্রেস এবং তৃনমূল ;কংগ্রেসের সমর্থকরাই মূলত বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। তাই বিজেপির জনসমর্থন ক্রমশ বাড়ছে। কিন্তু এতে বামদলগুলির চিন্তিত হবার কোন কারন নেই। তিনি আরো বলেন বিজেপি রাজ্য ক্ষমতাসীন সিপিআইএম দলের প্রধান প্রতিপক্ষীয় হয়ে উঠেছে। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে এর প্রতিফলন ঘটবে। কিন্তু বামফ্রন্টের জয় এবং অষ্টম বামফ্রন্ট সরকার গঠন আটকাতে পারবেনা। প্রবীন এই সিপিএম নেতা আরো বলেন কংগ্রেস সারা দেশের মত ত্রিপুরাতেও জনবিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। আর তৃনমূল কংগ্রেস নেতারা হতাশাগ্রস্ত হয়ে বিজেপির দিকে ঝুঁকছেন। আবার রাজ্যের পাহারী এলাকায় সক্রিয় উপজাতি ভিত্তিক আঞ্চলিক রাজ নৈতিক দলগুলিও তাদের আভ্যন্তরীণ বিবাদের জেরে অস্তির পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছে। সিপিএম এর নেতা কর্মীদের বিজেপিতে যোগদানের হিড়িকের বিষয়ে বিজেপি নেতাদের দাবী খণ্ডন করে বাদল চৌধুরী বলেন এই ধরনের স্থিতি রাজ্যে এখনো তৈরি হয়নি। গত বিধানসভা নির্বাচনে বামফ্রন্ট ৫৩% ভোট পেয়ে ৫০টি আসন দখল করেছিল। অন্যদিকে ৪৬% ভোট পেয়ে কংগ্রেস ;জোট ১০টি আসন দখল ;করেছিল। ফলে বামেদের পরাজিত করা এরাজ্যে সম্ভব হবেনা। বাদল চৌধুরী বর্তমানে দক্ষিণ ত্রিপুরায় বিভিন্ন গ্রাম এবং পার্বত্র এলাকাগুলি সফর করছেন। এবং পার্টির কর্মীদের সঙ্গে ধারাবাহিক বৈঠক করছেন।

25-04-2017 06:31:01 pm

তিন তালাক ইস্যুতে বিরোধী মতাবলম্বীদের ঠুকলেন কেন্দ্রীয় আইন রাষ্ট্র মন্ত্রী পি.পি.চৌধুরী

আগরতলা ২৫শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): তিন তালাক প্রথার বিরোধিতা করলেও দেশের সরকার সংবিধান অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় আইন রাষ্ট্র মন্ত্রী পি.পি.চৌধুরী। কিছু ধর্মীয় সংগঠন সংশ্লিষ্ট বিষয়ে যে ধরনের অভিমত ব্যক্ত করেছে তা সুস্ত সমাজের পক্ষে সহায়ক নয় বলে তিনি উল্লেখ করেন। আগরতলায় এক সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে কেন্দ্রীয় আইন রাষ্ট্রমন্ত্রী পি.পি.চৌধুরী বলেন তিন তালাক ইস্যুটি বর্তমানে সুপ্রিম কোর্টে বিবেচনাধীন। দেশের সরকার সাংবিধানিক ব্যবস্থা মধ্যে থেকেই সংশ্লিষ্ট বিষয়ে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করে দিয়েছে। তিনি বলেন সংবিধানে নারী পুরুষের সমান অধিকারের কথা বলা হয়েছে। আর এই অধিকার খর্ব করে এমন কিছুই মেনে নেওয়া যায়না। কিন্তু এই ধরনের বিবাহ বিচ্ছেদের পদ্ধতি মহিলাদের স্বার্থের অনুকূলে নেই। তিনি আরো বলেন ভারত ধর্ম নিরপেক্ষ রাষ্ট্র কিন্তু মুসলিম রাষ্ট্রগুলি যেমন আফগানিস্তান, ইরান, সোদি আরব প্রভৃতি দেশেও এই ধরনের বিবাহ বিচ্ছেদ পদ্ধতি অনেকটাই প্রত্যাখ্যান করে নেওয়া হয়েছে। আর এদেশে কিছু ধর্মীয় সংগঠন যেভাবে এপ্রথার পক্ষে সাবাল করছেন তা কোন ভাবেই সাম্প্রদায়িক স্বার্থে পক্ষে নয়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কমন সিভিল কোর্ট ইস্যুতেও সাংবিধানিক সংস্থানের মধ্যে থেকেই কাজ করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানান।

25-04-2017 06:29:21 pm

বিজেপিতে বেনোজলের প্রকোপ

আগরতলা ২৫শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): এই ছোট্ট ত্রিপুরা রাজ্যে বর্তমান সময়ে একটা রাজনৈতিক পরিস্থিতির মধ্যে গুটি গুটি পায়ে এগিয়ে যাচ্ছে বিজেপি দল। রাজ্যের প্রতিটি আনাচে কানাচে ব্যাপকভাবে চলছে দল বদলের খেলা। বহু প্রভাবশালী নেতারা বিজেপিতে যোগদান করছেন। তাছাড়া আরো বহু প্রভাবশালীরা একধাপ এগিয়ে রয়েছে বিজেপি দলের প্রতি। বর্তমান সময়ে এই রাজ্যে বিজেপি দলের ব্যাপক প্রসার ঘটেছে। আগামী ২০১৮ বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে অন্যান্য বিরোধী দলগুলির চেয়ে একধাপ এগিয়ে রয়েছে বিজেপি দল। দীর্ঘ ২৪ বছরের শাসন থেকে মুক্তি পাবার জন্য এই রাজ্যের মানুষ অস্তির হয়ে পড়েছে। সেই সময় নব্য বিজেপি কর্মীদের ;আস্ফালন, গোস্টিকোন্দল অনেকটাই সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে প্রকৃত নেতৃত্বদের মনে দলীয় অশনিসংকেত কড়া নাড়া দিচ্ছে। বর্তমান সময়ে বিজেপি দল তাদের কর্মসূচির মধ্যে সবচেয়ে বেশী জোর দিচ্ছে বুথ কমিটির উপর। সূত্রের খবর সদ্য তৃনমূল কংগ্রেস থেকে আসা কিছু প্রভাবশালী নেতৃত্ব একেবারে উপরের স্তর থেকে একটা বি-টিম তৈরি করেছেন। এই বি-টিমের নেতৃত্বরা বিজেপি দলের নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে অন্যান্য বিরোধী দলগুলির মতো বিজেপি দলে নিজেদের আখের গুছাতে উচ্ছৃঙ্খল দলে পরিণত করতে চাইছে। সূত্রের খবর এই বিজেপি দলে আসা নব্য কর্মীরা একপ্রকার বদ্ধপরিকর বড় নেতা হওয়ার জন্য। নব্য কর্মীদের আস্ফালন, দাম্ভিকতা ও গোষ্ঠীকোন্দল অনেকটাই সাধারণ মানুষের মনে দাগ কাটছে। তবে অনেকে আবার বলছেন সদ্য বিজেপি দলের রাজ্য প্রদেশ কার্যকরী বৈঠকের পর দলের এই সমস্ত আভ্যন্তরীণ সমস্যা সমাধান ঘটবে।

25-04-2017 06:28:36 pm

হাওড়া নদীর ভাঙ্গন, বহু পরিবার সংকট

আগরতলা ২৫শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): সম্প্রতি বর্ষণে নদীর ভাঙ্গনে ভয়ানক রূপ ধারণ করায় পুরাতন আগরতলা ব্লকের পূর্ব নোয়াগাও রাধানগর এলাকার দেশ কিছু মানুষ দুশ্চিন্তায় পড়েছেন। তবে সোমবার এলাকা সফর কালে উপাধ্যক্ষ সংশ্লিষ্ট দপ্তর কে আগামী দুদিনের মধ্যে ভাঙ্গন রোধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেন। উনার সফর কালে সঙ্গে ছিলেন জলসম্পদ দপ্তরের কার্যনির্বাহী আধিকারিক নিরোধ শর্মা, পঞ্চায়েত সমিতির ভাইস চেয়ারপার্সন নীহার শূর প্রমুখ। উল্লেখ বহুদিন ধরেই ভাঙ্গন চলছিল এলাকায়। এতে ক্ষতির মুখে পড়েছে বেশ কয়েকটি পরিবার। এলাকা সফরশেষে সাংবাদিকদের 'প্রশ্নোত্তরে উপাধ্যক্ষ পবিত্র কর জানান, খোয়াই ও হাওড়া নদী ভাঙ্গনরোধ করে মানুষের বাড়িঘর রক্ষার জন্য একটি প্রকল্প তৈরি করে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে পাঠানো হয়েছে। প্রায় ৪কোটি টাকার প্রকল্প হাতে নেওয়া হলেও সরকার টাকা মঞ্জুর করেনি। পাশাপাশি তিনি আর বলেন রেগার কাজের উপর নানা নিষেধাজ্ঞা জারি করায় রেগার মাধ্যমে ও নদী রক্ষার্থে কোনও কাজ হাতে নিতে পারেনি রাজ্য সরকার। তিনি বলেন আমরা সব সময় সাধারণ মানুষের পাশে আছি। এইদিকে জিরানিয়া মহকুমা এলাকার আরো বেশকিছু মানুষ হাওড়া নদীর তীর ভাঙ্গনের ফলে ক্ষতির মুখে পড়েছেন। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার টাকা মঞ্জুর না করায় কারনেই আর্থিক সঙ্কটে নদী রক্ষার্থে তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে জনপ্রতিনিধিদের একাংশের অভিমত।

25-04-2017 06:27:16 pm

মধ্যশিক্ষা পর্ষদের বই জটিলতায় বিপাকে ছাত্র ছাত্রীরা

আগরতলা ২৫শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): ত্রিপুরা মধ্যশিক্ষা পর্ষদ দশম শ্রেণীর বাংলা পাঠ্যবই সাহিত্য মালঞ্চ ও ইংরেজি পাঠ্যবই লংতরাই- এই দুটি পাঠ্যবই ছাপিয়ে ছিল। দুই বিষয়ে পাঠ্যবই ছাপালেও বিক্রি করার ;জন্য দেয় অল ত্রিপুরা বুক সেলার্স এন্ড পাবলিশার্স অ্যাসোসিয়েশনকে। কিন্তু অ্যাসোসিয়েশনের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে বইয়ের দোকানগুলিতে সমবণ্টনের ভিত্তিতে বই বিক্রির জন্য দিলেও খোদ সমিতির অফিস ঘর থেকে বহু বই বেপাত্তা হয়ে গেছে। গত জানুয়ারী, ফেব্ল্রুওয়ারী মাসে যখন দশম শ্রেণীর ছাত্রছাত্রীরা বইয়ের দোকানে গিয়ে পাঠ্যবই পাচ্ছিলনা তখনই সমিতির অফিস ঘর থেকে দুই বিষয়ে এগারশো করে বাইশো বই বেপাত্তা হয়ে যায়। প্রথমে সমিতির দুর্বলতা ও ক্রুটির কারনে বেপাত্তা হয়ে যাওয়া বইয়ের কোনও খোঁজ খবর রাখেনি। পরে গত মার্চ মাসের মাঝামাঝি সমিতির কর্মকর্তারা খোঁজ নিয়ে জানেন যে, সমিতির অফিসে কর্মরত এক কর্মচারী গোপনে বইগুলি কয়েকজন বই ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে দেয়। এই বই বিক্রির টাকা সমিতির কোষাগারে জমা পরেনি। তারপরেও সমিতির তরফ থেকে ঐকর্মচারির বিরুদ্ধে কোন প্রকার ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এই ঘটনায় বই ব্যবসায়ীরা ক্ষোভ এবং বিস্ময় প্রকাশ করেন। এইদিকে অভিভাবকরা অভিযোগ করেন জানুয়ারী এবং ফেব্রুয়ারী এমনকি মার্চ মাসেও তারা বিভিন্ন স্কুলের দশম শ্রেণীর বহু ছাত্রছাত্রী বাংলা এবং ইংরেজি পাঠ্যবই পায়নি। এইদিকে পাঠ্যবই বেপাত্তা হয়ে যাওয়ায় ব্যবসায়ীরা সমিতির দিকেই অভিযোগের আঙ্গুল তুলেন। যদিও মধ্যশিক্ষা পর্ষদ থেকে গত ফেব্রুয়ারী মাসেই কৃতিম বই সংকট চলছে বলে দাবি করে জানানো হয়েছিল। এভাবে সমিতির মাধ্যমে আর পাঠ্যবই বিক্রির জন্য দেওয়া হবেনা। এ সমিতিকে পঞ্চাশ হাজার টাকা করে দুই বিষয়ে এক লক্ষ পাঠ্যবই বিক্রির জন্য দেয় পর্ষদ। কিন্তু তারপরও এবার দশম শ্রেণীর ছাত্র ছাত্রীরা পাঠ্যবই নিয়ে যে চরম সংকটে পরে তা নজিরবিহীন বলে অনেকের দাবি।

25-04-2017 06:24:34 pm

ত্রিপুরায় কেন্দ্রীয় প্রকল্পের সঠিক বাস্তবায়ন না হওয়ার অভিযোগ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

আগরতলা ২৫শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): এক দিনের রাজ্য সফরে এসে কেন্দ্রীয় আইন, সামাজিক ন্যায়, এবং তথ্য প্রযুক্তি দপ্তরের রাষ্ট্র মন্ত্রী পি পি চৌধুরী রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় প্রকল্প সঠিক বাস্তবায়ন না করার অভিযোগ তুলেন। একেই সঙ্গে তিনি রাজ্যে আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতির অভিযোগও তুলেন। মঙ্গলবার সকালে আগরতলা বিমান বন্দরে অবতরণের পর তার জন্য বরাদ্দ করা তিনটি গাড়িতে লাল বাতি লাগানো আছে দেখে তিনি তীব্র অসন্তোষ প্রকাশ করেন। তিনি রাজ্য সরকারের আধিকারিকদের জানিয়েছেন আদালতের নির্দেশের পর এমনটা হওয়া কোন ভাবেই উচিত হয়নি। পরে লাল বাতি খুলে দিয়ে তিনি গাড়িতে উঠেন। পরে বিজেপির প্রদেশ কার্যালয়ে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, কেন্দ্রে বিজেপি সরকার আসার পর রাজ্যের উন্নয়নে সব থেকে বেশি প্রাধান্য দিচ্ছে। গত ৬০ থেকে ৬৫ বছরে যা হয়নি তা ৩ বছরে বিজেপি শাসনে সম্পূর্ণ হয়েছে। জাতীয় সড়কের সংখ্যা ৩ বছরে এক থেকে পাঁচটি হয়েছে। একেই সঙ্গে স্মার্ট সিটি, নতুন করে কৃষি বিজ্ঞান কেন্দ্র স্থাপন, তথ্য প্রযুক্তি ক্ষেত্র সহ বিভিন্ন বিষয়ে বহু প্রকল্পের ঘোষণা দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু কোন প্রকল্পেরই সঠিক বাস্তবায়ন হচ্ছেনা। তিনি জানান কেন্দ্রীয় সরকার আগে ৮০% অর্থ দিত রাজ্যকে। কিন্তু বিজেপি সরকার আসার পর ৯০% অর্থই দিচ্ছে কেন্দ্র। কিন্তু তার পরও কেন্দ্র দিচ্ছেনা বলে জিগির দেওয়া হচ্ছে। উপজাতিদের ক্ষেত্রে ও কেন্দ্রীয় সরকারের বরাদ্দ সঠিক ভাবে পোঁচ্ছেনা। তিনি রাজ্য সরকারের কর্মচারীদের বঞ্চনা অভিযোগ তুলে রাজ্য সরকারকে তুলোধুনো করে। আইন শৃঙ্খলার অভিযোগ তুলে রাজ্য সরকারের ব্যর্থতাকেই দায়ী করেন। তিনি বলেন নারী নির্যাতন খুন সন্ত্রাস ক্রমেই এরাজ্যে বেরে চলেছে। তবে জনমনের ক্ষোভ এখন ফেটে পরার সময় হয়েছে। এবং আগামী বিধানসভা নির্বাচনের এর প্রতিফলন ঘটবে।

25-04-2017 05:31:48 pm

ঊড়জা ২০১৭ সিএপিএফএস অনুর্দ্ধ-১৯ ফুটবল প্রতিভা সন্ধান টুর্ণামেন্ট

আগরতলা ২৪শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): সীমান্ত সুরক্ষা বাহিনি (বি এস এফ)-এর ত্রিপুরা ফ্রন্টিয়ার ১ থেকে ১০ মে পর্যন্ত প্রথম পর্বে “ঊড়জা ২০১৭ সিএপিএফএস অনুর্দ্ধ-১৯ ফুটবল প্রতিভা সন্ধান টুর্ণামেন্ট”-এর আয়োজন করছে। এই টুর্ণামেন্টের প্রথম পর্বে ত্রিপুরা রাজ্যের বিভিন্ন বিদ্যালয় ও স্পোর্টস ক্লাবের মোট ১৬-টি ফুটবল দল অংশগ্রহণ করবে এবং এই ১৬-টি দলের মধ্যে ৮-টি করে বালক ও বালিকাদের দল রয়েছে। আগরতলার স্বামী বিবেকানন্দ ময়দানে ২০১৭-র ১ মে বেলা ৩-টায় মাননীয় রাজ্যপাল শ্রী তথাগত রায় এই টুর্ণামেন্টের উদ্বোধন করবেন। বি এস এফ-এর ত্রিপুরা ফ্রন্টিয়ারের ইনিস্পেক্টার জেনারেল ইউ সে সারেঙ্গী বলেন, ২০১৭-র অক্টোবর মাসে ভারতীয় ফুটবলের ইতিহাসে এই প্রথমবারের মতো ভারত অনুর্দ্ধ-১৭ ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ ফুটবল টুর্ণামেন্টের আয়োজন করবে। এই ফুটবল টুর্ণামেন্টের সাফল্যমন্ডিত আয়োজনের উপর গুরুত্ব দিতে গিয়ে ভারত সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে দেশে ফুটবলের চূড়ান্ত বিন্দুতে পরিবর্তন আনার জন্য ফিফা ওয়ার্ল্ড কাপ অবশ্যই একটি অণুঘটক, যা একে কেন্দ্র করে একটি গণ আন্দোলন সৃষ্টির মাধ্যমে করা যেতে পারে। এই কারণেই এই টুর্ণামেন্টের জন্য “ঊড়জা ২০১৭-সিএপিএফএস অণুর্দ্ধ-১৯ ফুটবল প্রতিভা সন্ধান টুর্ণামেন্ট” নামটি প্রস্তাব ও সুপারিশ করা হয়েছে। দেশের প্রতিটি বালক-বালিকাকে ফুটবল খেলার শুযোগ দেওয়ার লক্ষ্য মনে রেখে এই টুর্ণামেন্টটি বিন্যস্ত করা হযেছে। সারা দেশের অন্তত: ১১ মিলিয়ন বালক-বালিকাকে অনিন্দ্যসুন্দর ক্রীড়া ফুটবলের অঙ্গনে নিয়ে আসার লক্ষ্যে ফিফা অনুর্দ্ধ-১৭ ওয়ার্ল্ড কাপ “মিশন ১১ মিলিয়ন”-এর উত্তরাধিকার কর্মসূচির পরিকল্পনা করা হয়েছে। ভারতের তরুণ প্রজন্মের মধ্যে ফুটবলের প্রতি উৎসাহ সৃষ্টি করতে, আমাদের দেশের সম্ভাবনাময় খেলোয়াড়দের এশিয়ান চেম্পিয়ানশিপ-এ প্রতিনিধিত্ব করতে নির্বাচন করার জন্য এবং তরুণ ও উদীয়মান খেলোয়াড়দের সিএপিএফএস-এ নিয়োগ করতে এই টুর্ণামেন্টের অভীষ্ট লক্ষ্য মিশন ১১ মিলিয়ন-এর অংশ হয়ে উঠবে। তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রক (এম এইচ এ)-এর নির্দেশনাক্রমে, “অল ইন্ডিয়া পুলিশ স্পোর্টস্‌ কন্ট্রোল বোর্ড”-এর তত্ত্বাবধানে সি এ পি এফ এস-এর দ্বারা যৌথভাবে অনুর্দ্ধ-১৯ ফুটবল টুর্ণামেন্ট (বালক ও বালিকা)-এর আয়োজন করা হচ্ছে। বালক ও বালিকাদের জন্য পৃথক ম্যাচ ধার্য করে এই টুর্ণামেন্ট ৩-টি পর্বে আয়োজন করা হবে। প্রথম পর্ব পরিচালনা করা হবে ১ থেকে ১০-মে পর্যন্ত, দ্বিতীয় পর্ব হবে ৮ থেকে ২৫ জুন পর্যন্ত এবং তৃতীয় পর্ব ৮ থেকে ২৫ জুলাই পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। প্রথম পর্বে রাজ্য/কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল ভিত্তিক সিএপিএফএস-এর দায়িত্ব এই টুর্ণামেন্ট পরিচালনা করার জন্য দেওয়া হয়েছে। প্রথমপর্বে ত্রিপুরা, পশ্চিমবঙ্গ, গুজরাট, কর্ণাটক, পাঞ্জাব, রাজস্থান এবং আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ সহ ৭-টি রাজ্যে ম্যাচ পরিচালনা করবে বি এস এফ এবং প্রত্যেক রাজ্য থেকে ৮-টি করে বালক ও বালিকাদের দল থাকবে। প্রথম পর্ব সমাপনের পর প্রতিটি রাজ্য থেকে বালক ও বালিকাদের উভয়ের জন্য একটি সমন্বিত দল দ্বিতীয় পর্বের জন্য সারা ভারত থেকে মোট ৩৬-টি দলকে নির্বাচিত করা হবে। দ্বিতীয় পর্বে নির্বাচিত দলগুলিকে ছয়টি জোন বা অঞ্চলে গোষ্ঠিভুক্ত করা হবে এবং প্রত্যেক সিএপিএফএস তাদের প্রতি পদত্ত জোনের দায়িত্ব অনুযায়ী ম্যাচ পরিচালনা করবে। দ্রিপুরা দল-কে শিলং-এ মেঘালয় জোনে-র গোষ্ঠিভুক্ত করা হয়েছে। দ্বিতীয় পর্বের প্রতিটি জোনের সেরা দল অর্থাৎ তৃতীয় পর্বের জন্য ৬-টি দলের একটি হিসেবে যোগ্যতা অর্জন করবে। তৃতীয় পর্বের ম্যাচগুলি দিল্লিতে যৌথভাবে পরিচালনা করবে এস এস বি এবং সি আর পি এফ। এই টুর্ণামেন্টের প্রতীক বা মাসকট হল “গাবরু” নামের একটি শাবক। টুর্ণামেন্টের জন্য “ঊড়জা-২০১৭” শীর্ষক একটি লোগো-ও প্রকাশ করা হয়েছে। এই টুর্ণামেন্ট ত্রিপুরা রাজ্যে প্রথম পর্বে সাবলীলভাবে পরিচালনা করার জন্য বিভিন্ন কমিটি গঠন করা হযেছে। দ্বিতীয় পর্বের জন্য দল নির্বাচন করতে পৃথক জুরি অব আ্যাপিল বা বিচারক মন্ডলী গঠন করা হয়েছে। ম্যাচ-গুলি অনুষ্ঠিত হবে আগরতলার স্বামী বিবেকানন্দ ময়দান এবং আসাম রাইফেলস্ ময়দানে। প্রথম পর্বের জন্য বিজয়ী দলের ক্ষেত্রে পুরস্কারের অর্থমূল্য ৫০,০০০ টাকা, রানার্স আপ দলের ক্ষেত্রে-এর অর্থমূল্য ৩০,০০০ টাকা এবং তৃতীয় স্থানাধিকারীর ক্ষেত্রে ২০,০০০ টাকা। প্রতিটি পর্বে বিজয়ী দলকে একটি রানিং ট্রফি দিয়ে পুরষস্কৃত করা হবে। ত্রিপুরায় বালকদের জন্য এই বিজয়ী ট্রফির নামাকরণ করা হয়েছে “রাজু ঘোষ ট্রফি” এবং বালিকাদের ট্রফির নাম “গুল্টি চৌধুরি ট্রফি”। এছাড়াও টুর্ণামেন্টের সেরা খেলোয়াড়, সেরা গোলরক্ষক এবং সেরা গোলদাতার জন্য থাকবে ট্রফি/পুরস্কার। বালক ও বালিকাদের দলের নাম এবং নির্ধারিত ‘পুল’ নিম্নরূপ: বালক তিনি জানান, এই ফুটবল দল গুলোর সঙ্গে তাদের ম্যানেজার, কোচ ও অন্যান্য কর্মীদেরও আগরতলার শহীদ ভগৎ সিং যুব আবাসে যথাযথভাবে থাকার ব্যবস্থা করা হবে। এই টুর্ণামেন্ট আয়োজনের সঙ্গে এছাড়াও যুক্ত রয়েছে ত্রিপুরা স্পোর্টস্ স্কুল, যুব বিষয়ক ও ক্রীড়া দপ্তর, ত্রিপুরা রাজ্য ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন, স্পোর্টস অথরিটি অব ইন্ডিয়া, ত্রিপুরা স্টেট পুলিশ এবং আসাম রাইফেলস্। ত্রিপুরায় এই টুর্ণামেন্ট সাবলীলভাবে পরিচালনা করতে বি এস এফ-এর প্রতি সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া, গেইল অব ইন্ডিয়া, এল আই সি অব ইন্ডিয়া এবং ইউকো ব্যাঙ্কের মতো বিভিন্ন ব্যাঙ্ক ও সরকার অধিগৃহীত সংস্থাসমূহ।

24-04-2017 06:01:37 pm

মিড-ডে মিলের কোটি টাকার চাল কেলেঙ্কারি, সাময়িক বরখাস্ত স্টোর কিপার

আগরতলা ২৪শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): মিড ডে মিল, অন্নপূর্ণা যোজনায় কোটি কোটি টাকার চাল কেলেঙ্কারি প্রকাশ্যে চলে এলো। প্রাথমিক ভাবে প্রায় কোটি টাকার চাল কেলেঙ্কারি ধরা পরে যাওয়ায় চাকরি থেকে সাময়িক ভাবে বরখাস্ত করা হল মান্দাই খাদ্য গুদামের স্টোরকিপার বিপ্লব সিনহাকে। তবে এক্ষেত্রে ধারনা করা হচ্ছে প্রাথমিক ভাবে কোটি টাকার চাল কেলেঙ্কারি সামনে এলেও হিসাবের শেষে কেলেঙ্কারি কয়েক কোটি টাকা হতে পারে। পাশাপাশি চাল কেলেঙ্কারির অভিযোগ এসেছে জম্পইজলা খাদ্য গুদামের বিরুদ্ধে। প্রাথমিকভাবে ব্যাপকভাবে কেলেঙ্কারি হিসাবে সামনে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে মান্দাই খাদ্য গুদামের স্টোরকিপার বিপ্লব সিনহাকে। খাদ্য অধিকর্তার নির্দেশে রবিবার স্টোর কিপার বিপ্লব সিনহা কে বরখাস্ত করা হয়। ধারনা করা হচ্ছে কোটি কোটি টাকা চাল কেলেঙ্কারির সাথে খাদ্য দপ্তরের কিছু কর্মকর্তা, স্টোরকিপারদের সাথে এফসিআই এর নন্দননগরস্থিত খাদ্য গুদামের যোগসাজস ছিলো। কিছুদিন আগে ভুয়ো বরাদ্দের ২ট্রাক চাল ধরা পরার পর তদন্ত করতে গিয়ে কোটি কোটি টাকার চাল কেলেঙ্কারির বিষয়টি সামনে আসতে শুরু করে। তদন্তে দেখা গেছে ২ট্রাক চাল মান্দাই পাঠানো হচ্ছিলো নন্দননগর কেন্দ্রীয় খাদ্য গুদাম থেকে সেই চাল কিসের বরাদ্দ তাঁর কোন প্রয়োজনীয় নথী দেখাতে পারেনি গুদাম কর্তারা। এই সূত্র ধরে খোঁজ করতে গিয়ে দেখা গেছে গত চার বছরে মান্দাই গুদামে যে চাল পাঠানো হয়েছে তা বরাদ্দ থেকে প্রায় কয়েকগুণ অতিরিক্ত। এই দিকে বিশাল পরিমাণ চাল কেলেঙ্কারি তথ্য পাওয়া গেছে জম্পইজলাতেও। জম্পইজলা খাদ্য গুদামের চাল কেলেঙ্কারি নিয়েও তদন্তের নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

24-04-2017 05:30:37 pm

ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর গরীবানা নিয়ে প্রশ্ন চিহ্ন

আগরতলা ২৪শে এপ্রিল (এ.এন.ই ): ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর বিলাসবহুল জীবনযাপন নিয়ে বিজেপির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সিপিআইএম এর চ্যালেঞ্জ এবং এর পাল্টা জবাব দিতে গিয়ে বিজেপির সর্বভারতীয় সম্পাদক সুনীল দেওধর সরাসরি মানিক সরকারের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন। সম্প্রতি একটি জনসভায় ভাশন দিতে সুনিল দেওধর মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের দৈন্যদিন জীবনের বিলাসিতার বিবরণ তুলে ধরেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে সিপিআইএম বিবৃতি দিয়ে এই সব অভিযোগের তীব্র বিরোধিতা করে এবং মিথ্যা অভিযোগের জন্য সুনীল দেওধর কে ক্ষমা চাইতেও বলেন। এরপর সোমবার সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে সুনীল দেওধর বলেন, মানিক সরকার মানুষ কে বোকা বানানোর চেষ্টা করছেন। রাজ্যের বাইরে গিয়ে তিনি ' রেল চড়েন। দেখান তিনি কতটা সাধারণ, কতটা গরিব। আর রাজ্যের ভেতর ৮০ কিলোমিটার দূরে যেতে হলে তিনি হেলিকপ্টার ব্যবহার করেন। তিনি বলেন, চশমার দাম আর অন্যান্য বিষয় নিয়ে তিনি যে অভিযোগ করেছেন তা ভুল প্রমাণ করতে চাইলে তিনি কেশ মেমো জমা দিক। তিনি সাংবাদিকদের আহ্বান করে বলেন তারা যেন একযোগে মুখ্যমন্ত্রীর সরকারী আবাসিক গিয়ে জিমটি দেখে আসেন। দেওধর বলেন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার তার প্রাপ্য অর্থের পুরোটা সিপিআইএম পার্টিতে জমা করে দেন। আর তিনি পার্টি থেকে ৫০০০ টাকা নিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন বলে প্রচার করা হয়। ৫০০০ টাকায় প্রতিদিনের ফেসিয়াল, বহির্রাজ্য থেকে পরিধানের বস্ত্র আনা, আর অন্যান্য পরিষেবা তার পক্ষে কি করে নেওয়া সম্ভব তার বিবরনও মানিক সরকার কে পেশ করা উচিত। কারোর ব্যক্তিগত জীবনের কিংবা সৌখিনতার বিষয়ে বিজেপি কখোনই নজর দিতে চায়না। কিন্তু গরীব সেজে মানুষ কে বোকা বানানোর চেষ্টা কখনোই মেনে নেওয়া যায়না তিনি উল্লেখ করেন।

24-04-2017 05:29:18 pm


Copyright © 2012 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.