BREAKING NEWS
রাজ্যে ভোট ১৮ই ফেব্রুয়ারি। গণনা ৩ মার্চ


  • নির্বাচন ঘোষণা অভূতপূর্ব চ্যালেঞ্জের মুখে দারিয়ে বাম নেতৃত্ব
  • সিপিআইএম থেকে বেরিয়েই বিস্ফোরক মন্তব্য নৃপেন সঙ্গী
  • ভুয়ো ভোটার নিয়ে পুনরায় নির্বাচন কমিশনে যাবে বিজেপি
  • রাজ্যে ভোট ১৮ই ফেব্রুয়ারি। গণনা ৩ মার্চ
  • http://www.agartalanewsexpress.com/news/topfive/get.php?id=1663
  • আইপিএফটির সঙ্গে জোট নিয়ে চূড়ান্ত আলোচনা গুয়াহাটিতে বৃহস্পতিবার
  • নির্বাচন ঘোষনার দিন বিজয় প্রতিজ্ঞা দিবস পালন বিজেপি
  • ত্রিপুরায় অনুসুচিত জাতি আইনের প্রয়োগ নিয়ে রাজ্য সরকারের স্পষ্টীকরণ
  • ত্রিপুরায় কৃষক আত্মহত্যার ঘটনা গোপন রাখার চেষ্টা
  • রাজ্যে দুটি পৃথক ঘটনায় মৃত ১, আহত ১
  • সরকারি উদ্যোগে তপশিলি জাতি অংশের উপর অত্যাচারের ঘটনা লোকানোর চেষ্টা
  • পলিট ব্যুরোর সদস্যরাই ত্রিপুরায় বিধানসভা নির্বাচনে সিপিআইএমের তারকা প্রচারক
  • তেলিয়ামুড়ার সিআইটিইউ পার্টি অফিসে অগ্নিসংযোগ
  • ভি ভি পেট নিয়ে পোলিং স্টেশনে স্টেশনে ভোটারদের নয়ে চলছে ভোটদানের মোহরা তেলিয়ামুড়ায়।
  • টেট উত্তীর্ণদের বিষয়ে নমনীয় সরকার, ১০,৩২৩ নিয়ে বিপাকে
  • চিটফান্ড ইস্যুতে ত্রিপুরায় ধেয়ে আসছে সিবিআই
  • রাজ্যে আবার বিজেপি কর্মী খুন, ধৃত অভিযুক্ত
  • ত্রিপুরায় কেন্দ্রীয় প্রকল্প বাস্তবায়নে রাজ্য সরকার উদাসিনঃ কেন্দ্রীয় রাষ্ট্রমন্ত্রী
  • ইজরাইল ইস্যুতে কেন্দ্রীয় সরকারকে সিপিআইএমের আক্রমণ
  • রাজনাথ সিং এর সঙ্গে অজিত দোভাল এবং কৃষ্ণ গোপালজির বৈঠক ঘিরে সিপিআইএমের তীব্র প্রতিক্রিয়া
  • ৪০ মাদ্রাসা শিক্ষকের বকেয়া টাকা মেটাচ্ছেন বিজেপির সভাপতি
  • সর্বোচ্চ আদালতের বিচারপতির সাংবাদিক সম্মেলনে কারোর মুখ না খোলাই শ্রেয় বললেন বার কাউন্সিল অফ ত্রিপুরার চেয়ারম্যান
  • রাজধানী আগরতলা থেকে প্রকাশ্যে টাকা ছিনতাই
  • নির্বাচনী কাজে দায়িত্ব প্রাপ্তদের মধ্যে ব্যাপক রদবদলের এবং দায়িত্ব চ্যুতির সম্ভাবনা
  • ভুয়ো ভোটার নিয়ে তৎপর নির্বাচন কমিশন

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

ত্রিপুরা খবর

রাজ্যের সন্ত্রাস কবলিত এলাকায় র‍্যাপ, ভোটের দায়িত্বে মহিলা কোম্পানি

আগরতলা, ১৪ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): ত্রিপুরায় আসন্ন বিধানসভার নির্বাচনে বিভিন্ন কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীর মহিলা ব্যাটেলিয়নকে গুরুত্বপূর্ণ কাজে 

লাগানো হবে। ভোট কেন্দ্রের ভিতরে গুরু দায়িত্বে মহিলা সুরক্ষা কর্মীদেরই দেওয়া হবে বলে আপাতত ঠিক হয়েছে। অন্য দিকে রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় 

রবিবার থেকে রেপিড একশন ফোঁস (র‍্যাপ) নামানো হয়েছে। রাজ্য নির্বাচন দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, রাজ্যে প্রচুর সংখ্যক সুরক্ষা কর্মী মোতায়েন করা হবে। 

কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনী বিশেষ করে সিআরপিএফ, বিএসএফ, এসএসবি এবং আইটিবিপি জওয়ানদেরকেই রাজ্যে নিয়ে আসা হচ্ছে। এই জওয়ানদের 

মধ্যে বেশ কয়েকটি মহিলা জওয়ানদের কোম্পানিও থাকবে। ত্রিপুরায় নির্বাচনে ইতিপূর্বে কখনো কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীর মহিলা জওয়ান নিয়োগ করা 

হয়নি। তাদের মুখ্যত ভোট কেন্দ্রের ভিতরে নিরাপত্তার দায়িত্ব দেওয়া হবে। 
নির্বাচন কমিশনের আধিকারিক জানিয়েছেন, 'শনিবার ২৫ কোম্পানি আধাসামরিক বাহিনীর জওয়ান এসেছেন। এদের মধ্যে অধিকাংশই র‍্যাপ এর জওয়ান। 

রবিবার রাজ্যের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় র‍্যাপ এর জওয়ানদের মোতায়েন করা হয়েছে। রাজ্যের রাজনৈতিক সন্ত্রাস কবলিত এলাকা গুলিতে র‍্যাপ এর 

জওয়ানদের পাঠানো হয়েছে। আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই রাজ্যে আরো কেন্দ্রীয় আধাসামরিক বাহিনীর জওয়ান আসবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। 
তবে ব্যাপক হারে সুরক্ষা বাহিনীর মোতায়েন বিষয়ে রাজ্য পুলিশ প্রশাসন কিংবা সাধারণ প্রশাসনের কোন আধিকারিকই মুখ খুলতে নারাজ। তাছাড়া 

নির্বাচনের ঘোষণার আগে ইতিপূর্বে কখনই এভাবে সুরক্ষা কর্মী মোতায়েন করা হয়নি। 

14-01-2018 01:39:30 pm

ত্রিপুরা মেতেছে মকর সংক্রান্তি উৎসবে

আগরতলা, ১৪ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): ত্রিপুরায় গৌমতী নদীর উৎসস্থলের কাছে তীর্থমুখে রবিবার ভোর থেকে অগণিত পুর্নার্থী মকর সংক্রান্তির পুণ্যস্নান 

করেছেন। সমগ্র এলাকায় জাতি উপজাতি উভয় অংশের প্রচুর ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। গ্রাম ত্রিপুরায় চলছে পিঠে পুলির উৎসব। 
ভারতীয় সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্য মোতাবেক অনেকেই তীর্থমুখে পূর্ব পুরুষের উদ্দেশ্যে তর্পণ করেছেন। বিসর্জন দিয়েছেন তাদের প্রয়াত পরিজনদের অস্থি। 

তীর্থমুখে বসেছে মেলা। ভোর থেকে পূর্ণ অবগাহন শুরু হয়েছে। 
অনেকের বিশ্বাস এই দিনে দেবী গঙ্গা মর্তে এসেছিলেন। মহাভারতের যুদ্ধের পর। শরশর্যার যন্ত্রণা থেকে উত্তরণে সংক্রান্তিতে দেহত্যাগ করেছিলেন। আর তাই 

এই দিনটিকে যাবতীয় অশুভ থেকে শুভের সূচনা দিন হিসাবে ব্যখ্যা করা হয়। 
গ্রাম পাহাড়ের জাতি উপজাতি উভয় অংশের জনগণ বিশেষ করে হিন্দুরা এই দিনটিতে পিঠে পুলির আয়োজন করে। নতুন উৎপাদিত ফসল ব্যবহার করা হয় 

ইস্ট দেবতার ভোগে। সারা রাত জেগে অনেকেই যেমন পিকনিক 'করেছেন তেমনেই ভোরে নানাদি সেরে ঘর কুঠো দিয়ে বানানো বুড়ির ঘর। আর এই ঘরে 

আগুন দিয়ে শরিরে উত্তাপ নেওয়ার দৃশ্যও লক্ষ্য করা গেছে গ্রাম পাহাড়ে। 

14-01-2018 12:23:55 pm

ঘন কুয়াশার কারণে বিঘ্নিত স্বাভাবিক রেল পরিষেবা

আগরতলা, ১৩ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): ঘন কুয়াশার জন্য রাজ্যের রেল পরিষেবা ব্যহত হচ্ছে। দিনে ও রাতে অধিকাংশ সময় সমগ্র ঘন কুয়াশার চাদরে 

ঢাকা থাকছে। ফলে বাধাপ্রাপ্ত হচ্ছে ট্রেন চলাচলে। 
শনিবার বেলা ১২টা পর্যন্ত কুয়াশাচ্ছন্ন ছিল। কয়েক ঘন্টা সূর্যের আলো পাওয়া গেলেও সন্ধ্যার আগেই কুয়াশা পড়তে শুরু করছে। ফলে যান বাহন চলাচলে 

এর ব্যাপক প্রভাব পড়েছে। 
সবচেয়ে বেশি প্রভাব পড়েছে ট্রেন চলাচলে। রাজ্য থেকে চলাচলকারী প্রায় প্রত্যেকটি ট্রেন দেরিতে চলছে। আগরতলা স্টেশন মাস্টার 'জানিয়েছেন, 

কাঞ্চনজঙ্ঘা নিদিষ্ট সময়ের চাইতে অনেক দেরিতে চলছে। ফলে যথেষ্ট সমস্যার সন্মুক্ষিণ হতে হচ্ছে যাত্রীদের। ঘন কুয়াশার জন্য এই সমস্যা হচ্ছে। অন্যান্য 

লোকাল এবং এক্সপ্রেস ট্রেন গুলির চলাচলেও যথেষ্ট সমস্যা হচ্ছে। 

13-01-2018 06:27:15 pm

রাত পোহালেই পৌষ সংক্রান্তি, চলছে ঘরে ঘরে প্রস্তুতি

আগরতলা, ১৩ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): কথায় বলে বাঙ্গালীদের বারো মাসে তেরো পার্বণ। রাত পোহালেই বাঙালীদের আরেকটি পার্বণ পৌষ সংক্রান্তি। একে 

আবার মকর সংক্রান্তিও বলা হয়ে থাকে। তা নিয়ে প্রতিটি ঘরে চলছে উৎসবের ব্যস্ততা। এই পার্বণ ত্রিপুরা সহ পশ্চিমবাংলা। বাংলাদেশ, আসাম রাজ্যের বরাক 

ভ্যালিতে ধুমধামের সঙ্গে পালন করা হয়ে থাকে। মূলত এই সংক্রান্তিতে হরেকরকম পিঠেপুলি, পায়েস তৈরি করা হয়। তবে এই উৎসবের অন্যতম আরো দুটি 

খাবার আছে সে গুলি হলো বাতাসা ও তিলুয়া। কিন্তু বর্তমানে যুগে নানান মিষ্টি জাতীয় খাবারের ভিড়ে তিলুয়া ও বাতাসের কদর প্রায় নেই বললেই চলে। 

এদিনে গৃহস্থের ঘরে বিশেষ এক উন্মাদনা লক্ষ্য করা যায়। বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে এখনো ধান কেটে নেওয়া জমির মধ্যে বুড়ির ঘর বানিয়ে আগুন জ্বালিয়ে 

আনন্দ করার বিষয়টি চোখে পরে।  তাছাড়া এদিনে তীর্থমুখে চলে পুণ্যস্নান, অবগাহন, তর্পণ, অস্থি বিসর্জন, শ্রাদ্ধ ইত্যাদি। এক সময় তীর্থমুখ উপজাতিদের 

তীর্থ স্নান হিসাবে পরিচিত হলেও বর্তমানে তীর্থমুখ জাতি উপজাতি উভয় অংশের মিলন স্থল হয়ে উঠেছে। ধর্মপ্রাণ মানুষেরা তীর্থ বা পুণ্য কার্যাদি করলেও 

বেশিরভাগ ধর্মপ্রাণ মানুষই মকর সংক্রান্তির পুণ্য লগ্নটির জন্য অপেক্ষা করে থাকেন। এদিনে হার কাঁপানো ঠাণ্ডা কে উপেক্ষা করেই অগণিত পুণার্থী 

গোমতীর জলে পুণ্যস্নান করেন। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় থেকে পুণার্থীরা তীর্থক্ষেত্রে সমবেত হন। জানা গেছে, ইতিমধ্যে দূর দূরান্ত থেকে আগত পুর্নার্থীরা দল 

বেঁধে তীর্থ মুখে পৌঁছে গেছেন। পাশাপাশি তীর্থমুখে পৌঁছে গেছেন বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা সাধু, সন্ত এবং সন্ন্যাসীরা। সংক্রান্তি কেন্দ্র করে তীর্থমুখে দুই ধরে 

মেলাও হয়। এই মেলা কে কেন্দ্র করে রাজ্যের দুর দূরান্ত থেকে ব্যবসায়ীরা তারা তাদের পসরা নিয়ে সেখানে উপস্থিত হন। এই উৎসবে এখন শুধুমাত্র 

বাঙালিরাই নয় জাতি উপজাতি সকলই এখন এই সংক্রান্তির আনন্দে মেতে উঠেন।    

13-01-2018 05:33:28 pm

বিধায়ক পদ খারিজে বেপরোয়ারা রতন লাল নাথ

আগরতলা, ১৩ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): রাজ্য বিধানসভায় অধ্যক্ষ কর্তৃক কংগ্রেস ত্যাগ করে বিজেপিতে যাওয়া বিধায়কের সদস্যপদ খারিজের বিষয়ে 

বিজেপি পড়ুয়া করতে নারাজ। একেই সঙ্গে বিধানসভায় সদস্যপদ হারিয়ে রতন লাল নাথ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে 'কংগ্রেস এবং সিপিআইএমের মধ্যে বোঝাপড়ার 

অভিযোগ তুলেছেন। 
বিজেপির রাজ্য সভাপতি বিপ্লব কুমার দেবকে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে জিজ্ঞেসা করা হলে তিনি বলেন নির্বাচনের আর বেশি দিন বাকি নেই। অধ্যক্ষের এই সিদ্ধান্ত কিছু 

যায় আসে না। জনমতের অনুকূলে রয়েছেন রতন লাল নাথ। যাদের দ্বারা তিনি নির্বাচিত হয়েছেন তাদের মতামতকেই তিনি প্রাধান্য দিয়েছেন। ফলে জনগণ 

তার সাথে রয়েছে। বিধানসভার অধ্যক্ষের সিদ্ধান্তে জনমতে কোন প্রভাব পরে না। 
এদিকে বিধায়ক পদ চ্যুত রতন লাল নাথ বলেন, কংগ্রেস কে তুষ্ট করতে সিপিআইএম এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে এই সিদ্ধান্তের কোন প্রভাব আছে বলে মনে 

হয় না। যদিও আইনিভাবে এই ধরনের চেষ্টা মোকাবিলা করা যেত। কিন্তু এই বিষয়ে জনগণের কোন আগ্রহ নেই। অচিরেই নির্বাচন ঘোষণা হবে। 

বিধানসভার অধিবেশন বসারও আর কোন সম্ভাবনা নেই। রাজ্যের মানুষের ইচ্ছা অনুযায়ী যাবতীয় পদক্ষেপ নিতে হবে। রাজ্যের মানুষের ইচ্ছা যাতে সফল হয় 

তার জন্যই সকলে মিলে চেষ্টা করছে। এখনে অধ্যক্ষের সিদ্ধান্ত তার প্রভাব আছে বলে মনে হয় না। 

13-01-2018 04:09:55 pm

সুধীন্দ্র দাশগুপ্ত স্মরণসভা

আগরতলা, ১৩ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): শুক্রবার ছিল বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি প্রয়াত সুধীন্দ্র দাশগুপ্ত এর প্রয়াণ দিবস। এই প্রয়াণ দিবসে বিজেপির প্রদেশ 

প্রভারী সুনীল দেওধর আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে পার্টির এক তৃতীয়াংশ আসন দখল সুনিশ্চিত বলে উল্লেখ করেন। 
সাড়া রাজ্যেই সুধীন্দ্র দাশগুপ্তের স্মৃতিতে শ্রদ্ধা জানিয়ে স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। শুক্রবার ছিল সুধীন্দ্র দাশগুপ্তের প্রথম প্রয়াণ দিবস। এই উপলক্ষে মূল 

অনুষ্ঠানটি হয় পার্টির প্রদেশ কার্যালয়ে। সেখানে প্রয়াতের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন বিশিষ্ট নেতারা। পরে স্মরণসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিজেপির 

প্রদেশ প্রভারী সুনীল দেওধর বলেন, বিজেপির জয় সুনিশ্চিত। প্রয়াত সুধীন্দ্র দাশগুপ্ত যে ভিত রচনা করে দিয়ে গেছেন তার উপর ভর দিয়েই আজকের 

সাংগঠনিক ভাবে সক্ষম এক পূর্ণাঙ্গ শক্তিধর দলের আত্মপ্রকাশ ঘটেছে। শরীরের বয়স বাড়লেও তিনি পার্টির কাজে সর্বাধিক প্রাধান্য দিয়ে গেছেন। 
তিনি উল্লেখ করেন, বিজেপি এখন অপ্রতিরোধ্য। অনুষ্ঠানে প্রয়াতের কন্যা স্বপ্না দাশগুপ্ত বক্তব্য রাখেন।   

13-01-2018 01:34:59 pm

টাকা এনে না দেওয়ায় স্বামীর হাতে আক্রান্ত গৃহবধূ

আগরতলা, ১৩ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): স্বামীর হাতে আক্রান্ত হয়ে জিবি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক গৃহবধূ। জানা গেছে, নির্যাতিতার শ্বশুর বাড়ি বণিক্য 

চৌমুহনী এলাকায়। স্বামী ভবতোষ দাসের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ করেছেন নির্যাতিতা। সে জানায়, স্বামী ভবতোষ দুই নম্বরী কাজের সাথে জড়িত। 

প্রতিনিয়তই টাকার জন্য মারধর করতো স্ত্রীকে। বাপের বাড়ি থেকে টানা এনে দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হতো। কিন্তু গৃহবধূ টাকা এনে না দেওয়ায় 

নির্যাতনের পরিমাণ আরো বেরে যেত। শুক্রবারও বাপের বাড়িতে গিয়ে খালি হাতে ফিরেছিল ওই মহিলা। তাতেই ক্ষেপে যায় স্বামী ভবতোষ। স্ত্রীকে প্রচণ্ড 

মারধর করে বলে অভিযোগ। আহত মহিলা এখন জিবি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।     

13-01-2018 01:15:55 pm

চালু হল আগরতলা-কলকাতা রোডে আরেকটি নতুন ভলভো বাস

আগরতলা, ১৩ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): আগরতলা-কলকাতা ভায়া ঢাকা রোডে নামলো নতুন আরেকটি ভলভো বাস। শুক্রবার গাড়িটির আনুষ্ঠানিক যাতা 

করেছেন টিআরটিসি'র চেয়ারম্যান বিধায়ক রাজেন্দ্র রিয়াং। এর আগে ৯০ লক্ষ টাকা ব্যায়ে রাজ্য সরকার একটি ভলবো বাস কিনেছিল এই রুটে চালানোর 

জন্য। মাত্র এক বছরের মধ্যে টাকা পরিশোধ হয়ে গেছে লাভের অঙ্ক থেকে। ফলে টিআরটিসি আরেকটি বাসের জন্য অর্ডার করে। এবারের বাসটি কিনতে খরচ 

হয়েছে এক কোটি টাকার কিছু বেশি। বিধায়ক তথা টিআরটিসি'র চেয়ারম্যান রাজেন্দ্র রিয়াং বাসটির যাত্রা শুরু করেছেন। উল্লেখ্য আগরতলা-ঢাকা রোডে 

যাত্রী স্বল্পতা থাকলেও ঢাকা-কলকাতা রুটে প্রচুর যাত্রী রয়েছে। ফলে টিআরটিসি'র এই প্রথম কোনো বাস চালিয়ে লাভের মুখ দেখলো বলা যায়। 

13-01-2018 01:13:50 pm

রাজ্য বিজেপিতে জন জোয়ার অব্যাহত

আগরতলা, ১২ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): ধর্মনগর মহকুমায় 'আবার শাসক দল সহ অন্যান্য ছোট দল গুলি বড় ধরনের ধস নামল। একেই সঙ্গে রাজ্য বিজেপিতে জোয়ার অব্যাহত রয়েছে। 
ধর্মনগরের তিল থইয়ে শুক্রবার বিজেপির এক সংকল্প সভ্যা অনুষ্ঠিত হয়। এই সভায় বৃহস্পতিবার বিজেপিতে যোগদান কারী কংগ্রেসের শীর্ষ নেত্রী বিভা নাথের অনুগামীরা বিজেপিতে সামিল হয়ে যান। শুক্রবারে এই সভায় প্রাক্তন মহিলা কংগ্রেস সভানেত্রী তথা এআইটিসির সদস্যা বিভা নাথের বিজেপিতে যোগ দানের ফলে এলাকায় বিস্তর প্রভাব পড়েছে। 
বিজেপির এই সংকল্প সভায় উপস্থিত ;ছিলেন পার্টির রাজ্য সহ-সভাপতি সুবল ভৌমিক। তিনি জানিয়েছেন, এই সভায় সিপিআইএম সহ অন্যান্য ছোট দল গুলির মিলিয়ে ২২৬টি পরিবারের ৭৩১ জন সমর্থক বিজেপিতে সামিল হয়েছে। তিলথই বাজারের এই সভায় উত্তর জেলায় বিজেপি এখন অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছে। বাস্তবে বাম বিরোধী সকল বরিষ্ঠ নেতাই বিজেপিতে চলে এসেছেন। ফলে সিপিআইএমের সঙ্গে সরাসরি নির্বাচনী বিষয়টিও সুনিশ্চিত হয়ে গেছে। 

12-01-2018 06:18:31 pm

রতন লাল নাথের বিধানসভার সদস্যপদ খারিজ

আগরতলা, ১২ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): বিজেপিতে যোগ দেওয়া কংগ্রেসের বিধায়ক রতন লাল নাথের বিধানসভার সদস্যপদ খারিজ করে দেওয়া হয়েছে। দল ত্যাগ বিরোধী আইনের আওতায় বিধানসভার অধ্যক্ষ রমেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। 
শুক্রবার বিধানসভার সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, 
অধ্যক্ষ রমেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ দীর্ঘ বিচার বিশ্লেষণের পর রতন লাল নাথের সদস্যপদ খারিজ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সরাসরি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরই প্রদেশ কংগ্রেসের তরফে রতন লাল নাথের বিধানসভার সদস্যপদ খারিজের আবেদন জানায়। সেঅনুযায়ী রমেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ চারদিন আগে বিধানসভায় তার কক্ষে উভয়কে ডেকে পাঠান। কিন্তু রতন লাল নাথ অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে অধ্যক্ষে সামনে হাজির হননি। এবং আরো দশ দিনের সময় চেয়ে নেন। যদিও প্রদেশ কংগ্রেসের প্রতিনিধিরা অধ্যক্ষের কক্ষে উপস্থিত ছিলেন। এবং পুনরায় রতন লাল নাথকে দলত্যাগ বিরোধী আইনের দাবি জানানো 'হয়। 
অধ্যক্ষ রমেন্দ্র চন্দ্র দেবনাথ রতন লাল নাথকে আর বেশি সময় দিতে আগ্রহী ছিলেন না। সে অনুযায়ী শুক্রবার অধ্যক্ষ 'পাঁচ বারের বিধায়ক তথা বিধানসভার প্রাক্তন বিরোধী দল নেতা রতন লাল নাথের সদস্যপদ খারিজ করে দেন। যদিও বর্তমান বিধানসভার মেয়াদ অচিরেই শেষ হচ্ছে। আর যে কোন সময় বিধানসভা নির্বাচন ঘোষিত হতে পারে। 

12-01-2018 06:16:34 pm

স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৬ তম জন্মজয়ন্তী যথাযোগ্য মর্যাদার সহিত রাজ্যে পালিত

আগরতলা, ১২ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ):  আজ পথ প্রদর্শক স্বামী বিবেকানন্দের ১৫৬ তম জন্মজয়ন্তী গোটা দেশের সাথে রাজ্যেও যথাযোগ্য মর্যাদার সহিত 

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, বিদ্যালয় ও রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশন পালিত হয়েছে। রামকৃষ্ণ সারদেশ্বরী মঠে আজকের এই দিনটি যথাযোগ্য 'মর্যাদার সহিত পালিত হয়েছে। 

রাজ্যের মূল অনুষ্ঠানটি শিশু উদ্যান সংলগ্ন বিবেকানন্দ উদ্যানে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে সকালে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের মিছিল বের হয় 

যা শহরের বিভিন্ন পথ পরিক্রমা করে আবার বিবেকানন্দ উদ্যানে এসে শেষ হয়। অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে মশাল প্রজ্বলন, স্বামীজির মর্মর মূর্তিতে মাল্যদান এবং 

বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের দ্বারা পরিবেশিত হয় আবৃত্তি, সংগীত ইত্যাদি। 
এইদিকে স্বামীজির ১৫৬ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বিবেকানন্দ শিশু নিকেতনের উদ্যোগে জিরানিয়া অগ্নিবীণা হলে বিভিন্ন 'অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। সকালে 

জন্মজয়ন্তী ঘিরে বিভিন্ন ট্যাবলো মহকুমার বিভিন্ন অঞ্চল সফর করে। রাজ্যের বিভিন্ন মহকুমায় রামকৃষ্ণ মিশনের বিভিন্ন আশ্রমে গুচ্ছ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে 

স্বামীজির জন্মজয়ন্তী পালিত হয়েছে। বিজেপি রাজ্য কমিটির অন্তর্গত যুব মোর্চার উদ্যোগে স্বামীজির জন্মজয়ন্তী পালিত হয়। এদিন বিজেপি প্রদেশ কার্যালয়ে 

সকাল ৯ টা ৩০ মিনিটে স্বামীজির প্রতিকৃতিতে পুশপার্ঘ্যের মাধ্যমে গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপনের পাশাপাশি সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি টিঙ্কু 

রায়।   

12-01-2018 03:00:48 pm

সাপ হয়ে ছোবল ওঝা হয়ে ষরযন্ত্রঃ বিজন ধর

আগরতলা, ১২ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): ১০,৩২৩ চাকরীচ্যুত শিক্ষকদের নিয়ে রাজ্যের প্রধান বিরোধী দল বিজেপি এবং কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে সাম্প্রতিক 

কথিত প্রক্রিয়াকে আবার কটাক্ষ করেছেন সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক। সিপিআইএম তাদের  প্রায় প্রত্যেকটি জনসভাতেই এই বিষয়টিকে উত্থাপন করছে। 
দক্ষিণ জেলার রাজনগরে সিপিআইএম এর জনসভায় নির্বাচনী জনসভায় সিপিআইএম কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তথা সিপিআইএম রাজ্য সম্পাদক বিজন ধর 

বলেন, ১০,৩২৩ শিক্ষকের চাকরি নিয়ে রাজ্য সরকার যথেষ্ট সহানুভূতিশীল। বামফ্রন্ট সরকার চাকরি দেবার পদ্ধতি বন্ধ করেনি। কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন 

শূন্য পূরণ করা হচ্ছে না। শূন্য পদ অবলুপ্ত করে দেওয়া হচ্ছে। 'কিন্তু রাজ্য বামফ্রন্ট সরকার চাকরি দেওয়া বন্ধ করছে না নতুন পদও সৃষ্টি করা হচ্ছে। প্রতি 

সপ্তাহের কেবিনেট মিটিং এজাতীয় সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে। 
তিনি বলেন, ১০,৩২৩ চাকরীচ্যুত শিক্ষকের বিষয়ে বিজেপি নেতাদের কার্যকলাপ যথেষ্ট সন্দেহজনক। এই নেতারা সাপ হয়ে ছোবল দেয় আবার এখন ওঝা 

সেজে হয়রানি করছে। বিজেপিতে নবাগত নেতাদের জন্যই ১০,৩২৩ শিক্ষকের চাকরি গেছে। তারাই আদালতে মামলা করার জন্য সংশ্লিষ্টদের উস্কে দিয়েছেন। 

আবার এখন চাকরি চ্যুতদের রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে খেপিয়ে তুলছে কেন্দ্রীয় কাছে নিয়ে মিথ্যা আশ্বাস দিচ্ছে। এই ধরনের কার্যকলাপ প্রতরনারই সামিল। 

কেন্দ্রীয় সরকার চাইলে এখনই আদালতে নির্দেশে চাকরীচ্যুতদের পুনর্বহাল করে দেখাক। 
উল্লেখ করা যেতে পারে ১০,৩২৩ শিক্ষকদের প্রতিনিধিরা রাজ্য বিজেপির নেতাদের সহায়তায় দিল্লি গিয়ে কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত 

করেছেন। রাজ্যে ফিরে তারা তাদের পুনঃনিযুক্তির বিষয়টি ব্যাপক প্রচারেও নিয়ে এসেছেন। 

12-01-2018 03:00:24 pm

নিয়মিতকরণে দাবীতে রাজধানী আগরতলার গুরুত্বপূর্ণ পথ অবরোধ

আগরতলা, ১২ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): কয়েকদফা ডেপুটেশন ও ধর্না দিয়েও কোন কাজ না হওয়ায় পথ অবরোধ করল ভূমি ও উদ্যান দপ্তরের অনিয়মিত 

কর্মচারীরা। সরকারি নীতি লঙ্ঘন করে দীর্ঘদিন ধরে তাদের অনিয়মিত করে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ। 
ভূমি ও উদ্যান দপ্তরের অনিয়মিত করার দাবীতে আন্দোলন চালিয়ে আসছিলেন। তারা তাদের দাবি সমর্থনে বিভিন্ন সময় কৃষি দপ্তরের অধিকর্তা, কৃষিমন্ত্রী 

এমনকি মুখ্যমন্ত্রীর কাছেও কয়েকদফা ডেপুটেশন দিয়েছেন এমনকি বহুবার ধর্না সংগঠিত করা হয়েছে। কিন্তু রাজ্য প্রশাসনের তরফে এখন পর্যন্ত কোন 

ব্যবস্থাই নেওয়া হয়নি। রাজ্য মন্ত্রীসভায় মঙ্গলবারের বৈঠকেও এই অনিয়মিত কর্মচারীদের দাবি পূরণে কোন ধরনের সিদ্ধান্তই নেওয়া হয়নি। 
এই পরিস্থিতিতে শুক্রবার সকালে ভূমি ও উদ্যান দপ্তরের অনিয়মিত কর্মীরা একযোগে পথে নামতে বাধ্য হয়। রাজধানী আগরতলায় গুরুত্বপূর্ণ সড়ক তথা 

রাজভবন, সচিবালয় এবং বিধানসভা সহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ অফিস গুলিতে যাওয়ার রাস্তা অবরোধ করে দেওয়া হয়েছে। সার্কিট হাউজে এই অবরোধ কর্মসূচি 

চলছে। ঘটনাস্থলে প্রচুর সংখ্যক নিরাপত্তা বাহিনী নামানো হয়েছে। প্রশাসনের তরফে আলোচনার চেষ্টাও শুরু হয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত কোন সুরাহ হয়নি। 

এবং এই গুরুত্বপূর্ণ পথে অবরোধ চলছে। 

12-01-2018 11:29:49 am

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও রাজ্যপালের বৈঠকে আশাবাদী বিজেপি

আগরতলা, ১১ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং এর 'সঙ্গে রাজ্যের রাজ্যপাল তথাগত রায়ের সাক্ষাতকারে উৎফুল্ল বিজেপি। বিজেপি 

মনে করে এই সাক্ষাতকারের ফলে আগামী দিনে ত্রিপুরায় প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়ার ক্ষেত্রে কেন্দ্রীয় সরকারের সুবিধা হবে। 
বিজেপির রাজ্য সভাপতি সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে বলেন, বিজেপি বেশ কয়েকবার রাজ্যের রাজ্যপালের কাছে আইন শৃঙ্খলা 

জনিত বিভিন্ন ত্রুটির বিষয়ে বিস্তর অভিযোগ করেছে। কিন্তু সংশ্লিষ্ট বিষয়ে কেন্দ্রীয় সরকার ধর্যের পরিচয় দিচ্ছিল। রাজ্যপাল তথাগত রায় বিভিন্ন সময় রাজ্যের 

আইন শৃঙ্খলা বিষয়টি স্বীকারও করেছেন। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য সরকারকে যথেষ্ট সময় দিয়েছে এবং পরিস্থিতি শুধরানোর জন্য প্রয়োজনীয় পরামর্শ 

দিয়েছে। বিপ্লব কুমার দেব বলেন, রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতি কোন ভাবেই ভাল বলা যায় না। বিজেপি আরো আগেই রাষ্ট্রপতি শাসনের জারি জানিয়েছে। আর 

যেখানে রাজ্যের শাসন ব্যবস্থা রাজ্যের শাসকদলের নিয়ন্ত্রণে চলে গেছে সেখানে অবশ্যই কেন্দ্রীয় সরকারকে পদক্ষেপ নেওয়ার প্রয়োজন। রাজ্যপালের ডাকে 

সাড়া না দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে মুখ্যসচিব এবং পুলিশ মহানির্দেশকের রাজভবনে না যাওয়াটা রাজ্যের সামগ্রিক পরিস্থিতির স্পষ্ট প্রমাণ তুলে ধরেছে। 
তিনি আশা প্রকাশ করেন অবশ্যই কেন্দ্রীয় সরকার সাংবিধানিক গণ্ডির মধ্যে থেকেই রাজ্যের জনগণের স্বার্থে উপযুক্ত পদক্ষেপ নেবেন। এক্ষেত্রে রাজ্যপালের 

রিপোর্ট যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেও তিনি উল্লেখ করেন। 

11-01-2018 06:31:12 pm

বিজেপিতে সামিল হলেন বিভা নাথ, পাপড়ি হালদার

আগরতলা, ১১ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): সাড়া রাজ্য জুড়ে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের মধ্যে দলবদল প্রক্রিয়া জারি রয়েছে। এই প্রক্রিয়া যদিও বিজেপি অনেক 

আগে থেকেই যথেষ্ট এগিয়ে আছে। 
রাজ্যে যে কোন সময় নির্বাচন ঘোষণা হতে পারে। আর এই জল্পনা কল্পনা প্রাক্কলগ্নে বৃহস্পতিবার বিজেপিতে যোগ দিলেন প্রাক্তন প্রদেশ মহিলা কংগ্রেস 

সভানেত্রী তথা এআইটিসির সদস্যা বিভা নাথ। প্রাক্তন মন্ত্রী বিভা নাথের সঙ্গে 'বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন তার শল্য চিকিৎসক পুত্র ডাঃ অভিজিৎ নাথ। শুধু 

পতিপক্ষিয় দলের নয় এনডিএ শরিক দল গুলি থেকেও সরাসরি বিজেপিতে সামিল হওয়ার তোর জোর পরিলক্ষিত হচ্ছে। প্রদেশ লোক শক্তি পার্টির সভানেত্রী 

পাপড়ি হালদারও পুরো দল সমেত বিজেপিতে সামিল হয়েছেন। 
এই আনুষ্ঠানিক দল বদল প্রক্রিয়ায় প্রাক্তনমন্ত্রী বিভা নাথ সাংবাদিকদের বলেন, রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতিতে বাম বিরোধী প্রত্যেক নেতা কর্মীর উচিৎ 

বিজেপিতে যোগ দেওয়া। 'কারণ বিজেপির বিরুদ্ধে গিয়ে অন্য দলকে সহায়তা করা মানেই সিপিআইএম এর হাত কে মজবুত করা। ফলে 'কোন অবস্থাতেই 

এখন আর কংগ্রেস করার কোন প্রশ্নই উঠে না। একেই সঙ্গে কংগ্রেসের সঙ্গম জাতীয় স্তরের মিতালি এখন রাজ্যেও স্পষ্টভাবে পরিলক্ষিত হচ্ছে। ফলে 

বিজেপিতে যোগ দেওয়া ভিন্ন অন্য কোন বিকল্পই নেই। 
অন্যদিকে এনডিএর শরিক রামবিলাস 'পাশোয়ান নেতৃত্বাধীন লোক জনশক্তি পার্টির রাজ্য সভানেত্রী পাপড়ি হালদার বলেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে বাম বিরোধী 

রাজনীতিতে বিজেপি ভিন্ন অন্য কোন রাজনৈতিক দলের কোন গুরুত্বই নেই। বিজেপিতে যোগদানের আগে রামবিলাস পাশোয়ানের সঙ্গে তার বার্তালাপ 

হয়েছে। একেই সঙ্গে রাজ্যের পরিবর্তনের ঠেউ 'উঠছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। সাড়া রাজ্য থেকে ৩ হাজার কর্মী সমর্থক একযোগে বিজেপিতে সামিল হচ্ছে 

বলে তিনি জানান। 
অন্যদিকে বিভা নাথ জানিয়েছেন, ৭৫ জন সিপিআইএম কর্মী সমর্থক সহ প্রচুর সংখ্যক বিভিন্ন দলের স্থানীয় নেতা 'কর্মী বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। এজন্য 

ধর্মনগরের তিল থইয়ে শুক্রবার এক পরিবর্তন সভার আয়োজন করা হয়েছে। 

11-01-2018 06:16:45 pm

রাজধানী আগরতলায় আবার উদ্ধার ক্ষত বিক্ষত নরদেহ

আগরতলা, ১১ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): রাজধানী আগরতলায় ভোরে এক  ব্যাক্তির ক্ষত বিক্ষত দেহ উদ্ধারের ঘটনাকে কেন্দ্র করে তীব্র চাঞ্চল্যের সৃষ্টি 

হয়েছে। পুলিশ ধারণা করছে এই ব্যক্তিকে খুন করে তার দেহ নর্মদায় ফেলে দেওয়া হয়। 
আগরতলা পূর্ব থানা সূত্রে জান গেছে, থানা থেকে ঢিল ছোড়া দূরত্বে চিত্তরঞ্জন রোডের নর্মদায় ভোরে এক ব্যক্তির মৃতদেহ পরে থাকতে দেখেন প্রাতঃভ্রমণে 

বেরোনো নাগরিকরা। সঙ্গে সঙ্গে থানায় খবর দেওয়া হয়। দ্রুত পুলিশ ঘটনাস্থলে ছুটে যায়। পুলিশ গিয়ে মৃতদেহটি নর্দমা থেকে তোলার ব্যবস্থা করে। 

প্রাথমিকভাবে ঐ ব্যাক্তির পরিচয় জানতে পারেনি পুলিশ। তবে দেহে নানা স্থানে অসংখ্য ধারালো অস্রের আঘাতের নমুনা দেখে ধারনা করা হচ্ছে ঐ ব্যক্তিকে 

নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। 
তবে ঘণ্টা খানেক বাদেই ব্যক্তির পরিচয় পাওয়া যায় বলে জানা গেছে স্থানীয় হকাস কর্নার এলাকায় কাপরের ব্যবসায়ী গৌতম সরকার তার দোকান থেকে 

বাড়ি ফিরেনি। ফলে পরিবারের লোকজন দুশ্চিন্তায় ছিলেন। আর আজ ভোরে তার দেহ উদ্ধার করা হয়। তবে এই হত্যাকাণ্ডের পেছনে কি কারণ রয়েছে তা 

এখনো স্পষ্ট ভাবে বলতে পারছেন না পুলিশ। তবে তৎসংলগ্ন এলাকায় বিধায়ক মধুসূদন সাহা সহ স্থানীয় বহু যুবক বিভিন্ন সময়ে খুন হয়েছেন। যদিও এটি 

জনবসতিপূর্ণ এলাকা। 
মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। পরিবারের লোকেরা দেহ চিনহিত করেছেন। পুলিশ তদন্তে নেমেছে। 

11-01-2018 01:29:43 pm

রাজনাথ সকাশে তথাগত, রাজ্যের রাজনীতির তৎপরতা তুঙ্গে

আগরতলা, ১১ই জানুয়ারি (এ.এন.ই ): আগামী কয়েক দিনের মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষ কোন পদক্ষেপ নিতে 

পারে। রাজ্যের রাজ্যপালের সঙ্গে আইন শৃঙ্খলার পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং এর সঙ্গে দীর্ঘ চর্চার পর এই ধারনা করা হচ্ছে। 
রাজ্যের রাজনৈতিক মহল ধারনা করছে কেন্দ্রীয় সরকার অতিসত্বর কিছু পদক্ষেপ নিতে পারে। রাজ্যের রাজ্যপাল তথাগত রায় বুধবার রাতে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র 

মন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত করেন। বৃহস্পতিবার রাজ্যের রাজভবন সূত্রে জানা গেছে, রাজ্যের রাজ্যপাল রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে একটি দীর্ঘ রিপোর্ট 

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর কাছে জমা দিয়েছেন। এই রিপোর্টে সাংবাদিক হত্যাকাণ্ড, ক্রমাগত বিজেপির স্থানীয় কর্মী সমর্থকদের হত্যাকাণ্ড এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে 

পুলিশি তদন্তের ধরনের বিষয়ে বিস্তারিত উল্লেখ করা হয়েছে। এছাড়াও রাজ্যের সাম্প্রতিক আইন শৃঙ্খলার পরিস্থিতির অবনতি এবং বিএসএফ আধিকারিকের 

হত্যাকাণ্ড প্রভৃতি বিষয় গুরুত্ব সহকারে উল্লেখ করা হয়েছে। 
রাজভবনের সূত্রটি আরো জানিয়েছে, রাজ্যের রাজ্যপালের ডাকে সাড়া না দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর মানিক সরকারের নির্দেশে রাজ্যের মুখ্যসচিব এবং পুলিশ 

মহানির্দেশকের রাজভবনে না আসার বিষয়টিও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় গুরুত্ব সহকারে আলোচিত হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীর আলোচনায় 

দীর্ঘক্ষণ ধরে চলে বলেও রাজভবন সূত্রে জানা গেছে। 
এদিকে রাজ্যের রাজনৈতিক মহলে এই খবর প্রচারিত হতেই তীব্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে। যদিও সরাসরি কোন রাজনৈতিক দলই এবিষয়ে এখনো মুখ খুলছে 

না। তবে সিপিআইএম সূত্রে জানা গেছে, পার্টি বিষয়টি, নিয়ে যথেষ্ট গুরুত্ব সহকারে বিচার বিশ্লেষণ করেছে। এবং যে কোন পরিস্থিতির মোকাবেলার জন্য 

তৈরি হচ্ছে পার্টির নেতৃত্ব। অন্যদিকে বিজেপি কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্ত নিয়ে যথেষ্ট ইতিবাচক মনোভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে। পার্টি আশা প্রকাশ করছে কেন্দ্রীয় 

যে কোন সিদ্ধান্তই নির্বাচনী প্রক্রিয়া পার্টির অনুকূলে যাবে।  

11-01-2018 01:28:25 pm


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.