• চলে গেলেন বামফ্রন্টের আভ্যায়ক খগেন দাস
  • নির্বাচন কমিশনের কাছে বিজেপির একগুচ্ছ দাবি
  • কর্মচারীদের কাজ থেকে নির্বাচনী তহবিলে অর্থ, অভিযোগ নির্বাচন কমিশনে
  • শাসক দলের অনুগতদের নির্বাচনী দায়িত্ব থেকে সরানোর দাবি বিজেপির
  • নির্বাচনী কর্মকাণ্ডের চূড়ান্ত রূপ দিতে আসছেন রাম মাধব
  • বিজেপিতে সামিল তৃণমূল শ্রমিক সংগঠনের সর্বভারতীয় নেতা
  • সিপিআইএম এর প্রার্থী তালিকা নিয়ে জল্পনা কল্পনা
  • রাজনৈতিক দলকে চাঁদা দেওয়া কর্মচারীদের নিরপেক্ষতা নষ্ট করে: সিইও
  • রাজ্যে এল আরো কেন্দ্রীয় আধা সামরিক বাহিনী
  • ত্রিপুরার প্রধানমন্ত্রীর সফরসূচি পিছিয়ে গেছে
  • আজও বেঁচে আছে রেডিও
  • আজও বেঁচে আছে রেডিও
  • নির্বাচনের কারণে পিছানো হতে পারে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের পরীক্ষা
  • শাসক দলের হয়ে কাজ করতে গিয়ে জনরোষের মুখে পুলিশ
  • চূড়ান্ত ভোটার তালিকা রূপায়নে গড়মিলে অভিযুক্তদের সাজা হবে: সিইও
  • রাজনৈতিক সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের রূপ কমলপুর
  • বিজেপি-আইপিএফটির জোট চূড়ান্ত
  • ত্রিপুরায় ইস্যুতে সরগরম, সিপিআইএম এর কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠক
  • নির্বাচন ঘোষণা অভূতপূর্ব চ্যালেঞ্জের মুখে দারিয়ে বাম নেতৃত্ব
  • সিপিআইএম থেকে বেরিয়েই বিস্ফোরক মন্তব্য নৃপেন সঙ্গী
  • ভুয়ো ভোটার নিয়ে পুনরায় নির্বাচন কমিশনে যাবে বিজেপি
  • রাজ্যে ভোট ১৮ই ফেব্রুয়ারি। গণনা ৩ মার্চ
  • http://www.agartalanewsexpress.com/news/topfive/get.php?id=1663
  • আইপিএফটির সঙ্গে জোট নিয়ে চূড়ান্ত আলোচনা গুয়াহাটিতে বৃহস্পতিবার

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

ত্রিপুরা খবর

00310
0057
0057
0057
0057
প্রত্যন্তের ব্লকে চলছে লুটের রাজ, লুটের নায়ক বিডিও

আগরতলা ১২ই অক্টোবর (এ.এন.ই ): ১৮ বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে জঙ্গলের ব্লকে চলছে জংলিরাজ। আর এই জংলিরাজের সর্দার হল খোদ ব্লকের বিডিও। তার তত্ত্বাবধানে এই জংলিরাজ চলছে। জিরানিয়া মহকুমার বেলবাড়ি ব্লকে কি ধরনের জংলিরাজ কায়েম হয়েছে তা জানলে যে কেউই আঁতকে উঠবেন। গত ১৩ই সেপ্টেম্বর মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের হাত ধরে ব্লকের নতুন বিল্ডিং এর উদ্বোধন হয়। উদ্বোধন আর ভাষণের নেশায় মত্ত মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার অর্ধ সমাপ্ত ব্লক বিল্ডিং উদ্বোধন করলেন। ফ্লোরে শতরঞ্জি বিছিয়ে, পাল্টার দরজা জানালাহীন বিল্ডিং রুমগুলির সাদা রংয়ের কাপর লাগিয়ে ব্লকের বিল্ডিং এর উদ্বোধন হয়। এই কাজে শ্রম দান করেছেন ব্লকের পঞ্চায়েত সচিব এবং গ্রাম সেবকরা। অভিযোগ বিল্ডিং এর বাইরে রঙ ওয়েদার কোট করা হয়নি। এপ্রোচ রোড এর অ্যাস্টিমেট তিনবার টি এস করে অর্থ গায়েব করা হয়েছে। বিল্ডিং নির্মাণের মূল শ্রমিকের নামে একটিও না করে শ্রমিকের মজুরি গায়েব করে দিয়েছেন খোদ ইমপ্লিমেন্টিং অফিসার। অবাক করার বিষয় এ সমস্ত কান্ডকীর্তি জেনেও নীরব ভূমিকা পালন করেছেন বিডিও। নীরব থেকে তিনি ইমপ্লিমেন্টিং অফিসারের কাছ থেকে সুযোগ সুবিধাও আদায় করে নিয়েছেন। এহেন লুটপাটের জেরে ব্লক অফিস কবে নাগাদ নতুন বিল্ডিং এ স্থানান্তর হবে তার কোন প্রকার নিশ্চয়তা নেই। শুধুমাত্র ব্লক বিল্ডিং নির্মাণ কাজেই সরকারি অর্থ লুটপাটে থেমে যায়নি। জঙ্গলের বেলবাড়ি ব্লক লুটের স্বর্গে পরিণত হয়েছে ইতিমধ্যেই।


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.