• ইভিএম বিভ্রাট নিয়ে কংগ্রেস তাক করলো বিজেপির দিকে
  • বিপ্লব কুমার দেবের সঙ্গে ফোনে কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী
  • দ্বিতীয়ার্ধে ভোট গ্রহণের অনিয়ম ঠেকাতে বিশেষ পর্যবেক্ষকের সঙ্গে বিজেপির বৈঠক
  • সবার মতাধিকার সুনিশ্চিত করলেন সিইও
  • ত্রিপুরায় ভোটে ভিলেন সাজলো ইভিএম
  • ১৮ ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচন
  • ১৮ ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচন
  • ১৮ ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচন
  • চিরাচরিত পোষাকে ভোট দিলেন রিয়াং জাতিগোষ্ঠীর মহিলারা
  • শান্তিরবাজার দুটি বিধানসভা কেন্দ্রেই উৎসবের মেজাজে চলেছে ভোট গ্রহণ
  • রাজ্যের বিভিন্ন কেন্দ্রে উঠেছে ইভিএম নষ্টের অভিযোগ
  • ভোট দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার
  • আধাসামরিক বাহিনীর কড়া নজরদারীর মধ্য দিয়ে চলছে ভোটগ্রহণ
  • শান্তিরবাজারে ভোটগ্রহণ শুরু
  • বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে ইভিএম মেশিন খারাপ, পরে নতুন মেশিন এনে ভোট গ্রহণ শুরু
  • ১৮ বিধানসভায় ৫৯টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শুরু
  • তেলিয়ামুড়ায় মহিলা ভোটার দের মধ্যে চকলেট বিতরন
  • নির্বাচনের লক্ষ্যে পোলিং এজেন্টদের নির্দিষ্ট গন্তব্যস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

ত্রিপুরা খবর

00310
0057
0057
0057
0057
বিমুদ্রাকরণ ও জিএসটি লাভ আসতে শুরু করেছে

আগরতলা, ১০ই ফেব্রুয়ারি (এ.এন.ই ): জিএসটি এবং বিমুদ্রাকরণ দেশের দীর্ঘ মেয়াদি লাভ হতে চলেছে। যদিও ইতিমধ্যেই কর আদায়ে সাফল্য আসতে 

শুরু করেছে। এইসব ক্ষেত্রে বামদল দুলির মতামত বাস্তব সন্মত নয় বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন দেশের অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। 
সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তরে অরুণ জেটলি বলেন, নীতি আয়োগ গঠন করায় রাজ্য গুলির সুবিধা হয়েছে। কেন্দ্র এবং রাজ্য যৌথভাবে আলাপ আলোচনা 

করে পিছিয়ে পড়ার রাজ্য গুলির দ্রুত উন্নয়নে কার্যকরি পদক্ষেপ নিতে এখন সম্ভব হচ্ছে। এক্ষেত্রে বামেদের সমালোচনা ভিত্তিহীন। একবারের বাজেটে গরিব 

এবং মধ্যবিত্তদেরই সর্বাধিক গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। নতুন সরকার গঠনের পর থেকে সেই একই প্রবনতায় বাজেট তৈরি হয়েছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। 
বিজেপির নেতৃত্বে কর্পোরেটরা ত্রিপুরায় গণতন্ত্র হরণ করে নিচ্ছে বলে সিপিআইএম এর অভিযোগের বিষয়ে অরুণ জেটলি বলেন, প্রথমত প্রশ্ন হচ্ছে রাজ্যে 

গণতান্ত্রিক পরিবেশ রয়েছে কিনা তা আগে খতিয়ে দেখতে হবে। তারপর বিবেচনা করতে হবে কর্মসংস্থানের সুযোগ সংক্রান্ত বিষয়ে। বামদল গুলির ন্যতিবাচক 

ভাবধারার কারণে রাজ্যে বেসরকারি বিনিয়োগ হচ্ছে না। বিনিয়োগ করতে চাইছেন তারা রাজ্যে এসে পরিস্থিতি দেখে হাত গুটিয়ে ফিরে যাচ্ছেন। বেসরকারি 

ক্ষেত্রে অগ্রগতি ছাড়া রাজ্যের উন্নয়ন সম্ভব না। ফলে বিনিয়োগের গুরুত্ব দিতে হবে। 
তিনি আরো জানান গত ৪ বছরে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি হয়েছে। এবং ত্রিপুরা আগামী দিনে দেশের অর্থনীতিতে বড় ভূমিকা পালন করতে সক্ষম 

হবে। যদিও আর রাজ্য সরকারের দৃষ্টি ভঙ্গির উপর নির্ভর করে। 

 
 


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.