• ইভিএম বিভ্রাট নিয়ে কংগ্রেস তাক করলো বিজেপির দিকে
  • বিপ্লব কুমার দেবের সঙ্গে ফোনে কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী
  • দ্বিতীয়ার্ধে ভোট গ্রহণের অনিয়ম ঠেকাতে বিশেষ পর্যবেক্ষকের সঙ্গে বিজেপির বৈঠক
  • সবার মতাধিকার সুনিশ্চিত করলেন সিইও
  • ত্রিপুরায় ভোটে ভিলেন সাজলো ইভিএম
  • ১৮ ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচন
  • ১৮ ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচন
  • ১৮ ত্রিপুরা বিধানসভা নির্বাচন
  • চিরাচরিত পোষাকে ভোট দিলেন রিয়াং জাতিগোষ্ঠীর মহিলারা
  • শান্তিরবাজার দুটি বিধানসভা কেন্দ্রেই উৎসবের মেজাজে চলেছে ভোট গ্রহণ
  • রাজ্যের বিভিন্ন কেন্দ্রে উঠেছে ইভিএম নষ্টের অভিযোগ
  • ভোট দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার
  • আধাসামরিক বাহিনীর কড়া নজরদারীর মধ্য দিয়ে চলছে ভোটগ্রহণ
  • শান্তিরবাজারে ভোটগ্রহণ শুরু
  • বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে ইভিএম মেশিন খারাপ, পরে নতুন মেশিন এনে ভোট গ্রহণ শুরু
  • ১৮ বিধানসভায় ৫৯টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শুরু
  • তেলিয়ামুড়ায় মহিলা ভোটার দের মধ্যে চকলেট বিতরন
  • নির্বাচনের লক্ষ্যে পোলিং এজেন্টদের নির্দিষ্ট গন্তব্যস্থলের উদ্দেশ্যে রওনা

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

ত্রিপুরা খবর

00310
0057
0057
0057
0057
ত্রিপুরায় পরবর্তী সরকার বিজেপিরই হবে: অমিত শাহ

আগরতলা, ১২ই ফেব্রুয়ারি (এ.এন.ই ): ত্রিপুরার বিজেপি অবশ্যই ক্ষমতায় আসছে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন পার্টির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। 

রাজ্যে সিপিএইএম এর বিরুদ্ধে জনরোষ প্রকট হচ্ছে বলেও অভিমত ব্যক্ত করেছেন অমিত শাহ। 
সোমবার আগরতলায় এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, ২৫ বছর ধরে যে সরকার ক্ষমতায় রয়েছে তারা বিকাশের দৌরে অনেক পিছিয়ে গেছে। দেশের 

সব কয়টি রাজ্য গুলির মধ্যে এই রাজ্য পেছনে গিয়ে ঠেকেছে। যে সমস্ত রাজ্যে এনডিএ এর সরকার রয়েছে সেখানে ২৪ ঘণ্টা বিদ্যুৎ এবং পানীয় জলের 

প্রয়োজনীয় সংস্থান রয়েছে। ২৫ বছর কোন ব্যক্তি বা রাষ্ট্রের জীবনে কম গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নয়। কিন্তু এই সময়ে রাজ্যের আশানুরূপ কিছুই হয়নি। 
তিনি বলেন, বিপর্যয় আসন্ন সিপিআইএম এটা বুঝে গেছে। আর তাই এখন হিংসার রাজনীতিতে নেমেছে বামেরা। রামনগরের বুথ সভাপতি মধুসুধন দেকে 

অপহরণ করে নিয়ে ২ দিন আটকে রাখা হয়। পুলিশ মহানির্দেশক খুঁজে বের করার প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পর তার দেহ মিলল। তাকে হত্যা করে গাছে ঝুলিয়ে 

রাখা হয়। নির্বাচনী প্রক্রিয়ার প্রশাসনকেও কাজে লাগানো হচ্ছে। যদিও প্রশাসনের লোকেদের জানা দরকার তাদের নিরপেক্ষতা রাখা বিশেষ জরুরি। 
তিনি আরো বলেন, সিপিআইএম এর শাসনে বেকার সংখ্যা বেরে ৭লক্ষ ৩৩  হাজার হয়েছে। যখন তারা ক্ষমতায় এসেছিল তখন বেকার ছিল ৭৫ হাজার। 

এই সংখ্যা কি ভাবে এতটা বৃদ্ধি পেল তার কোন জবাব মানিক সরকারের কাছে নেই। কিন্তু এর পরিণাম ভোগ করতে হবে। 
তিনি উল্লেখ করেন রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় বাম সন্ত্রাস জারি আছে। কিন্তু এসব করে জনমতকে প্রভাবিত করা যাবেনা। পরিস্থিতি সিপিআইএম এর 

নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গেছে।  


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.