গণধোলাইয়ে গুরুতর আহত মালগাড়ির চালক, এলাকায় ঢহলরত নিরাপত্তা বাহিনী

LATEST UPDATE

গণধোলাইয়ে গুরুতর আহত মালগাড়ির চালক, এলাকায় ঢহলরত নিরাপত্তা বাহিনী

আগরতলা ২৪ জানুয়ারি (এ.এন.ই): মাধববাড়ির ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই ফের রাজ্যে ঘটল হিঃস্রাশ্রয়ী ঘটনা। ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছেন সুকান্ত সরকার (৩৬) নামে এক গাড়ির চালক। জানা গেছে, বর্তমানে জিবি হাসপাতালে তার চিকিৎসা চলছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, আহত চালকের শারীরিক অবস্থা মোটেও ভাল নয়। তার শরীরের আঘাত গুরুতর। তবে চিকিৎসক আশবাদী খুবই তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে উঠবেন সুকান্ত সরকার। জানা গেছে, আক্রান্ত চালকের চিকিৎসার ক্ষেত্রে বিশেষ টিম গঠন করা হয়েছে। সেই টিম সর্বক্ষণ সুকান্ত সরকারের শারীরিক অবস্থার উপর নজর রেখে চলেছেন। বৃহস্পতিবার সকালে সুকান্ত সরকারকে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন এখনো সুকান্তের শারীরিক অবস্থা তেমন কোন উন্নতি হয়নি, তবে তারা আশাবাদী খুব তাড়াতাড়ি সুকান্ত সরকার সুস্থ হয়ে উঠবেন। ঘটনার  বিবরণে জানা গেছে, বুধবার রাতে সুকান্ত সরকার মালগাড়ি নিয়ে মোহনপুরের শনিতলা থেকে বিভিন্ন সামগ্রী বোঝাই করে তিনি এসরাই-এ যান। এসরাই থেকে ফেরার সময়ে বড়কাঁঠাল বাজারের সেন্ট্রাল ব্যাঙ্ক সংলগ্ন স্থানে আসতেই একটি যাত্রীবাহী অটোর ড্রাইবারকে একটু সাইড দিতে বলে মালগাড়ির চালক সুকান্ত সরকার। সামান্য এই  কথা  নিয়ে সুকান্ত সরকারের সাথে তুমুল ঝগড়ায় মেতে উঠেন অটোর চালক। পরিস্থিতি ক্রমশ খারাপের দিকে যেতে থাকে। একটা সময়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতিও শুরু হয়ে যায়। আচমকা অটোর ড্রাইবারের সাথে আরো বেশ যুবক জুড়ে যায়। তারা সকলেই একত্রিত হয়ে বেদম প্রহার করতে থাকে সুকান্ত সরকারের উপর। তাদের মারধরে গুরুতর আহত হন সুকান্ত সরকার। পরিস্থিতি খারাপের দিকে যেতে দৌরে ছুটে আসে টিএসআরের জওয়ানরা। তারা এসে সুকান্ত সরকারকে উদ্ধার করতে উড়াবাড়ি টিএসআর ক্যাম্পে নিয়ে যায়। কিন্তু, উত্তেজিত জনতা সেই টিএসআর ক্যাম্পে গিয়ে হানা দেয়, উত্তেজিত জনতা টিএসআর ক্যাম্প ঘেরাও দেয়। উত্তেজনা আক্রমণ করতে পারে সেই আশংকায় তারা সাথে সাথে এসকট দিয়ে মোহনপুর হাসপাতালে নিয়ে যায় সুকান্ত সরকারকে। কিন্তু তার শারীরিক অবস্থা ভাল না দেখে সেখানের চিকিৎসকরা জিবি হাসপাতালে রেফার করে দেয় সুকান্ত সরকারকে। সঙ্গে সঙ্গে জিবি হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়  সুকান্ত সরকার। বর্তমানে তার চিকিৎসা চলছে জিবি হাসপাতালে। জানা গেছে, এখনো ঐ এলাকায় পুলিশ ও টিএসআর বাহানীর টহলদারি চলছে।  

আরো পড়ুন

Advertisement