গৃহবধূর মৃত্যুর নিয়ে ধোঁয়াশা

LATEST UPDATE

গৃহবধূর মৃত্যুর নিয়ে ধোঁয়াশা

আগরতলা ১৩ ফেব্রুয়ারি (এ.এন.ই): গৃহবধূর মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে পুলিশ এখনো দ্বন্দ্বে রয়েছেন এটা কি খুন না আত্মহত্যা। যদিও এলাকাবাসীরা কিছুতেই ঘটনাটিকে আত্মহত্যা  বলতে নারাজ। তাদের মতে এটি একটি পরিকল্পিত খুন। তবে মৃতার শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বক্তব্য এটি একটি  আত্মহত্যা। যদিও মৃতার শ্বশুরবাড়ির লোকেরা আত্মহত্যার পেছনে কোন যুক্তি সঙ্গত কারণ দেখাতে পারেননি। যার দরুন সকলের মনে আরও বেশী 'করে সন্দেহ জাগে। এলাকাবাসীদের মতে ঘরে স্বামী, সন্তান থাকা স্বত্বতেও কি করে গৃহবধূ আত্মহত্যা করে। এদিকে পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমেছেন। জানা গেছে, ইতিমধ্যে পুলিশ মহিলার পরিবারের  লোকজন ও এলাকাবাসীদের প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞেসাবাদ করেছেন। প্রাথমিক  তদন্তের ভিত্তিতে পুলিশ জানিয়েছে, স্বামীর সাথে অশান্তির কারণেই মহিলার মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, তারা তদন্ত শুরু করে দিয়েছে  অতিসত্বর মহিলার মৃত্যুর ;কারণ খুঁজে বের করবে। ঘটনার বিবরণে জানা গেছে, মঙ্গলবার সিমনা শশানটিলা গ্রামের গৃহবধূ তথা অঙ্গনওয়ারি কেন্দ্রের ৩০ বছর বয়সী শিক্ষিকা খুকু রানি মজুমদারের  রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হয়। জানা গেছে, নিজের ঘরে মহিলাকে ফাঁসিতে ঝুলে থাকতে দেখা যায়। অবাক করার বিষয় পুলিশ আসার আগেই 'পরিবারের লোকেরা ফাঁসির দড়ি খুলে মৃতদেহ নিচে নামিয়ে আনে। পরে পুলিশ এসে মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়। যদি বিষয়টিকে এলাকাবাসীরা আত্মহত্যা বলে মেনে নিতে পারেনি। তাদের ;ধারনা এটি একটি পরিকল্পিত খুন। জানা  গেছে, মহিলার দুটি সন্তান আছে। স্বামী একটি ইটভাট্টায় ম্যানেজারের কাজ করেন। জানা গেছে, এলাকাবাসীদের দাবী  অতিসত্বর মহিলার মৃত্যুর সাথে জড়িতদের পুলিশ গ্রেপ্তার করে এবং পুলিশকে নিরপেক্ষ ভাবে তদন্ত  করতে  অনুরোধ জানানো হয়েছে। জানা গেছে, শিক্ষিকার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।      

আরো পড়ুন

Advertisement