হবু শ্বশুর বাড়িতে রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু হল হবু বধূর, তদন্তে পুলিশ

LATEST UPDATE

হবু শ্বশুর বাড়িতে রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু হল হবু বধূর, তদন্তে পুলিশ

আগরতলা ২১ ফেব্রুয়ারি  (এ.এন.ই): হবু শ্বশুর বাড়িতে রহস্যজনক ভাবে মৃত্যু হল 'হবু বধূর। শ্বশুর বাড়ির লোকেরা জানায় অ্যাসিড পান করে আত্মহত্যা করে  ১৮ বছরের হবু বধূ কমলাদেবী জামাতিয়া। কিন্তু মেয়ে আত্মহত্যা করতে পারে একথা কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছেননা মৃতা কমলাদেবী জামাতিয়ার পিতা মঙ্গল কিশোর জামাতিয়া। বাড়ি অমরপুরের লালঝুড়িতে। জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকালে তিনি তার মেয়ের হবু শ্বশুর বাড়ির লোকজনদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন। পুলিস সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্তে নেমেছে বলে জানা গেছে। পুলিশ কমলাদেবী জামাতিয়ার হবু শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে বাড়ির লোকজনদের জিজ্ঞেসাবাদ করছে। পুলিশ জানিয়েছে, অতিসত্বর এই ঘটনার আসল সত্য বেরিয়ে আসবে। এদিকে এলাকাবাসী মনে করছেন ঘটনার পেছনে নিশ্চয়ই কোনও রহস্য লুকিয়ে আছে। তাদের মতে এটা আত্মহত্যা নয়, খুন। পরিকল্পিত ভাবে মেয়েটিকে হত্যা করেছে মেয়েটির হবু শ্বশুর বাড়ির লোকেরা বলে এলাকাবাসীদের ধারণা। 

জানা গেছে, উপজাতিদের নিয়ম অনুযায়ী মঙ্গলবার রাতে মেয়েকে হবু শ্বশুর বাড়িতে পাঠিয়েছিলেন, কমলাদেবী জামাতিয়ার বাবা-মা। কিন্তু বুধবার সকালে আচমকা  মেয়ের অসুস্থতার সংবাদ শুনতে গোমতী জেলা হাসপাতালে দৌরে ছুটে যান কমলাদেবী জামাতিয়ার মা-বাবা। হাসপাতালে গিয়ে দেখেন মেয়ে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে। কিছু ক্ষণের মধ্যে কমলাদেবী জামাতিয়া মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন। এই ঘটনায় মেয়ের মা-বাবা সহ চিকিৎসরাও অবাক হয়ে যান। কারণ যে মেয়েটির আগামী ২৩ ফাল্গুন বিয়ে হওয়ার কথা ছিল তারই রহস্যজনকভাবে মৃত্যু হয়েছে হবু শ্বশুর বাড়িতে। জানা গেছে, মেয়েটির হবু স্বামী বিরাজবাসী জামাতিয়া বর্তমানে কর্মসূত্রে ব্যাঙ্গালোরে রয়েছে।   

আরো পড়ুন

Advertisement