৩৭তম বইমেলার সমাপ্তি হল বৃহস্পতিবার
৩৭তম বইমেলার সমাপ্তি হল বৃহস্পতিবার
আগরতলা ২৮ ফেব্রুয়ারি (এ.এন.ই): ১৪ দিন ব্যাপী ৩৭তম বইমেলার বৃহস্পতিবার সমাপ্তি হল। সমাপ্তি সন্ধ্যায় সন্মাননা জ্ঞাপন সমারোহ, পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। উল্লেখ্য এবছর বইমেলা ১২ দিনের জায়গায় ১৪ দিন করা হয়েছে। পূর্ব ঘোষিত তারিখ অনুযায়ী ২৬ ফেব্রুয়ারি বইমেলা শেষ হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পরবর্তী সময়ে বইমেলার সময় সীমা আরও দুদিন বাড়ানো হয়েছে। অর্থাৎ ২৬ শে জায়গায় ২৮ তারিখ শেষ হল বইমেলা। সমাপ্তি অনুষ্ঠানে 'উপস্থিত ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব, উপমুখ্যমন্ত্রী যিষ্ণু দেববর্মণ, স্বাস্থ্যমন্ত্রী সুদীপ রায় বর্মণ, পর্যটনমন্ত্রী প্রণজিৎ সিংহ রায়, বনমন্ত্রী মেবার কুমার জামাতিয়া, সমাজ কল্যাণমন্ত্রী সান্ত্বনা চাকমা, আগরতলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি সুবল কুমার দে, মুখ্যসচিব এল কে গুপ্তা, জেলা শাসক সন্দীপ মহাত্মে এবং অন্যান্য অতিথি বৃন্দরা। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অরুণোদয় সাহা। জানা গেছে, বইমেলার সমাপ্তি অনুষ্ঠানে এবছর চালু হওয়া অটল বিহারী আজীবন স্মৃতি পুরস্কার পান থাঙ্গা ডালং। তাছাড়া দীনদয়াল উপাধ্যায় সংহতি পুরস্কার পেয়েছেন ডঃ প্রভাস চন্দ্র ধর, কালীকিঙ্কর দেববর্মণ স্মৃতি পুরস্কার পেয়েছেন বিদ্যা সিংহ, ধীরেন্দ্র কৃষ্ণ দেববর্মণ স্মৃতি পুরস্কার পেয়েছেন অপরেশ পাল, কবি সুকান্ত স্মৃতি পুরস্কার পেয়েছেন প্রবুদ্ধ সুন্দর কর। বই মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে পুরস্কার পেয়েছেন শচিন দেববর্মণ পুরস্কার গিরিন্দ্র মজুমদার, ভীষ্মদেব পুরস্কার পেয়েছেন নন্দ কুমার দেববর্মা, লালন পুরস্কার পেয়েছেন বৈজয়ন্তী রিয়াং, ত্রিপুরেশ মজুমদার পুরস্কার পেয়েছেন বিশ্ববন্ধু সেন, রাধামোহন ঠাকুর পুরস্কার  পেয়েছেন স্রোত প্রকাশনী ও শ্রেষ্ঠ প্রকাশনা মনিপুরী সাহিত্য পরিষদ। জানা গেছে, বইমেলার সমাপ্তি সন্ধ্যায় রাজ্যের বিভিন্ন নামি দামী শিল্পীরা নাচ, গান ও আবৃতি 

পরিবেশন করে।   

পরিবেশন করে।   

আরো পড়ুন

Advertisement