LATEST UPDATE

ত্রিপুরা আজ দেশের পরিবর্তনের প্রতিকঃ প্রধানমন্ত্রী

আগরতলা ৭ এপ্রিল (এ.এন.ই): ত্রিপুরা আজ দেশের পরিবর্তনের প্রতীক। চৌকিদার আজ আপনাদের আশীর্বাদের কারণেই বড় বড় সিদ্ধান্ত নিতে পারছে। এই চৌকিদার আপনাদের উপর সম্পূর্ণভাবে বিশ্বাস করে। আর সেজন্যই বড় বড় সিদ্ধান্ত গুলি নিচ্ছে। লোকসভা নির্বাচনী প্রচারে উদয়পুরে জনসভায় একথা গুলি বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি বলেন, ত্রিপুরা এবং কেরলে কংগ্রেসের ভিন্ন রকম চেহারা। তিনি বলেন, চৌকিদার দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে। দিনরাত কাজ করে যাচ্ছে। সততার পথ গ্রহণ করে কাজ 'করে যাচ্ছে। ভাষণে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, উত্তর পূর্বাঞ্চলের রাজ্য গুলির জন্য যে সব কাজ পূর্বতন কেন্দ্রীয় সরকারের করার কথা ছিল তা তারা কিছুই করেনি। কিন্তু বিজেপি সরকার  উত্তর পূর্বাঞ্চল রাজ্য গুলির উন্নতির জন্য দিনরাত কাজ করে যাচ্ছে। ''বেটি বাচাও বেটি পড়াও'' এই ক্ষেত্রটিতে কেন্দ্র সরকার বিশেষ নজর দিচ্ছে এবং আগামী দিনেও বিজেপি 'সরকার এবিষয়ে আরও গুরুত্ব দেবে। যাতে দেশে মেয়েদের শিক্ষার হার আরও বেড়ে যায়। প্রধানমন্ত্রী 'বলেন, অসংগঠিত ক্ষেত্রে একটি নির্দিষ্ট বয়সের ব্যক্তিদের বিশেষ ভাতার সুযোগ দেওয়া 'হচ্ছে। আর এক্ষেত্রে ত্রিপুরা সরকার কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলে ত্রিপুরা সরকার প্রচুর লোকেদের এই সুবিধার আওতাধীন করতে পেরেছে যা খুবই প্রশংসনীয়। তিনি বলেন, বাম দলগুলো নিজেদের স্বার্থ ছাড়া আর কিছুই বোঝে না। তাদের কাছে নিজেদের স্বার্থটাই বড়। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাম দল গুলি যখন ক্ষমতায় থাকে তখন দুর্নীতি স্বেচ্ছাচারিতার সমস্ত সীমা অতিক্রম করে থাকে। কিন্তু, ত্রিপুরায় বিজেপি সরকার আসার পর গরিব মানুষ ঘর পাচ্ছে। রান্নার গ্যাসের কানেকশন পাচ্ছে। তাছাড়া আয়ুষ্মান প্রকল্পের সুবিধা পাচ্ছে রাজ্যের মানুষ। বর্তমানে বিজেপি সরকারের লক্ষ্য ত্রিপুরায় গড়ে পাঁচ লাখ কৃষকদেরকে ব্যাঙ্ক একাউন্টে সাড়ে তিনশো কোটি টাকা পৌঁছানো। ইতিমধ্যেই দেড় লক্ষ কৃষক এই সুবিধা পেয়ে গেছে বলে প্রধানমন্ত্রী জানান। তিনি বলেন, আমি হিরা দেওয়া প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম। গত এক বছরে এই প্রতিশ্রুতির কাজ অনেকটাই হয়ে গেছে। রাজ্যে রেলপথ, সড়কপথ সহ যোগাযোগ ব্যবস্থা ব্যাপক উন্নতি ঘটেছে। আগামীদিনে আরও উন্নতি হবে বলে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী জানান। 

আরো পড়ুন

Advertisement