জোলাইবাড়িতে উপপ্রধানকে দল থেকে বহিষ্কার করার প্রতিবাদে এলাকাবাসীদের পথ অবরোধ

LATEST UPDATE

জোলাইবাড়িতে উপপ্রধানকে দল থেকে বহিষ্কার করার প্রতিবাদে এলাকাবাসীদের পথ অবরোধ

আগরতলা ৮ এপ্রিল (এ.এন.ই): উত্তর জোলাইবাড়ী গ্রামপঞ্চায়েতের উপপ্রধানকে দল থেকে বহিষ্কার ও সুনীল দেবনাথের উপর আক্রমণকারীর প্রকৃত দোষীর শাস্তির দাবিতে জাতীয় সড়ক অবরোধ করলো এলাকাবাসী। 


ঘটনার বিবরণে জানা যায় শান্তির বাজার মহকুমার অন্তর্গত পশ্চিম কাকুলিয়ার বাসিন্দা সুনীল দেবনাথের উপর আক্রমণ করেন ঐ এলাকারই বাম সমর্থিত দুই যুবক।  এই দুই যুবক নাম হলো সুমন নম: ও স্বপন নম:। এলাকাবাসীদের অভিযোগ এই দুই যুবককে পিছন থেকে ইন্ধন দিয়েছে উত্তর জোলাইবাড়ী গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান তপন দত্ত।  এই দুই যুবকের আক্রমণে গুরুতর আহত হয় সুনীল দেবনাথ। সুনীল দেবনাথ বর্তমানে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে বলে জানা যায়। বর্তমানে সুনীল দেবনাথ গুরুতর আহত অবস্থায় আগরতলা জিবি হাসপাতলে আইসিউতে রয়েছে বলে জানায় এলাকা বাসী।  এদিকে এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে পশ্চিম কাকুলিয়ার এলাকাবাসীরা দোষীর প্রকৃত শাস্তির দাবিতে বাইখোড়া থানায় এক লিখিত অভিযোগ জানান।  অবশেষে সোমবার সকাল সকাল আনুমানিক ১০ টা ১০ মিনিট নাগাদ জোলাইবাড়ী ব্লক সংলগ্ন এলাকায় আগরতলা সাব্রুম জাতীয় সড়ক অবরোধে বসেন এলাকাবাসী।  এলাকাবাসীর মুখে একটাই শ্লোগান উপপ্রধানকে দল থেকে বহিষ্কার করা ও দুই আসামীর উপযুক্ত শাস্তি প্রদান।  ঘটনার বিবরণ জানিয়ে এলাকাবাসী সংবাদমাধ্যমকে জানান এই আক্রমণের কথা ৩৮ জোলাইবাড়ী মণ্ডল প্রেসিডেন্ট তাপস দত্তকে জানিয়ে কাজের কাজ কিছুই হয়নি।  অবশেষে হতাশাগ্রস্ত হয়ে এলাকাবাসী পথ অবরোধে বসেন।  রবিবার আহত ব্যক্তিকে দেখার জন্য  জিবি হাসপাতালে ছুটে যান জোলাইবাড়ী এগ্রিস্টেন্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান বিকাশ বৈদ্য ও বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদিকা প্রতিমা ভৌমিক।  অবরোধের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান শান্তির বাজার মহকুমা শাসক লালনি থুমা ডারলং, শান্তির বাজার পুলিশের এস ডি পি ও নির্দেশ দেব, বাইখোড়া থানার এস আই সুমন সিংহ ও অন্যান্য আধিকারিকগন।  অবশেষে দীর্ঘ ৪৫ মিনিট পর এস আই সুমন সিংহের প্রতিশ্রুতিতে জাতীয় সড়ক অবরোধমুক্ত হয়।  অবরোধ শেষে এস ডি পি ও নির্দেশ দেব জানান, এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।  আগামী কিছু সময়ের মধ্যে অপর একজনকে গ্রেপ্তার করা হবে জানান এস ডি পি ও নির্দেশ দেব। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আসামী গ্রেপ্তার না হলে গ্রামবাসী আরও বৃহত্তর আন্দোলনে যাবেন ও আসন্ন নির্বাচনে ভোট বয়কট করবে বলে সংবাদ মাধ্যমের সামনে জানিয়েছেন এলাকাবাসীরা। এখন দেখার বিষয় এস ডি পি ও নির্দেশ দেবের দেওয়া প্রতিশ্রুতি কতটুকু কার্যকর হয়। 


আরো পড়ুন

Advertisement