24.54 C
Clouds



এই খবরের কোনো ভিডিও নেই |

অমিত সাহ'র কথায় ত্রিপুরায় তৃনমূলের উপর আক্রমনঃ মমতা

দেশ



Aug. 9, 2021, 1:34 p.m.

আগরতলা, ০৯/০৮/২০২১ (এ.এন.ই  প্রতিনিধি):- গত দুদিনে রাজ্য রাজনীতির পারদ ঊর্ধ্বমুখী। শনিবার আমবাসায় তৃনমূল কর্মীদের উপর আক্রমণের পর রাজ্য রাজনীতি উত্তপ্ত হয়ে উঠে। দেবাংশু, জয়া, সুদীপ আক্রান্ত হওয়ার পর রাতভর খোয়াই থানায় আটকে রাখা হয় তাদের। রবিবার কলকাতা থেকে উরে আসে কুণাল ঘুষ, ব্রাত্য বসু, দোলা সেনরা। পরে আসেন তৃনমূলের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। রবিবার দিনভর খোয়াইতে চলে রাজনৈতিক তর্জা। অবশেষে দিনভর থানা আদালত করে দেবাংশু ভট্টাচার্য, জয়া দত্ত, সুদীপ রাহাদের মুক্ত করেই ত্রিপুরা ছাড়েন অভিষেক। 

 

 

বাংলা জয়ের পর ত্রিপুরাকে পাখির চোখ করেছে তৃণমূল। কিন্তু এর আগে পর্যন্ত ত্রিপুরা নিয়ে তেমন মুখ খোলেননি তৃণমূল নেত্রী। তবে, ত্রিপুরায় তৃণমূল যুব নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহাদের আক্রান্ত হওয়া ও গ্রেফতারির ঘটনা নিয়ে এবার সরাসরি আসরে নামলেন মমতা। ত্রিপুরা কাণ্ডে এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নিশানায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। আগরতলা থেকে ফিরে এদিন দেবাংশু ভট্টাচার্য, সুদীপ রাহা, জয়া দত্তদের ভর্তি করা হয় এসএসকেএম হাসপাতালে। সেখানে তাদের দেখতে গিয়ে মমতা বুঝিয়ে দিলেন, ত্রিপুরাই এবার তাঁর পাখির চোখ। সেখানেই তিনি বিজেপিকে আক্রমণ শানিয়ে বলেন, 'ত্রিপুরা আমাদের লোকেদের উপর নির্লজ্জ হামলা চালিয়েছে বিজেপি। সেখানে দানবীয় সরকার চালাচ্ছে বিজেপি। আমাদের কর্মীদের মারধর করে গ্রেফতার করেছে। পুলিশের সামনেই সব হয়েছে। সারাদিনে আমাদের কাউকে এক গ্লাস জল পর্যন্ত দেওয়া হয়নি। তিনি আরও বলেন, 'যেভাবে আক্রমণ হয়েছে, তাও আবার পুলিশের সামনে। ৩৬ ঘণ্টা কোনও চিকিৎসা করেনি, জলও দেয়নি। এটা সম্পূর্ণ হয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে, নাহলে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রীর এত সাহস হতে পারে না।' 

 

 

যদিও রাজ্য বিজেপি তৃনমূলের এই সব অভিযোগ মানতে নারাজ। তারা উলটো তৃনমূলকে দশ দিছেন। শান্ত ত্রিপুরাকে তৃনমূল সশান্ত করতে কলকাতা থেকে গুন্ডা পাঠিয়েছে বলে অভিযোগ করে রাজ্য বিজেপি। অভিযোগ পাল্টা অভিযোগে জমে উঠেছে বর্তমানে রাজ্য রাজনীতি। দুই দলই বুজিয়ে দিছেন কেও কাওকে এক ফুটা জমিও ছেরে দেবেনে। আগামী দিনে রাজ্য রাজনীতি কোনদিকে মোড় নেয় সেটাই দেখার বিষয়।




পক্ককপাতিত্ব নয়, সোজা সাপ্টা খবর |

© Copyright, 2021 Agartala News Express. All Rights Reserved. Developed and Maintained by Chevichef Private Limited.

Images published in the Image Gallery are subjected to Copyright of the photographer under The Copyright Act, 1957 of the Republic of India. Any unauthorized use of any image is prohibited.