24.54 C
Clouds



এই খবরের কোনো ভিডিও নেই |

ত্রিপুরায় অনুষ্ঠিত হল আন্তর্জাতিক মানের চলচ্চিত্র উৎসব - "রং মুকুট"

বিনোদন



Aug. 25, 2021, 4:42 p.m.

বিগত কয়েক মাস ধরে, এমনকি অতিমাড়ির সময়েও আঞ্চলিক ফিল্ম-ইন্ডাস্ট্রি নতুন করে নিজেকে তৈরী করেছে এবং এক অভূতপূর্ব অবস্থার মধ্যে দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। এই প্রবণতাকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে চলতে ত্রিপুরায় আয়োজিত হলো একটি আন্তর্জাতিক মানের চলচ্চিত্র উৎসব - যেটার নাম "রং মুকুট"। এই ফেস্টিভ্যাল শুধুমাত্র আঞ্চলিক সিনেমা উৎসাহীদের উদ্দীপিত করেনি, এটা আমাদের ডিজিটাল স্পেসকে আরও গৌরবান্বিত করেছে। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে সিনেমা-প্রেম, সংস্কৃতি এবং স্বাধীন সত্তা-বিশিষ্ট চলচ্চিত্রায়ন কে এগিয়ে নিয়ে চলার এক ভিন্ন প্রয়াস। 'রং মুকুট' - তার প্রথম প্রচেষ্টায় প্রমাণ করেছে যে কিভাবে এই অল্প সময়ে বিশ্বজনীন যোগদান সুনিশ্চিত করা যায়.. যেখানে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের নিজস্ব কণ্ঠস্বর অনুরণিত হয়েছে এক ভিন্ন মাত্রায়। 

যদিও এই চলচ্চিত্র উৎসবে ৮০ টিরও বেশি ছবি জমা পড়েছিল, বাছাইয়ের কারণে বেশ কিছু চলচ্চিত্র উদ্যোক্তারা স্ক্রিনিং করতে পারেনি। তবুও ৫০ টিরও বেশী ছবি এই সাত-দিনব্যাপী চলচ্চিত্র উৎসবে দর্শকের চিত্ত জয় করেছে। প্রায় ৭০ হাজার দর্শক এই অনলাইন চলচ্চিত্র উৎসবে পরিচিত হয়েছেন নতুন দৃষ্টিভঙ্গি এবং নতুন আঙ্গিকে দেখা চলচ্চিত্রায়নের এক ভিন্ন মাত্রার। পৃথিবীর ১৮০ টি দেশের দর্শক এবং চলচ্চিত্র প্রেমী, তৈরি করেছে এই উৎসবের এক সর্ববৃহৎ ক্যানভাস। এই উৎসবের একটি বিশেষ উল্লেখযোগ্য দিক হচ্ছে একটা ভার্চুয়াল কণ্ঠ যেখানে অংশগ্রহণ করেছেন পৃথিবীর খ্যাতনামা ফিল্ম-মেকাররা - "ইউভাল হাদাদি", "রিজুল বর", "খাঞ্জন নাথ", "তাল শেফি" প্রমুখ। 

এর আগের পাওনা ছিল ফেস্টিভ্যাল ডিরেক্টরের উদ্যোগে - চলচ্চিত্র জগতের খ্যাতনামা শিল্পীদের সঙ্গে অত্যন্ত মর্মস্পর্শী এবং তথ্যপূর্ণ আলোচনা। নব-প্রজন্মের চলচ্চিত্র প্রেমীদের উদ্দীপ্ত করেছে বলেই উদ্যোক্তারা দাবি করেছেন। বলিউড শিল্পী 'গুলশান দেবাইয়া' এবং খ্যাতনামা সংগীত শিল্পী 'অভয় যোধপূর্কর' দর্শকদের কাছে পৌঁছে দিয়েছেন তাদের মনোগ্রাহী যাত্রাপথের খুঁটিনাটি বিষয়, যা তাদের নিয়ে গেছে সাফল্যের অভিমুখে। ২০ থেকে ৩০ জুলাই পর্যন্ত অনুষ্ঠিত এই চলচ্চিত্র উৎসব মূলত ৭ টি বিভিন্ন বিভাগের ছবি দেখানোর চেষ্টা করেছে। ৪ আগস্ট ২০২১ -এ প্রাপ্ত ফলাফলে শ্রেষ্ঠতার নিরিখে যে ছবিগুলি কে বিভিন্ন বিভাগে বাছা হয়েছে সেগুলি হচ্ছে -

⌘ সেরা সিনেমাটোগ্রাফি পুরস্কার: বুদ্ধদেব বর্মণ - (লাছকা ডাঙ্গীর কাথা)

⌘ সেরা সম্পাদকের পুরস্কার: বীজু দাস - (হাইওয়েস অব লাইফ)

⌘ সেরা পরিচালকের পুরস্কার: জয়দীপ দাস - (ইনফিনিটি কমপ্লেক্স)

⌘ সেরা ব্যাকগ্রাউন্ড স্কোর পুরস্কার: জনার্দন পাটোয়ারী - (সরাপাত)

⌘ সেরা চিত্রনাট্য পুরস্কার: চঞ্চল থাপা - (মাটোকো পীডা)

⌘ সেরা মিউজিক ভিডিও: নষ্টনীড় - (সোমনাথ ভৌমিক ও নভোজ্যতি ভারতী)

⌘ সেরা শিল্প নির্দেশনা: ডেস অব সামার (Days of Summer)

⌘ সেরা অভিনেতার পুরস্কার: সঞ্জয় কুমার ঘোষ - (পাঠশালা)

⌘ সেরা চলচ্চিত্র [কিউরেটরের পছন্দ]: লুক এট দা স্কাই - (অশোক ভেইলৌ)

⌘ সেরা চলচ্চিত্র পুরস্কার [দর্শকের পছন্দ]: তারপর - (দ্বৈপায়ন বসু)

 

ফেস্টিভ্যাল ডিরেক্টর সিদ্ধার্থ শংকর সামগ্রিকভাবে তার বক্তব্যে বলেন - "এই চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্দেশ্য হচ্ছে নতুন শিল্পীদের উন্নয়ন এবং ফিল্ম মেকিংয়ের যে সংস্কৃতি এই অঞ্চলে বিরাজমান রয়েছে, তাকে উৎসাহ দেওয়া। আমরা আশাবাদী যে অচিরেই এই ধরনের উৎসব এই অঞ্চলে আরও অনেক হবে এবং আমরা প্রতি বছর এই উৎসবের মাধ্যমে নতুন নতুন দিগন্তের উন্মোচন করবো।"




পক্ককপাতিত্ব নয়, সোজা সাপ্টা খবর |

© Copyright, 2021 Agartala News Express. All Rights Reserved. Developed and Maintained by Chevichef Private Limited.

Images published in the Image Gallery are subjected to Copyright of the photographer under The Copyright Act, 1957 of the Republic of India. Any unauthorized use of any image is prohibited.