• ম্যালেরিয়ার মারণ থাবা গোটা ধলাই জেলায়, মৃত ৩
  • শিক্ষকের বরখাস্তের প্রতিবাদে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্কুল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিলো ছাত্র ছাত্রীরা
  • স্বচ্ছ গ্রামের শিরোপা পেতে চলেছে নিদয়া গ্রাম
  • ভারত বাচাও ইস্যুতে কংগ্রেসের রাজভবন অভিযান
  • রাজ্যের তরুণ সাংবাদিক শান্তনু ভৌমিকের আজ প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী
  • আমবাসায় গাড়ি থেকে ৮১ কেজি গাঁজা উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৪
  • রাজ্যের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাৎ করলেন মুখ্যমন্ত্রী
  • কৈলাশহর রামকৃষ্ণ মহাবিদ্যালয়ের ছাত্র সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেপ্তার ১
  • লড়ির ধাক্কায় ভবঘুরে মহিলার মৃত্যু
  • মা আসছে, চলছে জোরকদমে প্রস্তুতি
  • পুজোতে ৩ লক্ষের উপর পরিবারকে কাজের ঘোষনা উপমুখ্যমন্ত্রীর
  • শিলাছড়িতে কৃষি দফতরের অফিস উদ্বোধনকে ঘিরে ধুন্ধুমার কাণ্ড, আহত ৮
  • রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের খুব শীঘ্রই সপ্তম বেতন কমিশন দেওয়া হবে: মুখ্যমন্ত্রী
  • আইজিএম হাসপাতালে রক্ত বিক্রি করতে গিয়ে ধৃত যুবক
  • তিনদিনের সফরে রাজ্যে এলেন পলিটব্যুরোর সদস্যা বৃন্দা কারাত
  • গ্রামীণ অর্থনীতি ভেঙে পরেছে তা পুনরুদ্ধার করতে গাঁজা চাষ যুক্ত জমি গুলিতে মাষকলাই চাষ করা হবে: প্রাণজিৎ সিং রায়
  • বিনা টেন্ডারে কাজের নির্দেশের বিষয়টির প্রাক্তন কংগ্রেস বিধায়কের মন্তব্য সম্পূর্ণ অসত্য: রতন চক্রবর্তী
  • ৬ মাসে ৫০ হাজার গাঁজা উদ্ধার, মুখ্যমন্ত্রীর প্রাণনাশের হুমকি, উদ্বিগ্ন কেন্দ্র ও রাজ্য: প্রতিমা ভৌমিক
  • বুধবার থেকে শুরু হয়েছে রিয়াং শরণার্থীদের প্রত্যাবর্তন
  • ঘিলাতলীর ছনখলার জঙ্গল থেকে দুটি মৃতদেহ উদ্ধার
  • কৈলাসহর রামকৃষ্ণ মহাবিদ্যালয়ে ছাত্র সংঘর্ষ, আহত ৪
  • যোগেন্দ্রনগর রেল স্টেশন থেকে বিলেতি মদ সহ গ্রেপ্তার ১
  • শিক্ষক বদলির দাবিতে বিদ্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে ক্লাস বয়কট স্কুল পড়ুয়াদের
  • শিক্ষক বদলির দাবিতে বিদ্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে ক্লাস বয়কট স্কুল পড়ুয়াদের
  • তেলুয়ামুড়ায় স্বেচ্ছায় রক্তদান এবং এইডস সচেতনতা শিবির অনুষ্ঠিত

ইক্সক্লোসিভ ভিডিও

ঘরেই বানিয়ে নিন লাইটিং লেন্টার্ন

ত্বকের উজ্বলতার জন্য ২০টি টিপস

ডেনমার্কে তৈরি হচ্ছে বিশ্বের প্রথম লম্বা ডিম! দেখুন কীভাবে লম্বা ডিম পাড়ে মুরগী

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

বিজ্ঞাপণ ব্যানার

স্বাস্থ্য

00310
0057
0057
0057
0057
আপেল খাওয়ার ৯টি স্বাস্থ্য উপকারিতা জেনে নিন

১৬ এপ্রিল (এ.এন.ই ): কথিত আছে, নিয়মিত আপেল খেলে নাকি ডাক্তারের কাছে যেতে হয় না। আপেল একটি সুস্বাদু ফল। আপেল খেলে পেটও ভরে বলে হালকা নাস্তা হিসেবে আপেলের জুড়ি নেই। চোখ ধাঁধানো রঙ এর কারণে ছোটরাও বেশ পছন্দ করেই খায় এই ফলটি। আসুন জেনে নেয়া যাক প্রতিদিন আপেল খাওয়ার ৯টি স্বাস্থ্য উপকারিতা- ১.সাদা ঝকঝকে দাঁত আপেল খেলে দাঁতের দারুণ উপকার হয়। তার কারণ, আপেলে কামড় দিয়ে যখন আমরা চিবোতে শুরু করিই, তখন আমাদের মুখের ভিতর লালার সৃষ্টি হয়। এই পদ্ধতিতে দাঁতের কোণা থেকে ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া বেরিয়ে আসে। এর ফলে সেই ব্যাকটেরিয়া আর দাঁতের কোনও ক্ষতি করতে পারেনা। তাই বলে, শুধু আপেল খেয়ে দাঁতের যত্ন নিতে যাবেন না যেন! মনে করে, পেস্ট ব্রাশ ব্যবহার করে দাঁতের যত্ন নেবেন। ২.ক্যান্সার দূর করে: আমেরিকান অ্যাসোসিয়েশন ফর ক্যান্সার রিসার্চ-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আপেল খেলে অগ্ন্যাশয়ে ক্যান্সারের সম্ভাবনা প্রায় ২৩% হারে কমে। কারণ আপেলের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ফ্ল্যাভোনল থাকে। এছাড়াও কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকেরা আপেলের মধ্যে এমন কিছু উপাদানের সন্ধান পেয়েছেন, যা ট্রিটারপেনয়েডস নামে পরিচিত। এই উপাদানটি লিভার, স্তন এবং কোলোনের মধ্যে ক্যান্সারের কোষ বেড়ে উঠতে বাঁধা দেয়। ন্যাশানাল ক্যান্সার ইন্সটিটিউট ইন দ্য ইউ এস- এর গবেষণা থেকে জানা যায় যে, আপেলের মধ্যে যে পরিমাণে ফাইবার থাকে, তা মলাশয়ের ক্যান্সার রোধে সাহায্য করে। ৩.ডায়াবেটিসের সমস্যা কমায় যে সকল মেয়েরা প্রতিদিন আপেল খান, তাদের ডায়াবেটিস হওয়ার সম্ভাবনা ২৮% কমে যায়। তার কারণ, আপেলের মধ্যে যে ফাইবার থাকে, তা রক্তে শর্করার পরিমাণ সঠিক রাখতে সাহায্য করে। ৪.কোলেস্টেরল কমায় আপেলের মধ্যে যে ফাইবার থাকে, তা অন্ত্রের ফ্যাট কমাতে সাহায্য করে। যার ফলে কোলেস্টেরলের মাত্রা সঠিক থাকে। আর একবার শরীরে খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমতে শুরু করলে হার্টের কোনও ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা কমে। ৫.হার্ট ভালো রাখে আগেই বলা হয়েছে যে, আপেলের মধ্যে যে ফাইবার থাকে, তা কোলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও, আপেলের খোসার মধ্যে যে ফেনলিক উপাদান থাকে, তা রক্তনালিকার থেকে কোলেস্টেরল দূর করতে সাহায্য করে। এর ফলে হার্টে রক্তচলাচলা স্বাভাবিক থাকতে। ফলে হৃদযন্ত্রের কোনও ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা কমে। ৬.গলস্টোন সারাতে সাহায্য করে পিত্তথলির মধ্যে অতি পরিমাণে কোলেস্টেরল জমে গেলে তখন গলস্টোন হয়। গলস্টোন কমানোর জন্য ডাক্তাররা সব সময় ফাইবার সমৃদ্ধ ফল বা খাদ্য খাওয়ার উপদেশ দেন। সেই সঙ্গে গলস্টোন সারাতে ওজন এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা কমানোর পরামর্শ দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত, এই সবকটি কাজ যাতে ঠিক মতো হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে আপেলের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। ৭.ডায়ারিয়া এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে আপনি কি সারাদিনে বারে বারে বাথরুমেই যেতে থাকেন? কোনও কিছু খেলেই বাথরুমে দৌড়াতে হয়? আবার এমনও কি হয়, যখন বাথরুমে গেলেন তখন দীর্ঘক্ষণ বসে থাকতে হয়? অথচ কিছুতেই পেট পরিষ্কার হয় না। তাহলে এই দুই সমস্যারই একটাই ওষুধ। তা হল, আপেল, যা প্রয়োজন অনুযায়ী বর্জ্য থেকে অতিরিক্ত জল টেনে রাখতে পারে। ফলে একদিকে যেমন অতিরিক্ত বার বাথরুমে যেতে হয় না, তেমনিই হজম শক্তি বৃদ্ধি করে, সেই সঙ্গে কোষ্ঠকাঠিন্যের সমস্যাও দূর করে। ৮.ওজন কমাতে সাহায্য করে কত মানুষই তো আছেন, যারা অতিরিক্ত ওজনের কারণে জর্জরিত। আবার শুধুমাত্র এই কারণে, নানারকম রোগও শরীরে বাসা বাঁধতে শুরু করে। এমনকি, ডায়াবেটিস, হাড়ের রোগ কত কিছুই না হয়। তাই সেই সমস্ত রোগকে যদি বিদায় জানাতে চান, তাহলে নিয়ম করে আপেল খান। ফলটিতে উপস্থিত ফাইবার আপনার পেট ভরাতে সাহায্য করে কোনও ক্যালরি ছাড়াই। এর ফলে ওজনও নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। ৯.লিভার সুস্থ থাকে আমরা যা কিছু খাই, তার মধ্যে কিছু না কিছু ক্ষতিকারক পদার্থ থাকে। ফলে আমাদের লিভারের ক্ষতি হতে শুরু করে। যে কারণে লিভারকে সুস্থ রাখাটা খুবই চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়ায়। তবে লিভারকে ১০০ শতাংশ সুস্থ রাখতে পারে আপেল। এটি খুব সহজেই লিভারে জমা হওয়া ক্ষতিকারক উপাদানদের বেরিয়ে যেতে সাহায্য করে।


Copyright © 2017 আগরতলা নিউজ এক্সপ্রেস. All Rights Reserved.